Inqilab Logo

বুধবার, ২৫ মে ২০২২, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২৩ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

দুই বাঙালি নারী চিকিৎসকের বিয়ের পরিকল্পনা

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৭ জানুয়ারি, ২০২২, ১১:২১ এএম

একজন আরেক একজনের সঙ্গে সারা জীবন কাটাতে চান। সুরভি মনোরোগ বিশেষজ্ঞ। যেদিন থেকে তিনি বুঝতে পারেন যে পুরুষরা তাঁকে আকর্ষণ করেনা। সমলিঙ্গের মেয়েরা তার কাছে আকর্ষনিয়া, তিনি এই বিষয়ে পড়াশোনা শুরু করেন।

ভারতের গোয়ার সমুদ্রসৈকতে আংটি বদল সেরে ফেললেন দুই বাঙালি মহিলা চিকিৎসক। পারমিতা মুখোপাধ্যায় ও সুরভি মিত্রর এই বাগদান অনুষ্ঠানটি নিয়ে কোন রকম লুকোছাপার বিষয় রাখলেন না দুজনে। সংবাদ সংস্থাকে পারমিতা এবং সুরভি জানিয়েছেন, তারা জানেন কি করছেন, একে অপরকে ভালোবাসেন, এই ভালোবাসায় নেই মালিন্য। তাই, দুই পরিবারের সম্মতি নিয়েই তারা বিয়ে করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

জিনিসটা অস্বাভাবিক কিনা তা জানার চেষ্টা করেন। পারমিতা মুখোপাধ্যায় জেনারেল প্র্যাকটিশনার। ২০১৩ সাল থেকে তিনি বুঝতে পারেন, কোন পুরুষ নয়, বরং পুরুষালি চেহারার মেয়েরা তাকে টানছে বেশি, তিনি অকপট হন প্রথমে বাবার কাছে। তারপর মায়ের কাছে।

মা শুনে হকচকিয়ে গেলেও, বাবা বিষয়টি বুঝতে পারেন। মাকে বুঝিয়ে বলেন। এরপর মাও মেনে নেন। কর্মসূত্রে সুরভি-পারমিতার দেখা হয়। লাভ এট ফার্স্ট সাইট। দুজনেই দুজনের প্রেমে পড়েন। ২০১৮ সালে সমলিঙ্গে বিয়ের ধারা টি সংবিধানে অনুমোদিত হওয়ার পর এবং ৩৭৭ ধারা অবলুপ্তির পর তারা বিয়ের সিদ্ধান্ত নেন। দুই মহিলা চিকিৎসক আংটি বদল করে বাগদান সেরে নিলেন গোয়ায়। এরপর ঘটা করে তারা বিয়ে করবেন। আজকাল সমলিঙ্গের বিয়েতে যেমন সংগীত, হলদি, মেহেন্দি অনুষ্ঠান হয়, তেমন সব হবে। দুই মহিলা চিকিৎসক সামাজিক ট্যাবু ভেঙে দৃষ্টান্ত স্থাপন করতে চান।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বিয়ে

১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২২

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ