Inqilab Logo

সোমবার, ২৩ মে ২০২২, ০৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২১ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

ওমিক্রনের পরে আসতে পারে আরও ভয়ংকর ভ্যারিয়েন্ট, আশঙ্কা বিজ্ঞানীদের

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৭ জানুয়ারি, ২০২২, ১:৩৮ পিএম

গোটা পৃথিবীকে ত্রাসের মধ্যে ফেলে দেওয়া করোনা মহামারি থেকে কবে মুক্ত হবে মানব সভ্যতা? এই প্রশ্ন গত দুই বছরে বারবার উঠছে। বেশ কিছু বিশেষজ্ঞের মত, ওমিক্রনই সম্ভবত মহামারীর অন্তিম ভ্যারিয়েন্ট। এরপর ফের চিরচেনা মুক্ত বাতাসের পৃথিবীতে ফিরবে মানুষ। কিন্তু সম্প্রতি একদল বিজ্ঞানী সম্পূর্ণ অন্য কথা বললেন। তাদের মতে, দুঃস্বপ্নের দিন এখনও ফুরোয়নি, ভাইরাস আরও কিছু দিন তার খেল দেখাবে, এমনকী সার্স কোভিডের পরবর্তী স্ট্রেন হতে পারে আরও বেশি ভয়ংকর।

বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, যত বেশি মানুষের শরীরে সংক্রমণ করতে পারবে ভাইরাস, তত বেশি করে সে নতুন ও শক্তিশালী রূপ ধারণ করতে সক্ষম হতে পারে। এই কারণেই ওমিক্রন নিয়ে চিন্তিত বিজ্ঞানীরা, মাস খানেকের কিছু বেশি সময়ে গোটা পৃথিবীতে ছড়িয়ে পড়েছে যে ভাইরাস। যেহেতু বর্তমান স্ট্রেনটি দ্রুত সংক্রমণ ছড়ানোর ক্ষমতা ধরে। এমনকী প্রতিষেধকের বেড়াজাল ডিঙিয়েও।

ফলে ভাইরাসটি ফের নতুন রূপ নেবে না বা শক্তি বাড়াবে না, এমনটা ভাবা ভুল। আরও আশঙ্কার কথা, বিজ্ঞানীরা বলতে পারছেন না, এরপরের ভ্যারিয়েন্ট কেমন হবে বা কতখানি মারণ ক্ষমতা থাকতে পারে তার। ফলে ভবিষ্যৎ পৃথিবী মহামারীর কী রূপ দেখবে, এমনকি পরবর্তী স্ট্রেনের ক্ষেত্রে চলতি কোভিড ভ্যাকসিন কাজে আসবে কিনা, সে সম্পর্কেও সন্দিহান বিজ্ঞানীরা। তবে বর্তমান পরিস্থিতিতে দ্রুত পৃথিবীর সমস্ত মানুষের টিকাকরণের উপর জোর দিচ্ছেন বিজ্ঞানীরাও।

বস্টন ইউনিভার্সিটির ইনফেকশাস ডিজিজ এপিডেমিওলজিস্ট লিওনার্দো মার্টিনেজ বলেন, “অতি দ্রুত ছড়াচ্ছে ওমিক্রন, ফলে মিউটেশনের সম্ভাবনাও বাড়ছে। যার ফল কোভিডের আরও আরও ভ্যারিয়েন্ট।” এদিকে লাগাতার সংক্রমণ বাড়ছে দেশে। বিশেষজ্ঞরা আগেই জানিয়েছিলেন, জানুয়ারির শেষেই দেশে ওমিক্রনের দাপট চূড়ান্ত হতে পারে। পরিস্থিতি সেদিকেই গড়াচ্ছে। দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যার সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে অ্যাকটিভ কেস এবং পজিটিভিটি রেট। সূত্র: রয়টার্স, এপি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: করোনা


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ