Inqilab Logo

শনিবার, ২৮ মে ২০২২, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২৬ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

অস্বাভাবিক বিমান ভাড়া ও দুর্নীতি বন্ধে নোটিশ

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৯ ডিসেম্বর, ২০২১, ১২:০০ এএম

বিমান ভাড়া অস্বাভাবিক বৃদ্ধি এবং বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের অনিয়ম-দুর্নীতি বন্ধে লিগ্যাল নোটিশ দেয়া হয়েছে। ৮ ভুক্তভোগীর পক্ষে গতকাল মঙ্গলবার অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ শিশির মনির এ নোটশ দেন।
নোটিশে উল্লেখ করা হয়, ২০২০-২০২১ অর্থবছরে দেশে সব মিলিয়ে প্রবাসী আয় এসেছে প্রায় ২ হাজার ৪৭৮ কোটি ডলার। বাংলাদেশী মুদ্রায় যা ২ লাখ কোটি টাকার বেশি। এই আয় ২০১৯-২০২০ অর্থবছরের ১ হাজার ৮০৩ কোটি ডলারের চেয়ে ৩৬ শতাংশ বেশি। গত এক বছরে প্রবাসীরা যে পরিমাণ অর্থ পাঠিয়েছেন তা দিয়ে দেশে ৭টি পদ্মা সেতু নির্মাণ করা সম্ভব।

প্রবাসী আয় বাংলাদেশের অর্থনীতির অন্যতম ভিত্তি। প্রবাসীদের কল্যাণ ও সুরক্ষায় বাংলাদেশ সরকার ইতোমধ্যে বেশ কিছু আইন প্রণয়ন করেছে। নীতিমালাও গ্রহণ করেছে। বৈদেশিক কর্মসংস্থান ও অভিবাসী আইন ২০১৬, প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান নীতি-২০১৬ তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য। এই নীতির অনুচ্ছেদ ১.৫-এ বলা হয়েছে, ‘প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান নীতি-২০১৬ গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের সংবিধানের অনুচ্ছেদ ১৯ (সুযোগের সমতা), ২০ (অধিকার ও কর্তব্যরূপে কর্ম) ও ৪০ (পেশা ও বৃত্তির স্বাধীনতা)’-এর আলোকে প্রণীত হয়েছে। সংবিধানের এই বিধানাবলি অনুযায়ী মানবসম্পদ উন্নয়ন, নারী-পুরুষ নির্বিশেষে সকল নাগরিকের জন্য সমান সুযোগ ও পেশা নির্বাচনের স্বাধীনতা নিশ্চিতকরণ এবং যোগ্যতা অনুসারে কর্মসংস্থার সৃষ্টিতে সহায়তা প্রদান রাষ্ট্রের দায়িত্ব।

২০০১ সালে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় গঠন করা হয়। যার লক্ষ্য হচ্ছে প্রবাসী কর্মীদের কল্যাণ নিশ্চিত করা। বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় গঠন করা হয়। যার লক্ষ্য হচ্ছে প্রবাসী কর্মীদের কল্যাণ নিশ্চিত করা এবং বৈদেশিক কর্মসংস্থানের সম্প্রসারণ, রেমিট্যান্সের প্রবাহ বৃদ্ধি এবং দেশের সব অঞ্চল থেকে কর্মীদের বিদেশে যাওয়ার সুযোগ সৃষ্টির মাধ্যমে সকল অভিবাসী কর্মীর কল্যাণ নিশ্চিত করা।

নোটিশে বলা হয়, সম্প্রতি প্রকাশিত সংবাদে দেখা যায়, বাংলাদেশ থেকে মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশে যেতে বিমান ভাড়া অস্বাভাবিক বৃদ্ধি পেয়েছে। একটি সংবাদে দেখা যাচ্ছে যে, বিমান ভাড়া বেড়েছে ৪ গুণ। ঢাকা থেকে দুবাইয়ের পূর্বের বিমান ভাড়া ছিল ৩০ হাজার টাকা। এখন তা ৯০ হাজার টাকা। ঢাকা থেকে সউদী আরব রুটের ভাড়া ৪৫ হাজার টাকার টিকিট এখন ১ লাখ টাকায়ও পাওয়া যাচ্ছে না। বাংলাদেশ বিমানে ভ্রমণকারী যাত্রীদের করা ভিডিওচিত্র সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়েছে। যাতে দেখা যায়, টিকিট সঙ্কট থাকা সত্তে¡ও বিভিন্ন ফ্লাইটে বিপুল সংখ্যক আসন ফাঁকা রয়েছে। এছাড়াও বিভিন্ন সময়ে সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদে জানা যায় টিকিট সঙ্কটের কারণে বাংলাদেশ বিমান ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছে। টিকিট কারসাজির মাধ্যমে উচ্চ মূল্যের টিকিটের কারণে একদিকে প্রবাসী শ্রমিকরা তাদের কর্মস্থলে যেতে পারছেন না, অপর দিকে বাংলাদেশের রাষ্ট্রায়ত্ত বিমান সংস্থা ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছে।

দেশের জিডিপির বড় অংশ আসে প্রবাসী আয় থেকে। অথচ শ্রমিকেরা নানা কারণে বঞ্চনার শিকার হচ্ছে। যার সর্বশেষ দৃষ্টান্ত হচ্ছে টিকিটের উচ্চ মূল্য। এর ফলে অনেক শ্রমিক তাদের কর্মস্থলে যেতে পারছেন না। দেশ বঞ্চিত হচ্ছে বৈদেশিক মুদ্রা থেকে। বিষয়টি নিয়ে প্রবাসীদের মধ্যে চরম অসন্তোষ বিরাজমান। আন্তর্জাতিক অভিবাসী দিবস ২০২১ উপলক্ষে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বিদেশের শ্রমবাজার নিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, ‘চিল্লাতে চিল্লাতে, চিঠি দিতে দিতে এ মুহূর্ত পর্যন্ত আমি অপারগ।’ বর্তমান অরাজক পরিস্থিতি বাংলাদেশ সরকারের গৃহীত পদক্ষেপ ও প্রবাসীদের কল্যাণ ও সুরক্ষায় গৃহীত মূলনীতির সঙ্গে সাংঘর্ষিক। যার নেতিবাচক প্রভাব বাংলাদেশের অর্থনীতির ওপর অবশ্যম্ভাবী।

এমতাবস্থায় বিমানের ভাড়া প্রবাস গমনেচ্ছুদের হাতের নাগালের রাখার জন্য বিবাদীদের যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণের অনুরোধ করা হয়েছে। উল্লেখিত অনিয়ম, দুর্নীতি এবং অস্বাভাবিক বিমান ভাড়ার সাথে জড়িত ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানসমূহের বিরুদ্ধে কেন যথার্থ ব্যবস্থা নেয়া হবে না- তা নোটিশপ্রাপ্তির ৭ দিনের মধ্যে জানানোর অনুরোধ জানানো হয়েছে। অন্যথায় সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের হুঁশিয়ারি দেয়া হয় নোটিশে। এতে বেসামরিক বিমান ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের সচিব, বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স, বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষসহ সংশ্লিষ্টদের বিবাদী করা হয়।



 

Show all comments
  • jack ali ২৯ ডিসেম্বর, ২০২১, ৫:০৯ পিএম says : 0
    We liberated our for what????????????? Criminals are ruling our sacred mother land as such they have destroyed everythings.
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ