Inqilab Logo

শনিবার, ২১ মে ২০২২, ০৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৯ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

প্রকৃত জীবন আখেরাতেই

খুৎবা-পূর্ব বয়ান

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৫ ডিসেম্বর, ২০২১, ১২:০০ এএম

মহান আল্লাহ তায়ালা পবিত্র কোরআনে এরশাদ করেন, ‘তোমরা কি আখেরাতের পরিবর্তে দুনিয়ার জীবনকে নিয়ে পরিতুষ্ট হয়েছ? জেনে রাখ, আখেরাতের তুলনায় দুনিয়ার জীবনের ভোগের উপকরণ একেবারেই নগণ্য ও তুচ্ছ।’ (সুরা তাওবা, আয়াত নং-৩৮)। অন্য আয়াতে আরও বলেছেন, ‘দুনিয়ার জীবন খেল তামাশা ছাড়া আর কিছুই নয়। আর আখেরাতের জীবনই প্রকৃত জীবন। গতকাল জুমার খুৎবা পূর্ব বয়ানে পেশ ইমাম এসব কথা বলেন। নগরীর মসজিদগুলোতে স্থান সঙ্কুলান না হওয়ায় অনেক মুসল্লিকে রাস্তার ওপর জুমার নামাজ আদায় করতে দেখা যায়।

রাজধানীর মিরপুরের বাইতুল আমান কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ খতিব মুফতি আবদুল্লাহ ফিরোজী গতকাল জুমার খুৎবা পূর্ব বয়ানে বলেন, পার্থিব এ জীবন ক্ষণস্থায়ী। এর জন্য আমরা কত কিছুই না করি। ভালো-মন্দ ভুলে গিয়ে নানান পাপে জড়িয়ে পড়ছি। অথচ একজন মোমিন-মুত্তাকি ব্যক্তি পার্থিব জীবনের সুখশান্তি, ভোগবিলাসে মত্ত না হয়ে আল্লাহ তায়ালা এবং পরকালকে ভালোবাসে। যেহেতু আল্লাহ তায়ালা আমাদেরকে তার ইবাদতের জন্যই সৃষ্টি করেছেন। এজন্য সৃষ্টির উদ্দেশ্য ভুলে গিয়ে এই ক্ষণস্থায়ী জীবনের প্রতি আমরা বেশি মনোযোগী না হই। নবীজি (সা.) বলেন, যে ব্যক্তি দুনিয়াকে মহব্বত করল, সে তার পরকালকে ক্ষতিগ্রস্ত করল। আর যে ব্যক্তি পরকালকে মহব্বত করল, সে তার দুনিয়াকে ক্ষতিগ্রস্ত করল। সুতরাং তোমরা অস্থায়ী বস্তুর ওপর চিরস্থায়ী বস্তুকে প্রাধান্য দাও। (মুসনাদে আহমাদ, মিশকাত)।

খতিব বলেন, মহান আল্লাহ তায়ালা পবিত্র কোরআনে এরশাদ করেন, ‘তোমরা কি আখেরাতের পরিবর্তে দুনিয়ার জীবনকে নিয়ে পরিতুষ্ট হয়েছ? জেনে রাখ, আখেরাতের তুলনায় দুনিয়ার জীবনের ভোগের উপকরণ একেবারেই নগণ্য ও তুচ্ছ।’ (সুরা তাওবা, আয়াত নং-৩৮)। অন্য আয়াতে আরও বলেছেন, ‘দুনিয়ার জীবন খেল তামাশা ছাড়া আর কিছুই নয়। আর আখেরাতের জীবনই প্রকৃত জীবন; যদি তারা জানত!’ (সুরা আনকাবুত, আয়াত নং-৬৪)। খতিব আরও বলেন, দুনিয়ার স্বল্পসময়কে কাজে লাগিয়ে আখেরাতের অনন্তকালের জীবনকে জয় করা উচিত। ক্ষণস্থায়ী দুনিয়ার উপভোগ্য বস্তু যেন মানুষকে কোনোভাবেই ধোঁকায় না ফেলে, সে জন্য মহান আল্লাহ তায়ালা এ ব্যাপারে সতর্ক করে দিয়ে বলেছেন, ‘হে মানুষ! নিশ্চয় আল্লাহর প্রতিশ্রুতি সত্য; কাজেই দুনিয়ার জীবন যেন তোমাদের কিছুতেই প্রতারিত না করে এবং প্রবঞ্চক শয়তান যেন কিছুতেই তোমাদের আল্লাহর ব্যাপারে প্রবঞ্চিত না করে।’ (সুরা ফাতির, আয়াত নং-৫)। মহান আল্লাহ তায়ালা আমাদের দুনিয়ার স্বল্পসময়কে কাজে লাগিয়ে আখেরাতের অনন্তকালের জীবনে অনাবিল শান্তি লাভের তৌফিক দান করেন- আমীন।

বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের পেশ ইমাম মুফতি মুহিউদ্দীন কাসেম গতকাল জুমার খুৎবা পূর্ব বয়ানে বলেন, জবানের হেফাজত এর গুরুত্ব অনেক। মনে রাখতে হবে, জবানের একটি কথা মানুষকে সম্মানিত করে, আবার এই জবানের একটি কথা মানুষকে অপমানিত করে। শুধু তাই নয়, জবানের একটি কথার কারণে মানুষ জান্নাতের উপযুক্ত হয় আবার এ জবানের আরেকটি অনর্থক কথার কারণে মানুষ জাহান্নামের উপযুক্ত হয়। সুতরাং আমাদের এ জবানের পরিপূর্ণ হেফাজত করতে হবে। কোরআনে কারিমে রাব্বুল আলামিন এরশাদ করেছেন, স্মরণ রেখ, দুই প্রহণকারী ফিরিশতা তার ডানে ও বামে বসে তার কর্ম লিপিবদ্ধ করে; মানুষ যে কথাই উচ্চারণ করে, তার জন্য একজন প্রহরী নিযুক্ত আছে, যে (লেখার জন্য) সদা প্রস্তুত। সুরা কফ (৫০) : ১৭-১৮। একবার হজরত উকবা ইবনে আমের (রা.) নবীজিকে জিজ্ঞেস করলেন, হে আল্লাহর রাসুল! নাযাত কীসে? নবীজি উত্তরে সর্বপ্রথম যে বিষয়টি উল্লেখ করলেন তা হলো তুমি তোমার জবানের নিয়ন্ত্রণ কর। (তিরমিজি, হাদিস-২৪০৬)।
অপর হাদিসে নবীজি (সা.) এরশাদ করেছেন, জবানের কামাই-ই তো মানুষকে অধঃমুখী করে জাহান্নামে নিক্ষেপ করবে! জামে তিরমিজি, হাদিস-২৬১৬। আমাদের জবানের হেফাযত করে সব কথা ভেবে চিন্তে বলতে হবে ৷আল্লাহ আমাদের গোনাহ মুক্ত জীবনযাপনের তৌফিক দান করেন- আমীন।

দিনাজপুর গোর এ শহীদ কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের খতিব মাওলানা রেজাউল করিম গতকাল জুমার খুৎবার বয়ান বলেন, আল্লাহ তায়ালা পবিত্র কোরআন শরীফে বলেন, আপনি সুন্দর নসিহত এবং হেকমতের সহিত আপনার প্রভুর পথের দিকে আহ্বান করেন। অন্য জায়গায় আল্লাহ তায়ালা বলেন, ‘হে নবী আপনি আমার সেসব বান্দাদের সুসংবাদ দিন, যারা আমার কথা মনোযোগ সহকারে শ্রবণ করে।’ আর ভালো কথার ওপর আমল করে। ইহারাই তাহারা যাহাদিগকে আল্লাহ তায়ালা হেদায়েত দান করেছেন। আর ইহারাই বুদ্ধিমান। যারা মজলিসে যবানের হেফাজত করেন। বাজারে চোখের হেফাজত করেন। আল্লাহ আমাদের নেক আমল করার তৌফিক দান করুন- আমীন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: খুৎবা-পূর্ব বয়ান

১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২২
২৫ ডিসেম্বর, ২০২১

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ