Inqilab Logo

সোমবার, ২৩ মে ২০২২, ০৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২১ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

কচুয়ায় হেভিওয়েট ৩ নেতার ইউনিয়নে নৌকা পরাজিত

চাঁদপুর থেকে স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৭ জানুয়ারি, ২০২২, ৬:১০ পিএম

চাঁদপুরের কচুয়া উপজেলার ১২টি ইউনিয়নে দু’-একটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা ছাড়াই ইউপি নির্বাচন বুধবার অনুষ্ঠিত হয়। এর মধ্যে সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বর্তমান সাংসদ ড. মহীউদ্দীন খান আলমগীরের এলাকা কাদলা ইউনিয়ন, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক সেলিম মাহমুদের পালাখাল মডেল ইউনিয়ন ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শাহজাহান শিশিরের আশ্রাফপুর ইউনিয়নসহ মোট ৭টি ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের প্রার্থীরা পরাজিত হয়েছেন।

এ ঘটনায় উপজেলাজুড়ে আওয়ামী রাজনৈতিক মহলে বেশ সমালোচনা চলছে। নির্বাচনে দলীয় সিদ্ধান্তের বাইরে গিয়ে ১২টি ইউনিয়নেই বিদ্রোহী প্রার্থী স্বতন্ত্র হিসেবে দাঁড়ান আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতারা। এদের অনেককেই বহিষ্কার করে উপজেলা ও জেলা আওয়ামী লীগ।


উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা কাজী আবু বক্কর সিদ্দিক ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আইয়ুব আলী পাটওয়ারী ও সাধারণ সম্পাদক সোহরাব হোসেন চৌধুরী সোহাগসহ একাধিক নেতা জানান, কাদলা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পদে তিনজন জনপ্রতিনিধির মধ্যে মূল প্রতিদ্বন্দ্বিতা হয়। আওয়ামী লীগের প্রার্থী রফিকুল ইসলাম লালু (নৌকা), স্বতন্ত্র প্রার্থী নুর ই আলম রিহাত (আনারস) ও আব্দুল হাই (মোটর সাইকেল)। তন্মধ্যে বিদ্রোহী স্বতন্ত্র প্রার্থী নুর ই আলম রিহাত আনারস প্রতীকে বিপুল ভোটে জয়লাভ করেন।

পালাখাল মডেল ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ৪জন মূল প্রতিদ্বন্দ্বির মধ্যে আওয়ামী লীগের প্রার্থীর গাজী আহাদ (নৌকা), স্বতন্ত্র প্রার্থী হাবিব মজুমদার জয়, (ঘোড়া), ইমাম হোসেন (মোটর সাইকেল) ও মাসুদুর রহমান (আনারস)। তন্মধ্যে বিদ্রোহী স্বতন্ত্র প্রার্থী হাবিব মজুমদার জয় ঘোড়া প্রতীকে বিপুল ভোটে জয়লাভ করে।

আশ্রাফপুর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে দুই জন মূল প্রতিদ্বন্দ্বির মধ্যে আওয়ামী লীগের প্রার্থী ওমর ফারুক শামীম (নৌকা) ও স্বতন্ত্র প্রার্থী রেজাউল মাওলা হেলাল মুন্সি (ঘোড়া)। তন্মধ্যে বিদ্রোহী স্বতন্ত্র প্রার্থী রেজাউল মাওলা হেলাল মুন্সি বিপুল ভোটে জয়লাভ করে।

জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের সাবেক চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগ নেতা আলহাজ্ব গোলাম হোসেনের গোহট উত্তর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের প্রার্থী কবির হোসেন (নৌকা) ও বিদ্রোহী স্বতন্ত্র প্রার্থী আমিন উদ্দীন (আনারস) প্রতীকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। তন্মধ্যে আওয়ামী লীগের প্রার্থী কবির হোসেন বিপুল ভোটে নৌকা প্রতীকে জয়লাভ করেন।


উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আইয়ুব আলী পাটওয়ারীর ইউনিয়ন পশ্চিম সহদেব ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের প্রার্থী আলমগীর হেসেন (নৌকা) ও স্বতন্ত্র প্রার্থী আব্দুস সামাদ আজাদ (আনারস) প্রতীকে মূল প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে। তন্মধ্যে আওয়ামী লীগের প্রার্থী আলমগীর হোসেন নৌকা প্রতীকে জয়লাভ করেন।

সাধারণ সম্পাদক সোহরাব হোসেন সোহাগ চৌধুরীর গোহট দক্ষিণ ইউনিয়নের নৌকার প্রার্থী আমির হোসেন ও স্বতন্ত্র প্রার্থী আলাউদ্দিন (মোটর সাইকেল) প্রতীকে মূল প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। তন্মধ্যে আওয়ামী লীগের প্রার্থী আমির হোসেন নৌকা প্রতীকে বিপুল ভোটে জয়লাভ করেন।

তাছাড়া সাচার ইউনিয়নে স্বতন্ত্র বিদ্রোহী প্রার্থী মনির হোসেন (ঘোড়া) প্রতীক, পাথৈর ইউনিয়নে স্বতন্ত্র বিদ্রোহী প্রার্থী আলী আক্কাস মোল্লা (আনারস) প্রতীক, বিতারা ইউনিয়নে স্বতন্ত্র বিদ্রোহী প্রার্থী ইসহাক সিকদার (ঘোড়া) প্রতীক, কচুয়া উত্তর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের প্রার্থী আখতার হোসেন (নৌকা) প্রতীক, কচুয়া সদর দক্ষিণ ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী আরিফুজ্জামান আরিফ (চশমা) প্রতীক জয় লাভ করে।

কড়ইয়া ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের প্রার্থী আঃ সালাম সওদাগর (নৌকা) প্রতীকে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ইউপি নির্বাচন

১০ ফেব্রুয়ারি, ২০২২
১০ ফেব্রুয়ারি, ২০২২
৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২২

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ