Inqilab Logo

মঙ্গলবার, ২৪ মে ২০২২, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২২ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

বর্ষবরণে সৈকতে পর্যটকের ভিড়

ইজারাদারদের দৌরাত্ম্যে এখনো চলছে পর্যটক হয়রানি

কক্সবাজার ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ২ জানুয়ারি, ২০২২, ১২:০৪ এএম

২০২২ সালের ১ম দিনে কক্সবাজার সৈকত ছিল পর্যটকে ভরপুর। পুরাতন বছরের সব গøানি মুছে দিয়ে নতুন বছর বয়ে আনুক শান্তি সমৃদ্ধি ও অগ্রগতি। এ প্রত্যাশায় কক্সবাজার সৈকতে ইংরেজি নতুন বর্ষ বরণে হাজারো পর্যটক ভিড় করেছেন।

গতকাল শনিবার পহেলা জানুয়ারি ২০২২ সাল সৈকতের বিভিন্ন পয়েন্টে দেখা গেছে হাজারো পর্যটক নতুন বর্ষ বরণের আনন্দে মেতে উঠেছে। বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার পর্যটকেরা নতুন বর্ষ বরণের আনন্দ উচ্ছ্বাসে মেতে উঠে সৈকতের বিস্তীর্ণ এলাকায়। এ সময় দেখা গেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর বিশেষ সতর্কতা ও নজরদারী। হোটেল- মোটেল জোনে হোটেল মালিক ও পর্যটন সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ীরা ছিলেন সতর্ক অবস্থানে।

সম্প্রতি হোটেল-মোটেল জোনে এক পর্যটক গৃহবধূ ধর্ষণের বিষয়ে কক্সবাজারের পর্যটন নিয়ে নেতিবাচক প্রচারণা হয়ে আসছে কয়েদিন থেকে। তবে ভ্রমণপিয়াসীদের মধ্যে এর নেতিবাচক প্রচারণা তেমন একটা প্রভাব ফেলতে পেরেছে বলে মনে হয়নি। এদিকে এই নেতিবাচক প্রচারণার পরিবর্তে ইতিবাচক প্রচারণার জন্য জেলা ও পুলিশ প্রশাসন হোটেল-মোটেল জোন এবং সৈকত এলাকায় পর্যটকদের নিরাপত্তায় বেশকিছু উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন।
অতীতে দেখা গেছে, পর্যটন মৌসুম শুরু হওয়ার প্রাক্কালে কক্সবাজার জেলা পুলিশ প্রশাসন সংবাদকর্মীদের ব্রিফিং করে জানাতেন পর্যটন এলাকার ছোটখাটো বিষয় গুলো যেন হাইলাইটস করা না হয়। যাতে করে পর্যটন খাতে কোনো ধরনের নেতিবাচক প্রভাব না পড়ে। কিন্তু সম্প্রতি জেলা ও পুলিশ প্রশাসন এত বেশি রাজনীতিকরণ হয়েছে যাতে করে রাজনৈতিক চিন্তাচেতনা ছেড়ে সংবাদমাধ্যমের সাথে জেলা ও পুলিশ প্রশাসনের তেমন একটা সুসম্পর্ক নেই বললেই চলে।

এছাড়াও বিচ ম্যানেজমেন্ট কমিটির মাধ্যমে সৈকতে ছাতা চেয়ার বরাদ্দ দেয়া থেকে শুরু করে সৈকত এর বিভিন্ন বিনোদন কেন্দ্র ইজারা দেয়াসহ সব ক্ষেত্রে দলীয় বিবেচনায় প্রাধান্য দেয়া হয়েছে বলে জানা গেছে। ভুক্তভোগীদের অভিযোগের প্রেক্ষিতে জানা গেছে ইনানী ও হিমছড়ির বিনোদন কেন্দ্র ইজারাদাররা দলীয় বিবেচনায় ওই স্থানগুলোর ইযারা পেয়েছেন। যার কারণে সেখানে ইচ্ছেমতো গাড়ি ভাড়াসহ বিভিন্ন চাঁদা আদায় করছেন তারা। এই বিষয়গুলোতে পর্যটকরা বিরক্তি বোধ করছেন বলে ভুক্তভোগী কয়েকজন পর্যটক এই প্রতিবেদককে জানিয়েছেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: কক্সবাজার


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ