Inqilab Logo

সোমবার, ২৩ মে ২০২২, ০৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২১ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

বিদেশ থেকে টাকা এনে অনেকে ষড়যন্ত্র করছে

রাজধানীর সেগুনবাগিচায় আইজিপি

বিশেষ সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২৬ ডিসেম্বর, ২০২১, ১২:০৪ এএম

আইজিপি ড. বেনজীর আহমেদ বলেছেন, দেশের মধ্যে থাকা দেশ বিরোধী পরগাছাদের ষড়যন্ত্রের শিকল ভেঙ্গে দেশকে এগিয়ে নেয়ার জন্য সকলকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে। যারা বিদেশ থেকে সাহায্য, অনুদান এনে দেশ বিরোধী ষড়যন্ত্রে লিপ্ত তাদের জবাবদিহিতায় আনার সময় এসেছে। বিদেশ থেকে টাকা এনে অনেকে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছে। গতকাল রাজধানীর সেগুনবাগিচায় জুম বাংলা স্কুল প্রাঙ্গনে জুমবাংলা ইয়ুথ ফাউন্ডেশন কর্তৃক জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে সমাজের সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের মাঝে শীতবস্ত্র ও শিক্ষা উপকরণ বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃায় তিনি এ সব কথা বলেন।
তিনি আরো বলেন, বঙ্গবন্ধু বলেছিলেন ‘বাংলাদেশের মাটি খুবই খাঁটি। এখানে সোনা ফলে।’ সেই সঙ্গে পরগাছাও ফলে। অনেক সময় দেখা যায় ফসলের চেয়ে পরগাছা বেশি শক্তিশালী হয়ে যায়। এ পরগাছারা আমাদের পেছন থেকে খামচে ধরার চেষ্টা করছে। বাংলাদেশের মানুষ সকল ষড়যন্ত্রকে রুখে দিয়েছে। আজকে এ পঞ্চাশ বছরে বাংলাদেশের উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণ ঘটেছে। শীঘ্রই মধ্যম আয়ের দেশে আমাদের উত্তরণ হবে।
আইজিপি আরো বলেন, বাঙালি দেশপ্রেমিক জাতি। দেশের জন্য বাঙালি যতবার ঐক্যবদ্ধ হয়েছে, ততবার বিজয় ছিনিয়ে এনেছে। আমার কোন সন্দেহ নেই দিন শেষে এ জাতি বিজয়ী হবে। এক সময় বাংলাদেশ ছিল ক্ষুধা ও দারিদ্র্যের দেশ। অসুখ ও বঞ্চনা ছিল নিত্যসঙ্গী। দারিদ্র্যকে মানুষ নিয়তি হিসেবে মেনে নিত। মানুষের গড় আয়ু ছিল ৪০-৫০ বছর। এরকম একটা দেশকে বঙ্গবন্ধু স্বাধীন করেছিলেন।
তিনি বলেন, মুক্তিযুদ্ধের সময় বাংলাদেশের গরীবের হার ছিল ৮০ ভাগ। ২০০৯ সালে যখন বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসে তখন দারিদ্র্যের হার ছিল ৪৭ ভাগ। এখন দারিদ্র্যের হার ২০ ভাগ। চরম দারিদ্র্যের নিচে বসবাস করে মাত্র ৯ ভাগ মানুষ। আজ আমরা দক্ষিণ এশিয়ার অনেক দেশকে উন্নয়ন ও সামাজিক অনেক সূচকে পেছনে ফেলে দিয়েছি। অথচ এসব দেশ উন্নয়ন শুরু করেছিল আমাদের আগে।
তিনি বলেন, করোনাকালে প্রধানমন্ত্রীর দুঃসাহসীক নেতৃত্ব ও প্রাজ্ঞ অর্থনৈতিক পরিকল্পনার ফলে আমরা ঘুরে দাঁড়িয়েছি। এ অগ্রগতি ধরে রাখতে পারলে আমরা চরম দারিদ্র্যকেও জয় করে দারিদ্র্যের শিকল ভেঙ্গে বেরিয়ে আসতে পারবো। দারিদ্র্যের শিকল ভাঙার উৎসব করতে পারব। অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ পুলিশ নারী কল্যাণ সমিতির (পুনাক) সভানেত্রী জীশান মীর্জা। বক্তব্য রাখেন জুম বাংলা ইয়ুথ ফাউন্ডেশনের প্রধান পৃষ্ঠপোষক ও পুলিশের অতিরিক্ত ডিআইজি মো. মনিরুজ্জামান। সভাপতিত্ব করেন জুম বাংলা ইয়ুথ ফাউন্ডেশনের সভাপতি রুহুল আমিন সেলিম।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আইজিপি

৪ মার্চ, ২০২২
৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২২
২৫ জানুয়ারি, ২০২২

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ