Inqilab Logo

বৃহস্পতিবার, ০৭ জুলাই ২০২২, ২৩ আষাঢ় ১৪২৯, ০৭ যিলহজ ১৪৪৩ হিজরী

হিমেল হাওয়ায় কাঁপছে রাজশাহীর মানুষ

রাজশাহী ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ৫ জানুয়ারি, ২০২২, ১১:৫৭ এএম

উত্তরের হিমালয় ছুঁয়ে আসা হিমেল হাওয়ায় কাঁপছে রাজশাহীর মানুষ। শুরু হয়েছে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ। কয়েকদিন ধরে তাপমাত্রা কমতে থাকায় বুধবার ভোর থেকে শৈত্যপ্রবাহ শুরু হয়। এতে বাড়ছে শীতের তীব্রতা। চারিদিক কুয়াশায় ঢাকা। বইছে হিমেল হাওয়া। সূর্যের দেখা নেই।

বুধবার রাজশাহীতে ভোরে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় ৯ দশমিক ৮ ডিগ্রী সেলসিয়াস। এর আগের দিন সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১০ দশমিক ৫ ডিগ্রী সেলসিয়াস।

তাপমাত্রা কমে যাওয়ায় বিপাকে পড়েছে মানুষ। বিত্তবানদের স্যুট টাই জ্যাকেট সোয়েটার বাহারি পোষাক থাকলেও দরিদ্র মানুষের শীত নিবারনের চাদর কম্বল টুকুও নেই। খড়কুঠো জালিয়ে উত্তাপ নেয়ার চেষ্টা চলে সকাল সন্ধ্যায়। গাঢ় কুয়াশা আর শীতের কারনে যানবাহনগুলোকে চলতে হটেচ্ছ হেডলাইট জ্বালিয়ে। শ্রমজীবী মানুষ বৈরী আবহাওয়া উপেক্ষা করে কাঁপতে কাঁপতে ছুটছে কাজের সন্ধানে। নগরীর শ্রম বিক্রির স্থান তালাইমারী মোড়, ভদ্রারমোড়, আর গোরহাঙ্গা এলাকায় কাজের আশায় সকাল থেকেই ভীড় করছে। জুবথুবু হয়ে বসে থাকছে কাজের আসায়। শীতের কারনে থমকে গেছে কাজ কর্ম। ফলে সবার ভাগ্যেই কাজ জুটছেনা। আর কাজ না পাওয়া মানেই অনাহার অর্ধাহার। প্রচন্ড শীতকে সাথে নিয়েই কাকডাকা ভোরে কৃষক নামছে শাকস্বব্জির ক্ষেতে। সেখান থেকে ফসল তুলছে।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের পূর্বাভাস বলছে, আগামী কয়েক দিন এই শৈত্যপ্রবাহ আর কুয়াশা থাকবে। ফলে শীতের অনুভূতি বেড়েছে। দৃষ্টিসীমায় দীর্ঘ সময় ছিল কুয়াশা। বিশেষ করে নদীতীরবর্তী এলাকাগুলোতে কুয়াশার পরিমাণ ছিল বেশি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: তাপমাত্রা

২ ফেব্রুয়ারি, ২০২২
২৬ জানুয়ারি, ২০২২

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ