Inqilab Logo

মঙ্গলবার, ২৪ মে ২০২২, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২২ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

ভারতে মুসলিম নারীদের হেনস্তায় দুইজন গ্রেফতার

‘বুল্লি বাই’ অ্যাপ বন্ধ

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৫ জানুয়ারি, ২০২২, ১২:০০ এএম

ভারতে একটি অ্যাপের মাধ্যমে ১০০ জনের বেশি মুসলমান নারীর ছবি আপলোড দিয়ে তাদের ‘বিক্রি’ করা হচ্ছে, এমন বিজ্ঞাপন দেয়ার পর দেশটির দুইটি রাজ্যের পুলিশ ওই অ্যাপের নির্মাতাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে। এ বার সেই মামলায় বেঙ্গালুরু থেকে এক ইঞ্জিনিয়ারিং শিক্ষার্থীকে গ্রেফতার করেছে মুম্বাই পুলিশ। ঘটনার সঙ্গে যুক্ত থাকার অভিযোগে এক মহিলাকেও আটক করা হয়েছে বলে খবর।

অ্যাপটির ডেভেলপার এবং যিনি এর টুইটার হ্যান্ডেলে ছবি ও বিষয়বস্তু শেয়ারের দায়িত্বে রয়েছেন, তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ করা হয়েছে মামলায়। বুল্লি বাই নামের এই অ্যাপটি একটি ওপেন সোর্স অ্যাপ, যা গিটহাব নামে একটি ওয়েব প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে অপারেট করত। মামলা হওয়ার পর গিটহাব কর্তৃপক্ষ এর কন্টেন্ট নামিয়ে দিয়েছে। গত কয়েক মাসের মধ্যে ভারতে মুসলমান নারীদের অনলাইনে ‘নিলাম’ বা ‘বিক্রি’র মত হয়রানিমূলক কর্মকাণ্ডের এটি দ্বিতীয় ঘটনা।

‘সুল্লি ডিলস’-এর পর এ বার ‘বুল্লি বাই’। উদ্দেশ্য একই, মোদি সরকারের সমালোচনা করেন এমন মুসলিম নারীদের ‘নিলামে’ তোলা! বছরের প্রথম দিন এমনই আপত্তিকর অ্যাপ ‘বুল্লি বাই’ নিয়ে সরব হন বহু মহিলা এবং বিভিন্ন সংস্থা। অভিযোগ, মূলত মুসলিম ধর্মাবলম্বী মহিলাদের, যারা বিভিন্ন সময় মোদি সরকারের সমালোচনা করেন, তাদের আপত্তিকর ভাবে ‘নিলামে’ তোলা হয়েছে। তাতে রয়েছে দেশের বিভিন্ন মহিলা সাংবাদিকের নাম। তেমনই সামাজিক ক্ষেত্রে কাজ করা আইনজীবী ও অন্য মুসলিম মহিলাদের নিয়েও আপত্তিকর ছবি ও ভাষা ব্যবহার হয়েছে সেখানে।

ঠিক একই ঘটনা ঘটেছিল আগেও। দেখা যায়, ‘সুল্লি ডিলস’ যে প্ল্যাটফর্ম থেকে অ্যাপ তৈরি করে তা প্রচার করেছিল, এ ক্ষেত্রেও একই ‘গিটহাব’ প্ল্যাটফর্ম করা হয়েছে। ‘সুল্লি ডিলস’-এর সময় পুলিশে অভিযোগ করা হয়েছিল। কিন্তু এখনও সেই মামলায় একজনকেও গ্রেফতার করতে পারেনি তারা। শিবসেনা সাংসদ প্রিয়ঙ্কা চতুর্বেদী মহারাষ্ট্রের সরকারকে এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার আবেদন জানিয়েছিলেন। প্রতিবাদ জানিয়েছেন কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধীও। অভিযোগ দায়ের হয়। তার পরই তদন্তে নেমে বেঙ্গালুরু থেকে এক ইঞ্জিনিয়ারিং শিক্ষার্থীকে গ্রেফতার করে মুম্বাই পুলিশ। ধৃতের নাম বিশাল ঝা। এই বিষয়ে তার সঙ্গে সম্পর্ক আছে, এমন সন্দেহে আরও এক মহিলাকেও আটক করেছে পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে খবর, সংশ্লিষ্ট অ্যাপটিতে সুকৌশলে গুরমুখী ভাষা ব্যবহার করা হয়েছিল। যাতে নারীদের নিয়ে আপত্তিকর ভাষা ও ছবি ব্যবহারের দায় গিয়ে চাপে খলিস্তানী গোষ্ঠীর উপর। অভিযোগ পাওয়ার পর তড়িঘড়ি অ্যাপটিকে নামিয়ে দেওয়া হয়েছে। কেন্দ্রীয় তথ্য ও প্রযুক্তি মন্ত্রী অশ্বিনী বৈষ্ণো এই প্রসঙ্গে জানিয়েছেন, অ্যাপ নির্মাতাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। মুম্বাই পুলিশ ঘটনার তদন্তে নেমে এক জনকে গ্রেফতার করে ফেলেছে। দিল্লি পুলিশে একই অভিযোগ দায়ের হলেও, তারা বিষয়টি খতিয়ে দেখছে বলে জানা গিয়েছে। দিল্লি পুলিশ সরাসরি কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নিয়ন্ত্রণে কাজ করে।

প্রসঙ্গত, গত জুলাই মাসে, ‘সুল্লি ডিলস’ নামে একটি অ্যাপ এবং ওয়েবসাইট ৮০জনেরও বেশি মুসলমান নারীর প্রোফাইল তৈরি করে। তাতে মূলত অনলাইনে ওই নারীদের নিজেদের আপলোড করা ছবি ব্যবহার করা হয় এবং বলা হয় তারা ‘ডিলস অব দ্য ডে’। ব্যবসায়িক পরিভাষায় কোন একটি নির্দিষ্ট দিনে নির্ধারিত দামে সেরা অফারকে ‘ডিলস অব দ্য ডে’ বলে। বুল্লি বাই কিংবা সুল্লি ডিলস কোন ক্ষেত্রেই, সত্যিকার অর্থে বেচাকেনা ছিল না, কিন্তু এর উদ্দেশ্য ছিল মুসলমান মহিলাদের ব্যক্তিগত ছবি শেয়ার করে তাদের হেয় করা এবং অপমান করা। সুল্লি শব্দটি একটি মানহানিকর হিন্দি সø্যাং যা ভারতের ডানপন্থী হিন্দু সংগঠনগুলো মুসলমান নারীদের ট্রল করার জন্য ব্যবহার করে। বুল্লি শব্দের অর্থ নিন্দনীয়। সূত্র : বিবিসি, হিন্দুস্থান টাইমস।



 

Show all comments
  • Mostafa kamal ৫ জানুয়ারি, ২০২২, ১১:৫২ এএম says : 0
    We are taking care of our hindu neighbours while they are doing such thing with our sisters. What kind of justice is this ?
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ভারত


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ