Inqilab Logo

শুক্রবার, ২০ মে ২০২২, ০৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৮ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

প্রার্থিতা প্রত্যাহার হয়নি, ব্যালটে থাকবে পরীমনির নাম

বিনোদন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৬ জানুয়ারি, ২০২২, ১১:৪২ এএম

চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির দ্বিবার্ষিক নির্বাচন আগামী ২৮ জানুয়ারি। এবার দুটি প্যানেলে নেতৃত্ব দিচ্ছেন মিশা সওদাগর-জায়েদ খান ও ইলিয়াস কাঞ্চন-নিপুণ। কথা ছিল কাঞ্চন ও নিপুণ প্যানেল থেকে কার্যকরী সদস্য পদে পরীমনি প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন। কিন্তু হঠাৎ করে গতকাল (১৫ জানুয়ারী) নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দেন পরীমনি। কিন্তু নির্বাচন থেকে পরীমনির সরে দাঁড়ানোর কোনো সুযোগ নেই বলে জানিয়েছেন শিল্পী সমিতির নির্বাচন কমিশনের সদস্য জাহিদ হোসেন।

জাহিদ হোসেন বলেন, ‘শনিবার দুপুর ২টা পর্যন্ত শিল্পী সমিতির নির্বাচন কমিশনে প্রার্থিতা প্রত্যাহারের চিঠি জমা দেওয়ার শেষ সময় ছিল। এর মধ্যে আমরা কারও প্রার্থিতা প্রত্যাহারের চিঠি পাইনি। পরীমণির কোনো চিঠিও আমাদের হাতে আসেনি।’

এদিকে পরীমনি নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর বিষয়ে জানতে চাইলে অভিনেতা সাইমন সাদিক বলেন, ‘পরীমনি যখন আমাকে ফোন দিয়ে বলেন যে, তিনি অসুস্থ, তাই তাকে কলকাতা যেতে হবে চিকিৎসার জন্য। সেজন্য এই নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়াতে চান। তখনই আমি শিল্পী সমিতির নির্বাচন কমিশনারের কাছে এসে বলি। কিন্তু তখন আর সময় ছিল না প্রত্যাহার করার। তাই প্রত্যাহার হয়নি।’

তিনি আরও বলেন, ‘বিধি অনুযায়ী পরীমনিকে নির্বাচনে অংশ নিতে হবে। এ ছাড়া আর কোনো উপায় নেই।’

এদিকে গত ১০ জানুয়ারি বিয়ে ও মাতৃত্বের ঘোষণা দিয়ে সবাইকে চমকে দেন পরীমনি। তার অনাগত সন্তানের বাবা অভিনেতা শরিফুল রাজ। গত বছর ১৭ অক্টোবর পারিবারিকভাবে বিয়ে হয় রাজ-পরীমনির।

গতকাল (১৫ জানুয়ারী) পরীমনি গণমাধ্যমে বলেন, ‘আমার অনাগত সন্তানের জন্মের আগে আমি কোনো ধরনের ঝুঁকি নিতে চাই না। যেহেতু নির্বাচন করতে গেলে সেখানে সময় দেওয়া লাগে। আমি সেই সময়টাও দিতে পারছি না এ মুহূর্তে। আর তাই আমি নির্বাচন করছি না।’

বর্তমানে পরীমনির হাতে রয়েছে, রাশিদ পলাশের ‘প্রীতিলতা’, চয়নিকা চৌধুরীর ‘কাগজের ফুল’, অরণ্য আনোয়ারের ‘মা’ চলচ্চিত্রগুলো। এ বছরই মুক্তি পাওয়ার কথা রয়েছে পরীমনি অভিনীত ‘মুখোশ’ ও ‘অ্যাডভেঞ্চার অব সুন্দরবন’।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ঢালিউড


আরও
আরও পড়ুন