Inqilab Logo

শুক্রবার, ২০ মে ২০২২, ০৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৮ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

বসুন্ধরার আতঙ্ক আবাহনীর কলিন্দ্রেস

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৮ ডিসেম্বর, ২০২১, ১২:০১ এএম

ঘরোয়া ফুটবলের মৌসুমসূচক টুর্নামেন্ট স্বাধীনতা কাপের ফাইনালে আজ বর্তমান চ্যাম্পিয়ন বসুন্ধরা কিংসের মুখোমুখি হচ্ছে ঢাকা আবাহনী লিমিটেড। কমলাপুরস্থ বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ সিপাহী মোস্তফা কামাল স্টেডিয়ামে বিকাল সাড়ে ৫টায় শুরু হবে ম্যাচটি। এ ম্যাচে বসুন্ধরার আতঙ্ক হতে পারেন রাশিয়া বিশ্বকাপে খেলা আবাহনীর কোস্টারিকার ফরোয়ার্ড ড্যানিয়েল কলিন্দ্রেস। কারণ তিন বছর আগে সর্বশেষ স্বাধীনতা কাপের শিরোপা জেতার মিশনে এই কলিন্দ্রেসই ছিলেন বসুন্ধরা কিংসের তুরুপের তাস। তাকে সঙ্গে নিয়েই কিংসরা স্বাধীনতা কাপ ছাড়াও প্রিমিয়ার লিগ ও ফেডারেশন কাপের শিরোপা জিতেছিল। মাঝে এক মৌসুম ঢাকায় ছিলেন না কলিন্দ্রেস। এবার ফিরেছেন ঠিকই তবে বসুন্ধরায় নয়, নিজের ঠিকানা খুঁজে নিয়েছেন আবাহনীর ডেরায়।
ঢাকা আবাহনী লিমিটেড সর্বশেষ ১৯৯০ সালে স্বাধীনতা কাপে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল। ২০১৬ সালে এই টুর্নামেন্টের ফাইনালে উঠলেও চট্টগ্রাম আবাহনীর কাছে হেরেছিল তারা। ৩১ বছর পর আবারো টুর্নামেন্টের ট্রফি জয়ের হাতছানি আবাহনীর সামনে। অন্যদিকে বসুন্ধরার জন্য শিরোপা ধরে রাখার মিশন এটা। সেই মিশনে আজ লড়াইটা হতে পারে কিংসদের ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড রবসন রবিনহো এবং আবাহনীর কলিন্দ্রেসের সঙ্গে। চলতি মৌসুমে গ্রুপ পর্ব থেকে শুরু করে কোয়ার্টার ফাইনাল এবং সেমিফাইনাল- সবখানেই দাপট দেখিয়ে শিরোপামঞ্চে দাঁড়িয়ে পর্তুগিজ কোচ মারিও লেমোসের দল আবাহনী। বিশেষ করে কোস্টারিকার কলিন্দ্রেস দলে যোগ দেয়ার পর আবাহনী আরও গোছালো দলে পরিণত হয়েছে। তার সঙ্গে জুটি জমেছে ব্রাজিলিয়ান রাফায়েল অগাস্তোর। এ দুই বিদেশির সঙ্গে চোট কাটিয়ে ফেরা স্থানীয় ফরোয়ার্ড নাবীব নেওয়াজ জীবনও রয়েছেন ছন্দে। এবারের আসরে বসুন্ধরার রবসন, জোনাথনের সঙ্গে তিন গোল নিয়ে যৌথভাবে শীর্ষে আছেন কলিন্দ্রেস। কম যাননি কিংসের রবসনও। ছন্দময় ফুটবল খেলে এই ব্রাজিলিয়ানও নিজেকে নিয়ে গেছেন অনন্য উচ্চতায়। আজকের ফাইনালে পার্থক্য গড়ে দিতে পারেন দুই দলের বিদেশি ফুটবলারাই। তবে বসুন্ধরার জন্য দু:সংবাদ ইনজুরির কারণে আবাহনীর বিপক্ষে ফাইনালে খেলতে পারবেন না ব্রাজিলিয়ান মিডফিল্ডার জোনাথন ফার্নান্দেজ। তার শূন্যস্থান পূরণ করা কিংসদের জন্য কঠিন হলেও বাকিদের নিয়ে আবাহনীর বিপক্ষে ম্যাচ জেতার আশা টুর্নামেন্টের বর্তমান চ্যাম্পিয়নদের। দু’দলই চাইছে নিজেদের সেরা মাঠে ঢেলে দিয়ে জয় পেতে। দেখা যাক শেষ পর্যন্ত কার ঘরে যায় এবারের স্বাধীনতা কাপের চকচকে সোনালী ট্রফি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ঘরোয়া ফুটবল

২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২২

আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ