Inqilab Logo

শনিবার, ১৩ আগস্ট ২০২২, ২৯ শ্রাবণ ১৪২৯, ১৪ মুহাররম ১৪৪৪

গৃহবধূকে দলবদ্ধভাবে ধর্ষণ ও হোটেলগুলোতে দাম নৈরাজ্যের মাশুল দিচ্ছে কক্সবাজারের পর্যটন ব্যবসায়ীরা!

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১১ জানুয়ারি, ২০২২, ২:২৭ পিএম

হোটেলে গৃহবধূকে দলবদ্ধভাবে ধর্ষণ ও রেস্টুরেন্ট এবং আবাসিক হোটেলগুলোতে দাম নিয়ে নৈরাজ্যের চরম প্রভাব পড়েছে পর্যটন ব্যবসার ওপর। ভরা পর্যটন মৌসুমে বিশ্বের দীর্ঘতম সমুদ্র সৈকতে মিলছে না উল্লেখযোগ্য পর্যটকের দেখা। ফলে হতাশা বিরাজ করছে সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ীদের মাঝে। কক্সবাজার কলাতলী মেরিন ড্রাইভ হোটেল এন্ড রিসোর্ট মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মুকিম খান বলেন, প্রতি বছর এ সময়ে পর্যটন এলাকার প্রায় আবাসিক হোটেলে ৮০-৯০ ভাগের অধিক রুম বুকিং থাকে। কিন্তু বর্তমান সময়ে প্রায় হোটেলে ৫০ ভাগের অধিক রুম খালি পড়ে আছে।

তার মতে, বলতে গেলে চলতি পর্যটন মৌসুমে উল্লেখযোগ্য পর্যটক নেই। পর্যটন সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ী নুরুল আবছার জানান , বছরের শেষ দিন অর্থাৎ ‘ থার্টি ফার্স্ট নাইট ’ উদযাপনেও পর্যটকের দেখা মেলেনি সেভাবে। কিন্তু অন্যান্য বছর হোটেলে রুম পেতেই গলদঘর্ম হতে হতো পর্যটকদের। পাশাপাশি এমন পরিস্থিতিও গেছে হাজার হাজার পর্যটক রাস্তায় এবং খোলা আকাশের নিচে ঘুমিয়েছে। কিন্তু এবার দেশের পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকার পরও ধ ” ণকাণ্ড ও কিছু অ ’ সাধু ব্যবসায়ীদের গ ’ লাকা ’ টা বাণিজ্য নিয়ে পর্যটন ব্যবসায় চ ’ রমভাবে ধস নেমেছে ; যা পর্যটন ব্যবসার জন্য সত্যিই উ ’ দ্বেগজনক ।

কক্সবাজার পর্যটন গলফ মাঠের গাড়ি পার্কিংয়ের ইজারাদার কক্সবাজার পৌরসভার কাউন্সিলর সালাহউদ্দিন সেতু বলেন , গত ১৬ ডিসেম্বর ছুটির ৩ দিনে পর্যটকদের বড় বাস পার্কিং ছিল সাড়ে ৩০০টি। পার্কিং জায়গা না পেয়ে স্থানীয় ইলিয়াছ মিয়া উচ্চ বিদ্যালয় মাঠসহ বিভিন্ন স্থানে আরও ২৫০ বড় বাস পার্কিং করা হয়। প্রতিদিন প্রায় ৭০০ বাস কক্সবাজারে পার্কিং হয়েছিল। কিন্তু এবারে বছরের বিদায় ও বরণ উপলক্ষে কক্সবাজারে পর্যটকদের বড় বাস পার্কিং করা হয় ১০০টির মতো। এ থেকে বোঝা যায় , অন্যান্য ছুটির সময়ের তুলনায় এবার কক্সবাজারে পর্যটক আসেনি বললেই চলে ।

তিনি আরও বলেন , এতে বড় ধরনের ক্ষ ’ তির মুখে পড়েছে পর্যটক ব্যবসায়ীরা। মূলত থার্টিফার্স্ট নাইটকে উপলক্ষ করে পার্কিং ইজারা নেওয়া হয় ; যা খুবই হতাশাজনক।ইজারাদার সেতু বলেন , মূলত গৃ ’ হবধূকে স ’ ন্ত্রাসী ও ছি ’ নতাইকারী কর্তৃক দলবদ্ধভাবে ধ ” ণ ও ডাল - ভাতের দামসহ মালাই চায়ের দাম নিয়ে দেশজুড়ে তোলপাড় সৃষ্টি হওয়ায় চলতি বছর কক্সবাজার থেকে মুখ ফিরিয়ে নিয়েছেন ভ্রমণপিপাসু পর্যটকরা ।

কক্সবাজার হোটেল - মোটেল গেস্ট হাউস মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আবুল কাশেম সিকদার বলেন , এবার আশানুরূপ পর্যটক আসেনি। থার্টিফার্স্ট নাইট উপলক্ষে মাত্র ৫০ শতাংশের অধিক রুম বুকিং হয়। এছাড়া সমুদ্র সৈকতে উন্মুক্ত স্থানে অনুষ্ঠান আয়োজনে স ’ রকারি নি ’ ষেধাজ্ঞাও পর্যটক ধসের আরেকটি কারণ। পাশাপাশি ধ ” ণের ঘটনায় নেতিবাচক প্রভাব পড়ায় পর্যটকের সংখ্যা কমে গেছে। বছর বিদায় ও বরণের এমন সময়ে কক্সবাজারে এমন নাজুক অবস্থা আর হয়নি ।

আবাসিক হোটেল অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক কলিম উল্লাহ জানান , এখন সব হোটেল অনলাইনে বুকিং নিচ্ছে। তাই কোনো দালালের কাছে না নিয়ে গিয়ে সরাসরি হোটেল বুকিং দিলে সাশ্রয় রেটে রুম দেওয়া সম্ভব। এবার কাঙ্ক্ষিত পর্যটকের আগমন হয়নি। তবে খুশির খবর হচ্ছে এবার অন্যবারের তুলনায় কিছু বিদেশি পর্যটক বেশি এসেছেন ।

ট্যুরিস্ট পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্ম ’ দ মহিউদ্দিন আহমেদ বলেন , কক্সবাজারের সাড়ে ৪০০ আবাসিক হোটেলে প্রায় দেড় লাখ লোক রাত্রিযাপন করতে পারেন। নিরাপত্তার স্বার্থে প্রতিটি হোটেলে সিসিটিভি ক্যামেরা নিশ্চিত করা হয়েছে। শৃঙ্খলা রক্ষায় নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছিল ; যা এখনো চলমান রয়েছে। এছাড়া স্বা ’ স্থ্যবিধি মানা ও পর্যটকদের নিরাপত্তায় কয়েক স্তরে নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়েছে ট্যুরিস্ট পুলিশ। কক্সবাজারে যাতে আর কোনো নেতিবাচক ঘটনা না ঘটে সেজন্য সর্বোচ্চ সতর্ক অবস্থায় রয়েছে পুলিশ ।

 

 



 

Show all comments
  • MD.Uzzal Hossain ১১ জানুয়ারি, ২০২২, ৩:৫০ পিএম says : 0
    Very Good, Jalim der Julim ar Somoy Shes,
    Total Reply(0) Reply
  • Masud Kabir ১১ জানুয়ারি, ২০২২, ৪:৩৪ পিএম says : 0
    ব্যবসায়ীক পরিবেশ রক্ষার দায়িত্ব সরকার, ব্যবসায়ী, সামাজিক সংগঠন ও স্থানীয় মানুষের, এর ব্যত্যয় হলে মাশুল ও দিতে হয় তাদের! নিউজ সত্যি হলে সেই সে মাশুলই গুনছে তারা....
    Total Reply(0) Reply
  • Mohamed Nuruddin ১১ জানুয়ারি, ২০২২, ৪:৩৫ পিএম says : 0
    শুধু ধর্ষন নয় ডাল ভাত ৪০০টাকার রাখারও উচিত জবাব | অতি লোভে তাতি নষ্ট সেটাই তার প্রমাণ |
    Total Reply(0) Reply
  • Abu Emad ১১ জানুয়ারি, ২০২২, ৪:৩৫ পিএম says : 0
    আলহামদুলিল্লাহ... সম্মিলিত বয়কট অব্যাহত রাখুন।
    Total Reply(0) Reply
  • Shikdar Mohammad Zakaria ১১ জানুয়ারি, ২০২২, ৪:৩৬ পিএম says : 0
    এরকম নিরাপত্তাহীনতায় কে যাবে পরিবার পরিজনে নিয়ে ঘুরতে?
    Total Reply(0) Reply
  • Mijan Ahmed ১১ জানুয়ারি, ২০২২, ৪:৩৬ পিএম says : 0
    পর্যাটন শিল্পের উন্নতি সাধনে আইন শৃংখলার জোরদার করতে হবে। সিন্ডিকেট মুক্ত আবাসন ও খাবারের ব্যবস্থা করতে হবে। মাদক ও কিশোর গ্যাং থেকে নিরাপদ রাখতে হবে। টাকা খরচ করে কেউ ব্যাড এক্সপেরিয়েন্স নিতে যাবে না।
    Total Reply(0) Reply
  • Mohammed Jashim Uddin ১১ জানুয়ারি, ২০২২, ৪:৩৭ পিএম says : 0
    আলহামদুলিল্লাহ, খুব খুশি হলাম জালিমদের শিক্ষা দেওয়া উচিত যতোদিন হোটেল ভাড়া খাবারের দাম মানুষের নাগালের ভিতর না আসবে ততোদিন বয়কট চলবে,
    Total Reply(0) Reply
  • Md. Aman Ullah Talukder ১১ জানুয়ারি, ২০২২, ৫:১১ পিএম says : 0
    আলহামদুলিল্লাহ। জনগন কর্তৃক উপযুক্ত জবাব।
    Total Reply(0) Reply
  • আবদুস শুকুর।সহকারী অধ্যাপক । ১১ জানুয়ারি, ২০২২, ৫:৫৩ পিএম says : 0
    নিরাপত্তা না থাকলে পরিবার নিয়ে যাওয়া কখন যায়
    Total Reply(0) Reply
  • মোঃ মোস্তফা কামাল ১১ জানুয়ারি, ২০২২, ৬:১১ পিএম says : 0
    অন্যায়ের বিরুদ্ধে জোরালো প্রতিবাদ।
    Total Reply(0) Reply
  • Shahin Alom ১১ জানুয়ারি, ২০২২, ৭:৪১ পিএম says : 0
    আমার স্ত্রীর ইচ্ছা ছিল কক্সবাজারে ভ্রমণের তবে চলমান সংকটের কারনে যাওয়া হয়নি......
    Total Reply(0) Reply
  • Abusayed ১১ জানুয়ারি, ২০২২, ৮:০৫ পিএম says : 0
    আলহামদুলিল্লাহ খুশি হলাম।।। মানুষকে বিপাকে ফেলে ওরা একটা বাণিজ্য শুরু করেছে।।।
    Total Reply(0) Reply
  • জামাল ১১ জানুয়ারি, ২০২২, ১১:০৭ পিএম says : 0
    আমিও ছুটিতে বাড়িতে গিয়েছি কক্সবাজার যাব ফ্যামিলির সাথে নিয়ে কিন্তু দেশে যাওয়ার পর এই ঘটনা শোনার পর আর যেতে ইচ্ছা করে নাই
    Total Reply(0) Reply
  • Sayed Abdullah Jisue ১২ জানুয়ারি, ২০২২, ১:১৯ এএম says : 0
    আমার কক্সবাজারের পারিবারিক ট্যুর বাতিল করেছি, নিরাপত্তাহীনতার আশঙ্কায়৷ আনন্দের জন্য ট্যুর, সেটা যদি আতঙ্কে রূপ নেয় তাহলে কে যাবে অপুরণীয় ক্ষতির মুখোমুখি হতে?
    Total Reply(0) Reply
  • মো জামির হোসেন ১৩ জানুয়ারি, ২০২২, ১০:৫৫ পিএম says : 0
    ভাবছি কক্সবাজার আর যাবো না, এখন থেকে কুয়াকাটা, সুন্দরবন ভ্রমনে যাবো।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন