Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৭ আশ্বিন ১৪২৬, ২২ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী

শফিউল আউট, মোসাদ্দেক-শুভাশীষ ইন

প্রকাশের সময় : ২৫ অক্টোবর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

স্পোর্টস রিপোর্টার : ১৬ কোটি মানুষের স্বপ্ন ভঙ্গ হয়েছে চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজের প্রথমটি ২২ রানে হেরে গেছে বাংলাদেশ। সেই দুঃস্বপ্ন কাটিয়ে ঢাকার মিরপুর শেরে বাংলা ক্রিকেট স্টেডিয়ামে জয়ের পরিকল্পনা এখন থেকেই শুরু করে দিয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। গতকাল ঘোষিত দ্বিতীয় টেস্টের দলের তারই প্রতিচ্ছবি। প্রথম টেস্টের স্কোয়াডেও ডাক পাওয়ার দাবিদার ছিলেন দুজন। তখন সেটি হয়নি। তবে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে দ্বিতীয় টেস্টের বাংলাদেশ স্কোয়াডে জায়গা পেলেন পেসার শুভাশীষ রায় ও অলরাউন্ডার মোসাদ্দেক হোসেন। প্রথম টেস্টের স্কোয়াড থেকে জায়গা হারিয়েছেন কেবল শফিউল ইসলাম। মিরপুর টেস্টের স্কোয়াড তাই ১৫ সদস্যের। ২৮ অক্টোবর মাঠে নামবে স্বাগতিকরা।
চট্টগ্রাম টেস্টে দুই ইনিংস মিলিয়ে মাত্র ১২ ওভার বোলিং করার সুযোগ পেয়েছিলেন শফিউল। উইকেট পাননি, খুব বেশি প্রভাবও রাখতে পারেননি। আরেক পেসার অভিষিক্ত কামরুল ইসলাম রাব্বি প্রথম ইনিংসে ৮ ওভারে ৪১ রান দিলেও পরের ইনিংসে পুরোনো বলে বেশ ভালো বোলিং করেছেন। নিয়েছেন জনি বেয়ারস্টোর উইকেট। ওই স্পেলটাতেই হয়ত ধরে রেখেছেন জায়গা।
টিম ম্যানেজমেন্ট থেকে রুবেল হোসেন, আল আমিন হোসেন ও মোহাম্মদ শহীদকে প্রস্তুত থাকার কথা বলা হয়েছিল। তবে শেষ পর্যন্ত তাদের কারও জায়গা হলো না। রাব্বির সঙ্গে স্কোয়াডে শুভাশীষ, অর্থাৎ মিরপুর টেস্টের স্কোয়াডে বাংলাদেশের দুই পেসারের অভিজ্ঞতা এক টেস্টের!
স্কোয়াডে দুজন পেসারই রাখা এবং বাড়তি আরেকজন অফ স্পিনিং অলরাউন্ডারের অন্তর্ভুক্তি উইকেটের সম্ভাব্য আচরণ সম্পর্কেও ইঙ্গিত দিচ্ছে। হয়ত আরেকটি টার্নিং উইকেটই অপেক্ষায়। একাদশেও ঢুকতে পারেন আরেকজন স্পিনার বা স্পিন অলরাউন্ডার!
শুভাশীষ প্রথমবার ডাক পেয়েছেন মূল দলে। গত বছরও ঢাকা মোহামেডানের জার্সি গায়ে ঘরোয়া ক্রিকেটে মাঠ মাতিয়েছেন এই পেসার। তবে সাইড স্ট্রেইন ইনজুরির কারণে বেশ কিছুদিন ছিলেন ক্রিকেটের বাইরে। আর মোসাদ্দেক আবাহনীর হয়ে দলকে জিতিয়েছেন দুর্দান্ত কিছু ম্যাচ। গতবছর জাতীয় লিগে আছে দুটি ২ ডাবল সেঞ্চুরি। এই অলরাউন্ডারও সাব্বিরের মত প্রথমে টি-২০, পরে ওয়ানডে এবং সবশেষে হলো টেস্ট অভিষেক।
এদিকে, এই মুহূর্তে ১-০ ব্যবধানে সিরিজে এগিয়ে থাকলেও ঢাকায় দ্বিতীয় টেস্টকে ঘিরে ভিন্ন পরিকল্পনা সাজাচ্ছেন ইংল্যান্ড অধিনায়ক অ্যালিস্টার কুক। ইঙ্গিত দিয়েছেন বোলিং আক্রমণে পরিবর্তন আনার। গতকাল ম্যাচ শেষে বললেন, ‘পরের টেস্টে কিছু পরিবর্তন আসছে। আমরা যদি একই একাদশ নিয়ে খেলি তাহলে হয়তো অনেকে থেকে যাবে, যাদের এখনও টেস্ট খেলার অভিজ্ঞতা নেই। তবে পরিবর্তনটা ঘুরিয়ে ফিরিয়েই করা হবে।’ কুক নিশ্চিত করে জানিয়েছেন ঘুরিয়ে ফিরিয়ে এই পরিবর্তনটা মূলত বোলিং বিভাগেই হবে। মূলত এই স্কোয়াডে থাকা বাকি নতুনদের অভিজ্ঞতা অর্জনকেই গুরুত্ব দিচ্ছেন তিনি। যাতে করে ভারতের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজে তাদের ব্যবহার করতে পারেন, ‘দলে দারুণ কিছু ক্রিকেটার রয়েছে যারা এখনও সুযোগ পায়নি। তবে এর শুরুটা বোলিং বিভাগ দিয়েই হবে।’ যদি তাই হয় তাহলে স্টুয়ার্ট ব্রডকে বিশ্রামে রাখতে পারে ইংল্যান্ড। ইতোমধ্যেই ৯৯ টেস্ট খেলেছেন তিনি। একই সম্ভাবনা থাকতে পারে ওকসকে ঘিরেও। তাহলে বাঁহাতি স্পিনার জাফর আনসারিকে সে ক্ষেত্রে সুযোগ দেওয়া হতে পারে।
মিরপুর টেস্টে বাংলাদেশ দল
মুশফিকুর রহিম (অধিনায়ক), তামীম ইকবাল (সহ-অধিনায়ক), সৌম্য সরকার, ইমরুল কায়েস, মুমিনুল হক, মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ, সাকিব আল হাসান, শুভাগত হোম চৌধুরী, সাব্বির রহমান রুম্মান, মেহেদী হাসান মিরাজ, তাইজুল ইসলাম, কামরুল ইসলাম রাব্বি, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, নুরুল হাসান সোহান, শুভাশীষ রায়।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন