Inqilab Logo

মঙ্গলবার, ০৯ আগস্ট ২০২২, ২৫ শ্রাবণ ১৪২৯, ১০ মুহাররম ১৪৪৪ হিজরী

শিনজিয়াং প্রদেশের উপরে নিষেধাজ্ঞা আমেরিকার

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৯ ডিসেম্বর, ২০২১, ১:০৫ পিএম

মার্কিন কংগ্রেসে পাশ হলো নতুন বিল। শিনজিয়াং প্রদেশের কোনো জিনিস আমেরিকায় রপ্তানি করা যাবে না। মানবাধিকারের স্বার্থে এই বিল আনা হয়েছে বলে দাবি কংগ্রেসের।

চীনে উইগুর মুসলিমদের বিরুদ্ধে অত্যাচার চলছে, এই অভিযোগ অনেক দিনের। সাম্প্রতিক কালে এই নিয়ে চীনকে একাধিকবার সরাসরি সতর্ক করেছে আমেরিকা। এবার সেই বিষয়টিকে সামনে রেখেই শিনজিয়াং প্রদেশে তৈরি হওয়া সমস্ত জিনিসের উপর নিষেধাজ্ঞা ঘোষণা করা হলো। শিনজিয়াং প্রদেশেই উইগুর মুসলিমদের ক্যাম্প তৈরি করে রাখা হয়েছে।

বুধবার মার্কিন কংগ্রেসে ৪২৮-১ ভোটে পাস হয়েছে বিলটি। বিলের নাম উইগুর ফোর্সড লেবার প্রিভেনশন অ্যাক্ট। বিলে বলা হয়েছে, শিনজিয়াং প্রদেশে তৈরি কোনো সংস্থার কোনো জিনিস আমেরিকায় রপ্তানি বা বিক্রি করা যাবে না। যদি কোনো সংস্থা বিক্রি করতে চায়, তাহলে তাকে প্রমাণ করতে হবে যে তারা ফোর্সড লেবার ব্যবহার করেনি।

উইগুরে তুলো চাষ হয়। বিশ্বের বহু বড় বড় সংস্থা সেই তুলো কিনে শিনজিয়াংয়ে তাদের জিনিস তৈরি করে। এবার সেই সব জিনিস আমেরিকায় বিক্রি করা যাবে না। কংগ্রেসে পাস হওয়া বিলটি এবার সেনেটে যাবে। সেখানে পাস হলে প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের সই প্রয়োজন। তারপরেই বিলটি আইনে পরিণত হবে। বিশেষজ্ঞদের মতে, বিলটির আইন হওয়া এখন কেবল সময়ের অপেক্ষা।

শিনজিয়াং প্রদেশে উইগুর মুসলিমদের বসবাস। অভিযোগ, সেখানে ক্যাম্প তৈরি করে তাদের আটকে রাখা হয়। তাদের উপর অমানবিক অত্যাচার চালানো হয়। জোর করে তাদের দিয়ে কাজ করানো হয়। আমেরিকা চীনের বিরুদ্ধে গণহত্যার অভিযোগও এনেছে। আমেরিকা সরকারি ভাবে ওই ক্যাম্পকে কনসেনট্রেশন ক্যাম্পের সঙ্গে তুলনা করেছে। যদিও চীন তা মানতে নারাজ। তাদের বক্তব্য, উইগুরদের জন্য স্কুল তৈরি করে দেওয়া হয়েছে। ক্যাম্পের স্কুলে তারা যায়। তাদের উপর কোনোরকম অত্যাচার হয় না।

আমেরিকার নতুন আইনের ফলে বহু বড় বড় সংস্থা সমস্যায় পড়বে বলে মনে করা হচ্ছে। কারণ, বড় বড় ব্র্যান্ডের জিনিস শিনজিয়াং প্রদেশে তৈরি হয়। কর্মী এবং কাঁচা মালের সুবিধার জন্যই সেখানে কারখানা তৈরি হয়েছে। কিন্তু আমেরিকা সে জিনিস না নিলে তাদের বিকল্প ভাবতে হবে। সূত্র: রয়টার্স, এপি।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আমেরিকা


আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ