Inqilab Logo

ঢাকা শুক্রবার, ২২ জানুয়ারি ২০২১, ০৮ মাঘ ১৪২৭, ০৮ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী

শীতলক্ষ্যার তীরে দুটি অবৈধ ডকইয়ার্ড উচ্ছেদ

প্রকাশের সময় : ২৩ অক্টোবর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

নারায়ণগঞ্জ থেকে স্টাফ রিপোর্টার : নারায়ণগঞ্জের বন্দর উপজেলার মদনগঞ্জে শীতলক্ষ্যা নদীর পূর্ব তীরে আলিনা ডকইয়ার্ড ও আল্লাহর দান ডকইয়ার্ড নামে দুটি অনুমোদনহীন ডকইয়ার্ড উচ্ছেদ করেছে বিআইডব্লিউটিএ নারায়ণগঞ্জ নদী বন্দর কর্তৃপক্ষ। শনিবার সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত বিআইডব্লিউটিএ’র নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রিফাত মান্নানের নেতৃত্বে পরিচালিত অভিযানে উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জের সহকারী পুলিশ সুপার ক অঞ্চল আব্দুল্লাহ আল মাসুদ, বন্দর থানার ওসি আবুল কালাম, বিআইডব্লিউটিএ নারায়ণগঞ্জ নদী বন্দরের যুগ্ম পরিচালক আরিফ উদ্দিন, অতিরিক্ত পরিচালক গোলাম মোস্তফা, সহকারী পরিচালক রেজাউল করিম রেজা প্রমুখ। অভিযানে বিআইডব্লিউটিএ’র উচ্ছেদকারী জাহাজ অগ্রদূত, একটি এক্সাভেটরসহ (ভেকু) ও ২০ জন উচ্ছেদকর্মী ছাড়াও বিপুলসংখ্যক পুলিশ সদস্য মোতায়েন করা হয়েছিল। অভিযানে দুটি ডকইয়ার্ডের অন্তত ১০টি সেমিপাকা ও কাঁচা স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়।
বিআইডব্লিউটিএ নারায়ণগঞ্জ নদী বন্দরের সহকারী পরিচালক রেজাউল করিম রেজা জানান, শীতলক্ষ্যা নদীর পূর্ব তীরে বন্দর উপজেলার মদনগঞ্জে আলিনা ডকইয়ার্ড ও আল্লাহর দান ডকইয়ার্ড দুটি দীর্ঘদিন ধরেই অনুমোদন ছাড়াই চলছিল। সম্প্রতি ওই এলাকার প্রায় ৭ একর জমি সরকারীভাবে ২০টি ড্রেজার নির্মাণের জন্য একটি ডকইয়ার্ডকে বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। আলিনা ডকইয়ার্ডের মালিক মাহফুজ ও আল্লাহর দান ডকইয়ার্ডের মালিক জহির মুন্সিকে ওই স্থানটি খালি করে দেয়ার নোটিশ দেয়া হয়েছিল। এছাড়া পার্শ্ববর্তী অন্য একটি স্থানে তারা যদি ডকইয়ার্ড পরিচালনা করতে চায় সেটাও জানানো হয়েছিল। কিন্তু অবৈধ দখলদাররা সরকারের নির্দেশনা মানেনি। এর আগে গত ২০ অক্টোবর বিআইডব্লিউটিএ নারায়ণগঞ্জ নদী বন্দরের কর্মকর্তারা ভেকু নিয়ে উচ্ছেদের চেষ্টা করলে অবৈধ দখলদাররা বহিরাগত নারী-পুরুষদের এনে বাধা দিলে সাংঘর্ষিক পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এরপর দখলদাররা সময় প্রার্থনা করলে তাদের দ্রুত অবৈধ স্থাপনা সরিয়ে নেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়। কিন্তু তারপরেও তারা অবৈধ স্থাপনা সরিয়ে নেয়নি। যে কারণে শনিবার ২২ অক্টোবর সকাল থেকে বিকেল অবধি বিআইডব্লিউটিএ’র নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রিফাত মান্নানের নেতৃত্বে পরিচালিত অভিযানে দুটি ডকইয়ার্ডের অন্তত ১০টি সেমিপাকা ও কাঁচা স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়েছে। এছাড়া নদী তীরে থাকা নির্মাণাধীন জাহাজগুলো দ্রুত সরিয়ে নেয়ার জন্য সময় বেঁধে দেয়া হয়েছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: শীতলক্ষ্যার তীরে দুটি অবৈধ ডকইয়ার্ড উচ্ছেদ
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ