Inqilab Logo

বুধবার, ১৮ মে ২০২২, ০৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৬ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

ব্যাটিং পরামর্শক হয়ে বাংলাদেশে ফিরছেন সিডন্স

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৬ ডিসেম্বর, ২০২১, ১২:০৫ এএম

অনেক দিন থেকেই গুঞ্জন চলছিল সাবেক কোচ জেমি সিডন্স ফিরছেন বাংলাদেশের ক্রিকেটে। শেষ পর্যন্ত সে গুঞ্জনই সত্যি হতে চলেছে। ব্যাটিং পরামর্শক হিসেবে যোগ দিতে যাচ্ছেন এই অস্ট্রেলিয়ান। গতকাল বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) পরিচালকদের সভা শেষে সাংবাদিকদের বিষয়টি জানিয়েছেন সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন।
সা¤প্রতিক সময়ে ব্যর্থতার বৃত্ত থেকে বের হতে পারছে না বাংলাদেশ। এজন্য অধিকাংশ সময়ই কাঠগড়ায় থাকেন ব্যাটাররা। অ্যাশওয়েল প্রিন্সকে ব্যাটিং পরামর্শক বানিয়ে কার্যত কোনো উন্নতি দেখা যায়নি। তাই বাধ্য হয়েই জাতীয় দলের সাবেক কোচ সিডন্সের দিকে হাত বাড়িয়েছে বিসিবি। তামিম ইকবাল, সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহদের পরিণত করার পেছনে যথেষ্ট অবদান ছিল তার। নির্দিষ্ট কোনো দিনক্ষণ না জানালেও আগামী ফেব্রæয়ারি থেকে টাইগারদের ক্যাম্প দেখা যেতে পারে সিডন্সকে। সংবাদ সম্মেলনে নাজমুল জানান, ‘আপনারা হয়তো অনেকেই জানেন, জেমি সিডন্সকে আমরা ব্যাটিং পরামর্শক হিসেবে নিয়োগ দিচ্ছি। কোথায় করবে, কী করবে সেটা এখনও চ‚ড়ান্ত হয়নি। আমরা আশা করছি যে সবকিছু ঠিক থাকলে হয়তোবা ফেব্রæয়ারিতে সে আমাদের এখানে ব্যাটিং পরামর্শক হিসেবে যোগ দিবে।’
সিডন্স ঠিক কোন পর্যায়ে কাজ করবেন তা এখন ঠিক করেনি বিসিবি। বাংলাদেশ জাতীয় দল, হাই-পারফরম্যান্স (এইচপি) কিংবা বয়সভিত্তিক পর্যায়ে যে কোনো দলের সঙ্গেই যুক্ত হতে পারেন তিনি। এ প্রসঙ্গে বোর্ড প্রধান বলেন, ‘সিডন্স কোন কোন পর্যায়ে কাজ করবে এটা আমরা ঠিক করব। আমরা যদি বলি এইচপি, তাহলে এইচপি; আমরা যদি বলি অনূর্ধ্ব-১৯, তাহলে অন‚র্ধ্ব-১৯; আমরা যদি বলি জাতীয় দল, তাহলে জাতীয় দল; আমরা যদি বলি বাংলা টাইগার্স বা আমরা যদি ১৫-১৬টা ছেলেকে বেছে নিয়ে ওর কাছে দেই, তাহলে সেটাই।’ ৫৭ বছর বয়সী সিডন্সের বাংলাদেশ দলের কোচ হিসেবে যাত্রা শুরু হয়েছিল ২০০৭ সালের অক্টোবরে। ২০১১ সালের ওয়ানডে বিশ্বকাপের পর তিনি পদত্যাগ করেন। ম‚লত ঘরের মাঠে বিশ্বকাপে ব্যর্থতার কারণেই বিদায় নিতে হয় তাকে। চ‚ড়ান্ত সফলতা না পেলেও বাংলাদেশের ব্যাটারদের উন্নতিতে তার অবদান অনস্বীকার্য। তাই ব্যাটিং দুর্বলতা কাটাতে আরও একবার সিডন্সের শরণাপন্ন হয়েছে বিসিবি।
এদিকে, ক্রিকেট অপারেশন্সের চেয়ারম্যান হিসেবে আর থাকতে চান না আকরাম খান। কদিন আগেই ঘটা করে বিষয়টি জানিয়েছিলেন এ সাবেক ক্রিকেটার। বাধ্য হয়েই নতুন কাউকে খুঁজতে হয় বিসিবিকে। শেষ পর্যন্ত এ দায়িত্বের জন্য জালাল ইউনুসকে বেছে নিয়েছে দেশের ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থাটি। এ কমিটিতে এবার ভাইস চেয়ারম্যান হিসেবে আছেন তিনি। চেয়ারম্যানের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে তানভীর আহমেদ টিটুকে। বহুল আলোচিত এ প্রসঙ্গে সংবাদ সম্মেলনে পাপন বলেন, ‘ক্রিকেট অপারেশন্সে জালাল ইউনুসকে এই কমিটির চেয়ারম্যান হিসেবে আমরা দায়িত্ব দিয়েছি। ওনার সঙ্গে ভাইস চেয়ারম্যান হিসেবে কাজ করবেন খালেদ মাহমুদ সুজন। মিডিয়া অ্যান্ড কমিউনিকেশন্সে চেয়ারম্যান তানভির আহমেদ টিটু, ভাইস চেয়ারম্যান জালাল ভাইও থাকছে। এছাড়াও বেশ কিছু চেঞ্জ করেছি।’
২০১৪ সালে পাপনের নেতৃত্বে নির্বাচিত কমিটিতে প্রথমবার ক্রিকেট অপারেশন্সের দায়িত্ব পান আকরাম। তবে পরের বছরের অক্টোবরে সাবেক জাতীয় দলের সতীর্থ নাঈমুর রহমান দুর্জয়ের কাছে পদ হারিয়েছিলেন তিনি। এরপর ২০১৬ সালের ফেব্রæয়ারিতে ফের ওই পদে বহাল হন আকরাম। এরপর দীর্ঘ ৬ বছর পালন করার পর কিছু দিন আগে এ দায়িত্ব আর না পালন করার কথা জানান তিনি। সে ধারায় সরিয়ে দেওয়া হলো সাবেক এই অধিনায়ককে।

 

বিসিবির নতুন স্ট্যান্ডিং কমিটি

ওয়ার্কিং কমিটি : চেয়ারম্যান এনায়েত হোসেন সিরাজ, মিডিয়া এন্ড কমিউনিকেশন্স : চেয়ারম্যান তানভীর আহমেদ টিটু, ভাইস চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস, গেম ডেভেলপমন্টে : চেয়ারম্যান খালেদ মাহমুদ সুজন, ভাইস চেয়ারম্যান ফাহিম সিনহা, হাই-পারফরম্যান্স : চেয়ারম্যান নাঈমুর রহমান দুর্জয়, ভাইস চেয়ারম্যান আকরাম খান, টুর্নামেন্ট কমিটি : চেয়ারম্যান আহমেদ সাজ্জাদুল আলম ববি, ভাইস চেয়ারম্যান খালেদ মাহমুদ সুজন, গ্রাউন্ডস কমিটি : চেয়ারম্যান মাহবুব আনাম, ফ্যাসিলিটিজ ম্যানেজমেন্ট ও ফিজিক্যালি চ্যালেঞ্জড ক্রিকেট : চেয়ারম্যান আকরাম খান, ক্রিকেট অপারেশন্স : চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস, ভাইস চেয়ারম্যান খালেদ মাহমুদ সুজন, বয়সভিত্তিক টুর্নামেন্ট : চেয়ারম্যান ওবেদ নিজাম, ভাইস চেয়ারম্যান তানভীর আহমেদ টিটু, আম্পায়ার্স কমিটি : চেয়ারম্যান ইফতেখার রহমান মিঠু, সিসিডিএম : চেয়ারম্যান মোহাম্মদ সালাহউদ্দিন চৌধুরী, মার্কেটিং এন্ড কমার্শিয়াল : চেয়ারম্যান শেখ সোহেল, বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিল : চেয়ারম্যান শেখ সোহেল ও বাংলা টাইগার্স : চেয়ারম্যান কাজী ইনাম আহমেদ

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বিসিবি

৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২২
২ ফেব্রুয়ারি, ২০২২

আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ