Inqilab Logo

রোববার, ২৯ মে ২০২২, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২৭ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

রাষ্ট্রায়ত্ব ২৫ টি পাটকল চালু ও বকেয়া পরিশোধের দাবিতে খুলনায় শ্রমিকদের সড়ক অবরোধ

খুলনা ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ২৩ ডিসেম্বর, ২০২১, ৪:৪৫ পিএম | আপডেট : ৬:১৫ পিএম, ২৩ ডিসেম্বর, ২০২১

খুলনা মহানগরীর নতুন রাস্তার মোড়ে সড়ক অবরোধ করেছে শ্রমিকরা। উৎপাদন বন্ধ থাকা রাষ্ট্রায়ত্ত ২৫টি পাটকল চালু, খালিশপুর ও দৌলতপুর জুটমিল, চট্টগ্রামের কেএফডি, আর আর এবং সিরাজগঞ্জের জাতীয় জুটমিল ৫টি পাটকলের শ্রমিকদের ২০১৫ সালের ১ জুলাইয়ের প্রাপ্য বকেয়া বেতনসহ অন্যান্য পাওনা পরিশোধের দাবিতে এ কর্মসূচি পালন করা হয়।
বৃহস্পতিবার (২৩ ডিসেম্বর) সকাল ১০টা থেকে বেলা ১২টা পর্যন্ত নতুন রাস্তা মোড়ে এ সড়ক অবরোধ করে তারা। খালিশপুর-দৌলতপুর জুটমিল কারখানা কমিটির ব্যানারে এ কর্মসূচি পালন করে শ্রমিকরা।
সমাবেশে বক্তারা বলেন, সরকার পরিকল্পিতভাবে মহামারী করোনার সময়ে ২৫টি রাষ্ট্রায়ত্ব পাটকল বন্ধ করে দিয়েছে। ফলে হাজার-হাজার শ্রমিকসহ পাটসংশ্লিষ্ট ৩ কোটির উর্ধ্বে মানুষ কর্মহীন হয়ে পড়েছে। কর্মহীন শ্রমিকরা অর্ধাহারে-অনাহারে থেকে অবর্ণনীয় মানবেতর জীবন-যাপন করছে। দীর্ঘ ১৮ মাস ধরে অধিকাংশ শ্রমিক সম্পূর্ণ মজুরী না পেয়ে স্ত্রী-সন্তানদের মুখে খাবার দিতে ব্যর্থ হচ্ছে। ছেলে-মেয়েদের লেখাপড়া বন্ধ হয়ে গেছে। পরিবারের অসুস্থ সদস্যদের চিকিৎসা করাতে পারছে না। এ অবস্থায় ধারাবাহিকভাবে চাল-ডাল-তেলসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির ফলে শ্রমিক-কৃষকসহ সাধারণ মানুষের জীবন ওষ্ঠাগত। অসাধু ব্যবসায়ী সিন্ডিকেট ভাঙতে পারছে না বর্তমান সরকার।
বক্তারা আরও বলেন, পাটকলসহ জনগণের সকল রাষ্ট্রীয় সম্পদ লুট হচ্ছে। দেশে চুরি-দুর্নীতির রাজত্ব কায়েম হয়েছে। মন্ত্রী, সচিব, রাজনীতিবিদ ও বিজেএমসির কর্মকর্তা এই দুর্নীতির তালিকার বাইরে নয়। হাজার-হাজার কোটি টাকা বিদেশে পাচার হচ্ছে। সরকার এদের পাকড়াও করতে পারছেন না। অথচ পাটকল শ্রমিকরা তাদের ন্যায্য পাওনার জন্য রাজপথে আন্দোলন-সংগ্রাম করলে প্রশাসন দিয়ে হামলা-মামলা করা হচ্ছে। নির্যাতন-নিপীড়ন চালানো হচ্ছে।
বক্তারা চাকুরীহারা ও ক্ষতিগ্রস্ত ৫টি পাটকলের শ্রমিকদের উৎপাদনশীলতা মজুরী কমিশন, ২০১৫ অনুযায়ী প্রাপ্য বেতন, বকেয়া ৬টি বিলসহ অন্যান্য পাওনাদি পরিশোধের দাবি জানান।
সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন কারখানা কমিটির সভাপতি ও সিবিএ সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ মনির হোসেন মনি এবং সঞ্চালনা করেন সাধারণ সম্পাদক আলমগীর কবির।
সমাবেশে বক্তব্য রাখেন পাটকল রক্ষায় সম্মিলিত নাগরিক পরিষদের সদস্য সচিব এস এ রশীদ, গণসংহতি আন্দোলন খুলনা জেলা সমন্বয়ক মুনীর চৌধুরী সোহেল, বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল-বাসদ খুলনা জেলা সমন্বয়ক জনার্দন দত্ত নান্টু, সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্ট খুলনা জেলা সভাপতি আবদুল করিম, ছাত্র ফেডারেশন খুলনা মহানগর আহবায়ক আল আমিন শেখ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ