Inqilab Logo

মঙ্গলবার, ২৪ মে ২০২২, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২২ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

রাজশাহীতে শিক্ষকদের অপমান সহ্য করতে না পারায় ছাত্রের বিষপান

রাজশাহী ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ১১ জানুয়ারি, ২০২২, ৬:১৭ পিএম

শিক্ষকেরা অপমান করায় রাফিউল ইসলাম রাফি (১৮) নামে এক ছাত্র কীটনাশক পান করে আত্মহত্যার চেষ্টা চালিয়েছেন। হাজী আবুল হোসেন ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজির রাজশাহী শাখার কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের দ্বিতীয় সেমিস্টারের ছাত্র। গত রোববার কীটনাশক পানের পর তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

শহরের ওমরপুর এলাকায় টাঙ্গাইল থেকে পরিচালিত বেসরকারি এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটির রাজশাহী শাখার ক্যাম্পাস। রাফিউল ইসলামের বাড়ি পুঠিয়া উপজেলার কান্দ্রা গ্রামে। তাঁর বাবা রবিউল ইসলাম একজন স্কুল শিক্ষক। রাফিউল কলেজের পাশেই একটি মেসে থাকেন। কীটনাশক পান করায় তিনি এখন রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তাঁর শারীরিক অবস্থা এখনো শঙ্কামুক্ত নয়।

কীটনাশক পানের আগে রাফিউল ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দেন। সেখানে তিনি উল্লেখ করেন, শিক্ষকেরা শুধু তাঁকেই নয়, তাঁর বাবা-মাকেও অপমান করে কথা বলেছেন। দুই মাস ধরেই শিক্ষকেরা তাঁকে অপমান করে আসছিলেন। এসব তিনি সহ্য করতে পারছেন না। তাই ‘এই জীবনকে বিদায় দিলাম’ বলে ফেসবুক পোস্টে উল্লেখ করেছেন রাফিউল ইসলাম।

রাফিউলের সহপাঠীরা জানান, কলেজের মাসিক সভায় শিক্ষার্থীর সমস্যার কথা শুনতে চেয়েছিলেন শিক্ষকেরা। সেখানে রাফিউল বিভিন্ন সমস্যার কথা তুলে ধরেন। পরে সবার সামনে সমস্যার কথা তুলে ধরার কারণে রাফিউলকে বকাঝকা করেন শিক্ষকেরা। দু’মাস ধরে উপাধ্যক্ষ আব্দুল্লাহ আল মামুন, বিভাগীয় প্রধান সাজ্জাদ আলী ও উপবিভাগীয় প্রধান সাদিকুল ইসলাম তাঁকে অপমান করতেন। তাঁর বাবা-মা সম্পর্কেও অসম্মানজনক কথা বলা হতো।

রাফিউলের বড় ভাই সাব্বির খান বলেন, ‘আমার ভাই এখনো হাসপাতালে। তাঁর কেবল জ্ঞান ফিরেছে। কিন্তু যন্ত্রণা হচ্ছে। চিকিৎসকেরাও এখনো তাঁকে শঙ্কামুক্ত ঘোষণা করেনি। তাই বিস্তারিত তাঁর কাছে শোনা হয়নি। আমরা এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করব।’ জানা গেছে, কলেজের অধ্যক্ষ আশরাফ হোসেন টাঙ্গাইলে থাকেন। এ বিষয়ে কথা বলার জন্য উপাধ্যক্ষ আব্দুল্লাহ আল মামুনকে কয়েক দফা ফোন করা হলেও রিসিভ করেননি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: রাজশাহী


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ