Inqilab Logo

রোববার, ২৯ মে ২০২২, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২৭ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

শিমুলিয়া-মাঝিকান্দি নৌরুটে ডুবচরে ফেরি আটকা, ১১ ঘন্টা পর উদ্ধার

লৌহজং (মুন্সীগঞ্জ) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ৬ জানুয়ারি, ২০২২, ৬:৩৯ পিএম

দক্ষিণবঙ্গের অন্যতম প্রবেশপথ হিসেবে পরিচিত মুন্সীগঞ্জের শিমুলিয়া ও শরিয়তপুরের মাঝিকান্দি ঘাট। ২১ জেলার কোটি যাত্রী পারাপার হয় এ নৌপথ দিয়ে। যেমন চাহিদা তেমনি দুর্ভোগে পড়তে হয় যাত্রীদের। গতকাল বুধবার রাত ১১টার দিকে শিমুলিয়া ৩ নম্বর ফেরিঘাট থেকে ১৭টি ছোট গাড়ি নিয়ে পাড়ি দেয় ফেরি ফরিদপুর। এরপর রাত সাড়ে ১১টার দিকে মাঝ পদ্মা পার হবার পরে মাঝিরকান্দি ঘাটে দিকে যাবার পথে সরু চ্যানেলে প্রবেশের মুখে ডুবচরে আটকা পড়ে ফেরিটি। এতে দুর্ভোগে পড়ে শতশত যাত্রী। কনকানে শীতের রাতে ঘন্টার পর ঘন্টা অপেক্ষা করতে হয় তাদের। ঘটনার ১ ঘন্টা পর ঘটনাস্থলে যান উদ্ধারকারী জাহাজ। টানা ১১ ঘন্টা উদ্ধার তৎপরতা চালিয়েও বৃহস্পতিবার সকাল ১০টার দিকে উদ্ধার করতে সক্ষম হয়।

প্রত্যক্ষদর্শী কামরুজ্জামান বাঁধন জানান, শিমুলিয়া ঘাট থেকে রাত ১১টার দিকে ফেরিটি ছাড়া হয়। এরপর রাত সাড়ে ১১টার দিকে পদ্মা নদী পাড় হবার পরে চ্যানেল দিয়ে যাওয়ার সময় নাব্যতা সংকটের কারণে ডুবচরে আটকে যায় ফেরিটি। অনেক চেষ্টার পর ১১ ঘন্টা পর উদ্ধার করা হয়। ১১ ঘন্টা শীতের রাতে আমাদের এ ফেরিতে থাকতে হয়েছে। শুধুমাত্র পরিবহনের যাত্রীদের ট্রলার দিয়ে এখান থেকে নিয়ে যায়। ১৭টি গাড়ির যাত্রী ও সাধারণ যাত্রীরা এ দুর্ভোগ পোহাতে হয়েছে।

বিআইডব্লিউটিসি শিমুলিয়া ঘাটের এজিএম মো. শফিকুল ইসলাম জানান, গভীর রাতে ফেরি ফরিদপুর ১৭টি ছোট যানবাহন ও প্রায় শতাধিক যাত্রী নিয়ে ডুবচরে আটকা পড়ে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে উদ্ধারকৃত জাহাজ পাঠিয়েছি। টানা ১১ ঘন্টা উদ্ধার তৎপরতা চালিয়ে অবশেষে ফেরিটি উদ্ধার করতে সক্ষম হই।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মুন্সীগঞ্জ


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ