Inqilab Logo

সোমবার, ২৩ মে ২০২২, ০৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২১ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

চতুর্থবারের মতো লোহিত সাগরে আমিরাতের জাহাজ আটকাল হুথি বিদ্রোহীরা

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৩ জানুয়ারি, ২০২২, ৬:১৯ পিএম

লোহিত সাগর উপকূলে আমিরাতের একটি জাহাজ আটক করেছে হুথি বিদ্রোহীরা। তাদের অভিযোগ- এই জাহাজটি দিয়ে তাদের শত্রুপক্ষ সউদী নেতৃত্বাধীন সামরিক জোটের জন্য অস্ত্র ও রসদপত্র নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল। এই নিয়ে চতুর্থবারের মতো লোহিত সাগরে জাহাজ আটকাল হুথি বিদ্রোহীরা। সর্বপ্রথম ২০১৬ সালে সুইফ-ওয়ান নামের একটি জাহাজ আটকেছিল তারা এবং সেটিও ছিল আমিরাতের।

অন্যদিকে, সউদী সরকার এ ঘটনার নিন্দা জানিয়ে এক বিবৃতিতে বলেছে, হুথি বিদ্রোহীরা জাহাজটি ডাকাতি করেছে।

আমিরাতের যে জাহাজটি আটক করেছে হুথিরা, তার নাম রাওয়াবি। সোমবার এক বিবৃতিতে এই আটকের সংবাদ প্রথম নিশ্চিত করে যুক্তরাজ্যের সামরিক বাহিনীর সামুদ্রিক বাণিজ্য দফতর ইউনাইটেড কিংডম মেরিটাইম ট্রেড অপারেশন্স। তবে মেরিটাইম ট্রেড অপারেশন্সের বিবৃতিতে জাহাজটির নাম এবং কারা এটি আটক করেছে তা উল্লেখ করা হয়নি; কেবল বলা হয়েছে, রোববার মধ্যরাতের দিকে লোহিত সাগরের বাণিজ্যিক জলপথে একটি জাহাজ আটক হয়েছে।

সামুদ্রিক বাণিজ্য ও জাহাজ চলাচল বিষয়ক ওয়েবসাইট মেরিনট্রাফিক ডট কম এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, জাহাজটি আটকের পর কয়েক ঘণ্টা স্যাটেলাইটে এটির কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি।

তারপর সোমবার এক টুইটবার্তায় হুথি বিদ্রোহীগোষ্ঠীর মুখপাত্র ইয়াহিয়া সারি জানান, লোহিত সাগরে ইয়েমেনের জলসীমা ব্যবহার করে জাহাজটি সউদী নেতৃত্বাধীন জোটের জন্য অস্ত্র ও সামরিক উপকরণ নিয়ে যাচ্ছিল, এ কারণেই আটক করা হয়েছে জাহাজটি।

এদিকে পাল্টা এক বিবৃতিতে সউদী নেতৃত্বাধীন জোটের পক্ষ থেকে বলা হয়, জাহাজটিতে কোনো সামরিক উপকরণ নয়, বরং ছিল চিকিৎসা সামগ্রী। লোহিত সাগরের দ্বীপ সোকোত্রায় সউদী ফিল্ড হাসপাতালের জন্য এই চিকিৎসা সামগ্রীগুলো পাঠানো হচ্ছিল।

সউদী সেনাবাহিনীর ব্রিগেডিয়ার জেনারেল তুর্কি আল মালকি বিবৃতিতে হুথি বিদ্রোহীগোষ্ঠীকে হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, ‘অবশ্যই এবং অবিলম্বে এই জাহাজটি ছেড়ে দিতে হবে হুথি বিদ্রোহীদের। যদি তারা তা না করে, সেক্ষেত্রে শক্তিপ্রয়োগসহ প্রয়োজনীয় যেসব পদক্ষেপ নেওয়া প্রয়োজন- সবই নেবে সামরিক জোট।’ সূত্র: আলজাজিরা



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আরব আমিরাত


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ