Inqilab Logo

মঙ্গলবার, ২৪ মে ২০২২, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২২ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

মোদির সমালোচনা করে রোষের মুখে জাভেদ আখতার

‘বুল্লি বাই’ অ্যাপ : মাস্টারমাইন্ড ১৮ বছরের তরুণী

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৬ জানুয়ারি, ২০২২, ১২:০০ এএম

‘বুল্লি বাই’ অ্যাপের মাস্টারমাইন্ড সন্দেহে মঙ্গলবার ১৮ বছরের এক উত্তরাখন্ডের এক তরুণীকে গ্রেফতার করেছে মুম্বাই পুলিশ। শ্বেতা সিং নামের ওই তরুণী ছাড়াও বিশাল কুমার ঝা নামের ২১ বছরের এক ইঞ্জিনিয়ারিং শিক্ষার্থীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এদিকে, এই অ্যাপ নিয়ে ভারতে তোলপাড় শুরু হলেও নীরব রয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। এ বিষয়ে তার সমালোচনা করে রোষের মুখে পড়লেন প্রখ্যাত কবি গীতিকার জাভেদ আখতার।

এর আগেও নানা বিষয়ে সরকারের সমালোচনা করে বিতর্কে জড়িয়েছেন জাভেদ আখতার ও তার পরিবার। এবারেও তার ব্যাতিক্রম হয়নি। সরকারি বিরোধী অবস্থানের জন্য জাভেদ আখতারের নাম বারবার উঠে আসে শীর্ষে। বর্তমানে ‘বুল্লি বাই’ ইস্যুতে তোলপাড় গোটা ভারত। এই অ্যাপে মোদির সমালাচনা করা মুসলিম নারীদের নিলামে তোলা হয়। ব্যবহার করা হয় তাদের ছবি। আর এই নিয়েই প্রতিবাদ জানিয়েছেন জাভেদ আখতার। শুধু তাই নয় সোশ্যাল মিডিয়ায় হওয়া ট্রোলিংয়ের বিরুদ্ধেও কড়া জবাব দিয়েছেন তিনি। এবং এর সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীকেও নিশানা করেছেন। এই বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী কেন কড়া পদক্ষেপ নিচ্ছেন না তা নিয়ে সোচ্চার হয়েছেন জাভেদ আখতার। সঙ্গে গত মাসে হরিদ্বারের ধর্ম সংসদ প্রসঙ্গও টেনে আনেন তিনি। সেই সম্মেলনে মুসলিম বিরোধী মন্তব্য পেশ করেছিলেন সাধু-সন্তরা। সেই প্রসঙ্গ টেনে এনে আরও বেশি রোষের মুখে পড়েন জাভেদ আখতার।

এবার সমস্যার সৃষ্টি হয় এক হিন্দুত্ববাদীর করা টুইটকে ঘিরে। সেই টুইটে লেখা ছিল জাভেদ আখতারের দাদা ফজলে হক ১৮৫৫ সালে হিন্দুদের হনুমান মন্দির ভেঙে ফেলার নির্দেশ জারি করেছিলেন। আর এই টুইট জ্বলন্ত আগুনের মত চারিদিকে ছড়িয়ে পড়েছে। এই টুইটের প্রেক্ষিতে শাবানা আজমি সোমবার জবাব দেন। লেখেন, ‘ফজলে হক একজন স্বাধীনতা সংগ্রামী, তার কালাপানির সাজা হয়েছিল এবং তিনি আন্দামানেই মৃত্যুবরণ করেন। সেখানে একজন শহীদ হিসাবে তার সমাধিও রয়েছে।’ শুধু তাই নয় এর পাশাপাশি ওই ব্যাক্তিকে উদ্দেশ্য করে তিনি আরও লেখেন, এর থেকেও বেশি তথ্য জানতে হলে ‘বাগি হিন্দুস্থান’ পড়তে পারেন।

শাবানার পাশাপাশি প্রতিবাদ করেছেন জাভেদ আখতারও। পূর্বপুরুষের নামে এমন অভিযোগ তিনি একেবারে নস্যাৎ করে দিয়ে লিখেছেন ‘আমি যখন এমন এক বিষয়ে গলা চড়ালাম যেখানে মুসলিম মহিলাদের নিলামে তোলা হয় টাকার বিনিময়ে, আর যারা তা করেন ধর্মান্ধ হয়ে তারাই এমন অভিযোগ আসার পরেই আমার পূর্বপুরুষদের সম্পর্কে খারাপ উক্তি ও তথ্য ছড়াচ্ছে। এমন একজনকে নিয়ে বলা হচ্ছে যিনি একজন স্বাধীনতা সংগ্রামী ছিলেন এবং যিনি কালাপানির সাজা কাটিয়েছিলেন ও সেখানেই মৃত্যুবরণ করেন। এমন এক মানুষকে নিয়ে যারা ভুল তথ্য ছড়াচ্ছেন তাদের কি বলা উচিত?’

ইতিমধ্যেই সরকারের তরফে ওই অ্যাপ ব্লক করা হয়েছে। বুধবার এই মামলায় গ্রেফতার হয়েছে আরও একজন, যার পরিচয় অবশ্য গোপন রাখা হয়েছে। তবুও যেন জল্পনা থামছে না। তা মুহুর্মুহু বাড়ছে। শবানা আজমি ও জাভেদ আখতারের পাশাপাশি এই ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছেন ফারহান আখতার কন্যা জোয়া আখতার ছাড়াও বলিউডের বহু ব্যাক্তিত্বরা।

এদিকে, গ্রেফতার মেয়েটিকে ক্ষমা করে দেয়ার আবেদন জানিয়েছেন জাভেদ আখতার। তিনি টুইট করেছেন, ‘বুল্লি বাই’ যদি সত্যিই ১৮ বছরের মেয়েটির মাথা থেকে বেরিয়ে থাকে, তবে তাকে ক্ষমা করে দিতে সবাইকে আবেদন করব। ওর প্রতি সহানুভূতিশীল হয়ে অ্যাপে ছবি ওঠা নারী বা তাদের কয়েকজন ওর সঙ্গে দেখা করে স্নেহশীল বড়দের মতো যেন ওকে বোঝান, সে যা-ই করেছে, সেটা ভুল। মেয়েটি সম্প্রতি কোভিড, ক্যান্সারে বাবা-মা, দুজনকেই হারিয়েছে বলে উল্লেখ করেছেন জাভেদ।

জানা গেছে, গত বছর প্রথম তার মা মারা যান ক্যান্সারে, কিছুদিন বাদে কোভিড-১৯ এ চলে যান বাবাও। মেয়েটির বড় বোন কমার্স স্নাতক, ছোট বোন, ভাই স্কুলে পড়ে। সে ইঞ্জিনিয়ারিং এনট্রান্সের প্রস্তুতি নিচ্ছিল। পাশাপাশি, ভুয়া টুইটার হ্যান্ডল খুলে সে ঘৃণা-ভাষণ, অশালীন ছবি পোস্ট করে যাচ্ছিল। সূত্র : টিওআই, দ্য ওয়াল, ট্রিবিউন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ভারত


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ