Inqilab Logo

বুধবার, ১৮ মে ২০২২, ০৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৬ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

শীতকালীন ঝড়ের কবলে যুক্তরাষ্ট্র খাদ্য সরবরাহে সঙ্কট

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৭ জানুয়ারি, ২০২২, ১২:০২ এএম

যুক্তরাষ্ট্রের সাত কোটি ৫০ লাখ মানুষকে শীতকালীন ঝড় ও তীব্র শীতের সতর্কতা জারি করা হয়েছে। সোমবার পর্যন্ত দেশটির ৩৩টি রাজ্যে এ সতর্কতা কার্যকর থাকবে। রোববার এবিসি নিউজের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়। যুক্তরাষ্ট্রে এই মুহূর্তে কমপক্ষে ১১টি আবহাওয়া সতর্কতা ও পরামর্শ কার্যকর রয়েছে। দেশটির উত্তর-পূর্বাংশে সবচেয়ে বেশি ঠাণ্ডা আবহাওয়া বিরাজ করছে। শনিবার এসব এলাকায় তাপমাত্রা ছিল মাইনাস ৪০ ডিগ্রি ফারেনহাইট। জানা গেছে, আরকানসাস থেকে পেনসিলভেনিয়া পর্যন্ত তুষারপাত অব্যাহত রয়েছে। এরই মধ্যে উত্তর ডাকোটা থেকে ওআইওয়াজুড়ে এক ফুটের বেশি বরফ জমে গেছে। শীতকালীন ঝড়টি দক্ষিণ-পূর্ব থেকে মধ্য-মিসিসিপি রাজ্যের দিকে ক্রমেই অগ্রসর হচ্ছে। রোববার থেকে এটি উত্তর-পূর্ব দিকে যাবে। একই সঙ্গে আরও তুষারপাত ও বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। পূর্বাভাসে বলা হয়, দেশটির দক্ষিণাঞ্চলের কিছু অংশে তিন থেকে ছয় ইঞ্চি বরফ জমতে পারে। তাছাড়া আটলান্টায় গত চার বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ তুষারপাত দেখা যেতে পারে। টেনেসি, নর্থ ক্যারোলিনা, ভার্জিনিয়া ও পশ্চিম ভার্জিনিয়ার পাহাড়ি এলাকায় ছয় থেকে ১৮ ইঞ্চি তুষারপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। তাছাড়া নিউ ইংল্যান্ডের মধ্য দিয়ে উত্তর-পূর্বের অভ্যন্তরীণ অংশে ছয় থেকে ১৮ ইঞ্চি তুষারপাত হবে বলে আশা করা হচ্ছে। ওয়াশিংটন ডিসি, ফিলাডেলফিয়া, নিউইয়র্ক সিটি ও বোস্টনসহ উত্তর-পূর্বের উপকূলীয় অঞ্চলগুলোতে তিন ইঞ্চি পর্যন্ত তুষারপাত হতে পারে। তবে সোমবারে দিকে এসব এলাকায় বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনাও রয়েছে। দক্ষিণাংশে বিশেষ করে টেক্সাস থেকে ক্যারোলিনা পর্যন্ত ধমকা হওয়া বয়ে যাবে। ফলে এসব এলাকায় বিদ্যুৎ বিভ্রাট দেখা যেতে পারে। এদিকে আবহাওয়াজনিত কারণে যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে রোববার দুই হাজারের বেশি ফ্লাইট বাতিল করা হয়। জর্জিয়া, উত্তর ক্যারোলিনা, দক্ষিণ ক্যারোলিনা ও ভার্জিনিয়ায় এরই মধ্যে জরুরি অবস্থা ঘোষণা করা হয়েছে। উত্তর ক্যারোলিনার গভর্নর রয় কুপার বাসিন্দাদের প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র সংগ্রহ করতে ও সোমবার পর্যন্ত রাস্তা বন্ধ রাখার আহ্বান জানিয়েছেন। অপর এক খবরে বলা হয়, কোভিড-১৯ সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতির মধ্যে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের উচ্চ চাহিদা, ক্রমাগত বাড়তে থাকা পরিবহন খরচ এবং মহামারির কারণে দেখা দেয়া শ্রমিক সংকটে যুক্তরাষ্ট্র জুড়ে সুপারশপগুলোর পণ্য সরবরাহে টান পড়েছে। বড় বড় সুপারমার্কেটে প্রক্রিয়াজাত খাবার এবং তাজা খাবার রাখার তাকগুলো খালি পড়ে থাকতে দেখা যাচ্ছে। যুক্তরাষ্ট্রের ওয়েস্ট কোস্টে লেটুস ও বেরির মত পচনশীল খাদ্যপণ্য উৎপাদনকারীদের খুচরা বাজারে তাদের পণ্য সরবরাহের জন্য বর্তমানে করোনাভাইরাস মহামারীর আগের সময়ের তুলনায় তিনগুণ বেশি ভাড়া গুণতে হচ্ছে। ‘ওইহি প্রডিউস’ এর প্রধাননির্বাহী শাই মায়েরস বলেন, পরিবহন খরচ না কমা পর্যন্ত তারা তাদের উৎপাদিত পেঁয়াজ খুচরা বাজারে পাঠাবে না। ওইহি প্রডিউস আইডাহো সীমান্তে পেঁয়াজ, তরমুজ এবং অ্যাসপারাগাস চাষ করে। মেয়ার বলেন, ট্রাক চালকের সঙ্কট এবং সম্প্রতি ঝড়ে কয়েকটি মহাসড়ক ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যাওয়ায় গত প্রায় তিন সপ্তাহ ধরে পরিবহন চলাচল মারাত্মকভাবে বিঘ্নিত হচ্ছে। যে কারণে ফল এবং সবজি পরিবহন খরচ প্রায় দ্বিগুণ হয়ে গেছে। কোভিড-১৯ মহামারী কারেণ পণ্য পরিবহন খরচ আগেই অনেক বেড়ে গিয়েছিল। তিনি বলেন, ‘‘আমরা সাধারণ ইস্ট কোস্ট থেকে ওয়েস্ট কোস্টে জাহাজে পণ্য পাঠাই। আগে এজন্য সাত হাজার মার্কিন ডলার খরচ হতো। এখন সেই খরচ বেড়ে ১৮ হাজার থেকে ২২ হাজার মার্কিন ডলার হয়ে গেছে।” করোনাভাইরাসের দ্রুত সংক্রামক নতুন ধরন ওমিক্রনের কারণে আগামী তিন থেকে চার সপ্তাহ সুপারমার্কেটে খাদ্য সঙ্কট আরো বেড়ে যাবে বলে ধারণা প্রকাশ করেন আমেরিকার গ্রোসারি কোম্পানি ‘অ্যালবার্টসন্স’ এর প্রধাননির্বাহী বিবেক শঙ্কারান। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ওয়ালমার্টের মত বড় সুপারশপের পাস্তা ও মাংসের তাক খালি পড়ে থাকার অভিযোগ করেছেন ক্রেতারা। এবিসি নিউজ, রয়টার্স।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: যুক্তরাষ্ট্র


আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ