Inqilab Logo

বৃহস্পতিবার, ২৬ মে ২০২২, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২৪ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

জাতিসংঘে আসনের জন্য ফের আবেদন তালেবানের

মার্কিন সমর্থিত রাষ্ট্রদূতের পদত্যাগ

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৯ ডিসেম্বর, ২০২১, ১২:০০ এএম

প্রাক্তন মার্কিন-সমর্থিত সরকারের রাষ্ট্রদূত তার পদ ছেড়ে দেয়ার পর তালেবান গত শুক্রবার জাতিসংঘে আফগানিস্তানের আসনের জন্য একটি নতুন আবেদন করেছে। জাতিসংঘের আসন এবং বিদেশে অন্য কিছু দূতাবাস পুরনো সরকারের নির্বাসিত ক‚টনীতিক এবং আফগানিস্তানের নতুন ইসলামপন্থী শাসকদের মধ্যে টানাপোড়েনের কেন্দ্রে রয়েছে। কোনো দেশ এখনও তালেবান শাসনকে স্বীকৃতি দেয়নি।

জাতিসংঘের সহকারী মুখপাত্র ফারহান হক এএফপিকে বলেছেন যে, তার বৃহস্পতিবার প্রাপ্ত একটি চিঠি অনুসারে আফগান রাষ্ট্রদূত গুলাম ইসাকজাই ‘১৫ ডিসেম্বর থেকে তার পদ ত্যাগ করেছেন’। পদটির জন্য তালেবানের মনোনীত প্রার্থী সুহেল শাহীন বলেছেন, আসনটি এখন আফগানিস্তানের নতুন সরকারকে দেয়া উচিত, এটি বিশ্ব সংস্থার জন্য বিশ্বাসযোগ্যতার বিষয়। তিনি টুইটারে বলেছেন, আফগানিস্তানের বর্তমান সরকারের দেশের ওপর ‘সার্বভৌমত্ব’ রয়েছে। এ মাসের গোড়ার দিকে জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদ প্রতিদ্ব›দ্বী দাবির বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে অনির্দিষ্টকালের জন্য বিলম্বিত একটি প্রস্তাব পাস করেছে। কিন্তু তালেবান দখলের এক মাস পরেও ইসাকজাইকে এখনো জাতিসংঘের সদর দফতরে গ্রহণ করা হচ্ছে এবং নভেম্বরে একটি নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠকে খোলাখুলিভাবে দেশটির নতুন শাসকদের সমালোচনা করেছিলেন।

১৯৯৬ থেকে ২০০১ পর্যন্ত তাদের প্রথম শাসনামলে জাতিসংঘে তালেবানদের কোনো প্রতিনিধিত্ব ছিল না এবং তাদের শাসনকে শুধুমাত্র তিনটি দেশ, সউদী আরব, সংযুক্ত আরব আমিরাত এবং পাকিস্তান স্বীকৃতি দিয়েছিল।
জাতিসংঘ মনোনীত শাহীন সেই সময়কালে ইসলামাবাদে ডেপুটি অ্যাম্বাসেডর হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তারা পদচ্যুত হওয়ার পর আন্দোলনের নির্বাসিত মুখপাত্র হয়ে ওঠেন এবং তার সাবলীল ইংরেজির কারণে বিদেশী মিডিয়ার প্রিয় হয়ে ওঠেন। সূত্র : আল-আরাবিয়া।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: তালেবান


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ