Inqilab Logo

রোববার, ২৯ মে ২০২২, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২৭ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

বেনাপোলে স্বাস্থ্যঝুঁকি

বেনাপোল অফিস | প্রকাশের সময় : ৮ জানুয়ারি, ২০২২, ১২:০২ এএম

ওমিক্রন সংক্রমন ঠেকাতে বেনাপোল সীমান্তের ওপারে পেট্রাপোলে আইন প্রয়োগকারি সংস্থা ব্যাপক কর্মযজ্ঞ শুরু করলেও দৃশ্যমান কোন কর্মকান্ড নেই বেনাপোলে। ইমিগ্রেশনে প্রবেশের আগে ভারত ফেরত যাত্রীদের মাস্ক ব্যবহার শতভাগ নিশ্চিত করা গেলেও বন্দরে নেই তার ছিটেফোঁটা কোন কার্যক্রম। ভারত থেকে আসা পন্যবাহী ট্রাকের চালক ও সহকারিরা ভঙ্গ করছে স্বাস্থ্যবিধি। বন্দর এলাকায় অবাধ বিচরণ দাপিয়ে বেড়াচ্ছে ট্রাকের চালক ও সহকারীরা। বন্দরের বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে বন্দরের প্রধান সড়ক, অভ্যন্তরীণ সড়কসহ আশপাশের যত্রতত্র হরহামেশা মাস্ক ছাড়াই ঘুরে বেড়াচ্ছে ভারতীয় চালক এবং সহকারিরা। সেই সাথে পাল্লা দিচ্ছে বন্দরের শ্রমিকসহ বন্দর ব্যবহারকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের মাস্ক ব্যবহার না করার প্রবণতা। বন্দর অভ্যন্তরে প্রায় ৯৫ শতাংশ মানুষের মুখে নেই মাস্ক।

করোনাকালিন সময়ে ভারতীয় চালকদের নিয়ন্ত্রণে বন্দর কর্তৃপক্ষ বিভিন্ন ধরনের পদক্ষেপ গ্রহণ করেন। পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি হলে আগের অবস্থানে ফিরে গেছে চালক ও সহকারীরা।

দেশে ফেরার সময় রাস্তায় গাড়ি রেখে বিভিন্ন দোকান থেকে ইচ্ছেমত কেনাকাটাসহ ঘুরাঘুরি করছে। ভারতীয় ট্রাকচালকদের উদ্ধত কর্মকাণ্ডে নাখোশ বন্দর ব্যবহারকারী বিভিন্ন সংগঠন।

বেনাপোল সিএন্ডএফ এজেন্ট এসোসিয়েশনের সভাপতি মফিজুর রহমান সজন বলেন, প্রতিবেশি দেশ ওমিক্রন সংকমন রোধে সর্বোচ্চ সতর্কতা গ্রহণ করলেও বেনাপোল বন্দরে ভারতীয়দের অবাধ চলাচল আমাদের আতংকিত করছে।

বন্দরের পরিচালক মনিরুজ্জামান বলেন, বন্দরে যাতে ভারতীয় মাস্ক ছাড়া চলাচল করতে না পারে সে জন্য নির্দেশনা জারী করা হয়েছে। তবে খুব শীঘ্রই অভিযান পরিচালনা করে আইনের আওতায় আনা হবে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বেনাপোলে স্বাস্থ্যঝুঁকি

আরও পড়ুন