Inqilab Logo

ঢাকা সোমবার, ১৮ জানুয়ারি ২০২১, ০৪ মাঘ ১৪২৭, ০৪ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী

চৌদ্দগ্রামে ৪১ টাকায় সব রোগের চিকিৎসা প্রতারণার শিকার হচ্ছেন নারীরা

প্রকাশের সময় : ৩০ অক্টোবর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

মোঃ আকতারুজ্জামান, চৌদ্দগ্রাম থেকে : কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে মৃত্যু ছাড়া শারিরীক সব রোগের ওষুধ দেন সউদী প্রবাসী হাজী আবু আহাম্মদ। স্বপ্নে পাওয়া ওষুধের নামে তিনি রোগীদের সাথে প্রতারণা করছে বলে অভিযোগ উঠেছে। গত বৃহস্পতিবার সকালে এ প্রতিবেদক রোগী সেজে একই বাড়ির দুই ভÐ কবিরাজের কাÐ প্রত্যক্ষ করেন।
জানা গেছে, গুণবতী ইউনিয়নের বুধড়া গ্রামের দক্ষিণ পাড়ার মৃত হাজী আবদুল মান্নানের পুত্র সউদী প্রবাসী হাজী আবু আহাম্মদ গত তিন মাস আগে ছুটিতে দেশে আসেন। কিছুদিন পর তিনি স্বপ্নে ঔষধ পেয়েছেন বলে প্রচার করে। নিজ বাড়িতেই ‘হাজী দাওয়াখানা’ নামের একটি চেম্বার খুলেন। চেম্বারে নেই কোন আলমিরা। ব্যবহার হয় না কোন প্যাড বা রোগীর নাম ঠিকানাও লেখা হয়না। আশ-পাশের মহিলারা তার খবর শুনে নিজেদের রোগ নিয়ে তার পরামর্শ নেন। গাছের শুকনো পাতা দিয়ে তৈরি ওষুধ সে এক সপ্তাহের কোর্স হিসেবে ৪১ টাকায় বিক্রি করেন। প্রতিবেদকের সামনে এক মহিলা রোগী তাকে বলেন, হুজুর রোগতো আরও বেড়েছে। তিনি বলেন, লেবু খাওয়ার কারণে কিছুটা বেড়েছে। কয়েকদিন পর কমে যাবে। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, লেবুটিও তিনি দিয়েছেন। আবু আহাম্মদ প্রতিবেদকে হাড়ে ব্যাথার ওষুধ হিসেবে শুকনো পাতার একটি প্যাকেট দিয়ে ৪১ টাকা নেন। একই বাড়িতে মাওলানা শফিকুর রহমান নামের আরেক কবিরাজ চেয়ার-টেবিল দিয়ে চেম্বার বসিয়েছেন। তিনি তাবিজ দিয়ে জ্বিন-ভূত তাড়ান। প্রতিবেদক রাতে ঘুমালে হঠাৎ জেগে উঠে কি যেন দেখেন?- এমন কথা বললে কবিরাজ একটি তাবিজের উপর হাত রাখতে বলেন। পরে নামানুসারে কি যেন দেখেন বলেন- আপনাকে জ্বিনে আছড় করেছে। এটা দীর্ঘদিনের। এখন কি করলে জ্বিন সরবে-এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, সরিষার তেল আর একটি তাবিজ লাগবে।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, একই বাড়ির দুই কবিরাজ থেকে ওষুধ নিয়ে কেউ ভালো হয়েছেন এমন নজির নেই। তারপরও ‘স্বপ্নে পাওয়া ওষুধ’ ভেবে মহিলারা কবিরাজ আবু আহাম্মদের কাছে যায়’। বৃহস্পতিবার কবিরাজের কার্যক্রম পরিদর্শন শেষে কয়েকজন মহিলা রোগী তাদের ভালো হয়নি বলে দাবি করেন’।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: চৌদ্দগ্রামে ৪১ টাকায় সব রোগের চিকিৎসা প্রতারণার শিকার হচ্ছেন নারীরা
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ