Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৮, ৩০ কার্তিক ১৪২৫, ০৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী

অল্পের জন্য সংঘর্ষ এড়ালো রুশ-মার্কিন যুদ্ধবিমান

আলেপ্পোতে সিরিয়ান বিদ্রোহীদের পাল্টা আক্রমণ শুরু

প্রকাশের সময় : ৩১ অক্টোবর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

ইনকিলাব ডেস্ক : সিরিয়ান বিদ্রোহীরা পূর্ব আলেপ্পোতে পাল্টা আক্রমণ শুরু করেছে। বিদ্রোহীরা জানায়, সেনাবাহিনী এবং তাদের জোটের দীর্ঘ এক সপ্তাহের অবরোধ ভাঙার লক্ষ্যে সিরিয়ান বিদ্রোহীদের সাথে জিহাদীরাও পাল্টা আক্রমণ করছে। পশ্চিম প্রান্তের মূল শহরটির দিকে মনোনিবেশ করার জন্য বিদ্রোহীরা হামলার জন্য ভারি গোলাবর্ষণ এবং আত্মঘাতী গাড়িবোমা নিয়ে আলেপ্পোর বাহিরে গ্রামাঞ্চলে অবস্থান করছে। সিরিয়ার জাতিসংঘ মানবাধিকার পর্যবেক্ষকরা এবং ব্রিটিশ যুদ্ধ নিরীক্ষকরা বলেছে, পশ্চিম আলেপ্পোতে বিদ্রোহীরা সরকারে উপর গোলাবর্ষণের ফলে ১৫ জনেরও বেশি বেসামরিক নাগরিকের মৃত্যু হয় এবং ১০০ জন নাগরিক আহত হয়। এদিকে, সিরিয়ার আকাশে অল্পের জন্য সংঘর্ষ এড়িয়েছে রাশিয়া ও যুক্তরাষ্ট্রের যুদ্ধবিমান। একটি গোপন অভিযানের সময় বিরাটাকারের একটি মার্কিন বিমানের খুব কাছে চলে এসেছিল রাশিয়ার যুদ্ধবিমান। এমনই কাছে যে, রাশিয়ান বিমান থেকে মার্কিন বিমানের ঝাঁকুনি টের পেয়েছেন রুশরা। গত শুক্রবার মার্কিন সেনাবাহিনীর এক মুখপাত্র এ তথ্য জানিয়েছেন। বাগদাদে মার্কিন নেতৃত্বাধীন জোটের মুখপাত্র বিমানবাহিনীর কর্নেল জন ডোরিয়ান জানান, ১৭ অক্টোবর এ ঘটনাটি ঘটে। ঘটনাটি তাৎক্ষণিকভাবে মার্কিন সেনাবাহিনীকে জানানো হয়। তবে রাশিয়া বিষয়টি প্রকাশ্যে না আনার অনুরোধ করে। ডোরিয়ান জানান, রুশ যুদ্ধবিমানটি মার্কিন বিমানের অর্ধেক মাইলেরও কম দূরত্বে কাছাকাছি চলে আসে। মার্কিন বিমানটিকে বড় আকারের উল্লেখ করলেও তার নাম প্রকাশ করতে তিনি রাজি হননি। তিনি বলেন, দুই বিমান এত কাছাকাছি চলে এসেছিল যে একে অপরের কম্পন অনুভব করতে পারছিল।’
অন্যদিকে, প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদের সাথে ইরান, রাশিয়া, শিয়া মিলিশিয়া এবং তুর্কিসমর্থিত সুন্নি বিদ্রোহীদের সাথে দ্বন্দ্বের জন্য সিরিয়ার সবচেয়ে বড় যুদ্ধপূর্ব শহর আলেপ্পো এখন প্রধান রঙ্গমঞ্চ হয়েছে। চিকিৎসকরা জানায়, শহরটি ভাগ হয়ে পশ্চিম অংশ সরকারের নিয়ন্ত্রণে এবং পূর্ব অংশ বিদ্রোহীদের নিয়ন্ত্রণে চলছে। এই গ্রীষ্মে সেনাবাহিনী এবং তাদের জোট শহরটি তাদের নিয়ন্ত্রণে নিয়েছে। ফাতেমি আল-শামস এক বিবৃতিতে জানায়, বিদ্রোহীরা শহরের দক্ষিণ-পশ্চিম কোণের এক কিলোমিটার আবাসিক এলাকাসহ দাহিয়েত আল-আসাদের উপর নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠা করতে সক্ষম হয়েছে। কিন্তু সিরিয়ার সেনাবাহিনী সূত্র বলেছে, পূর্বে দক্ষিণ ও পশ্চিম আলেপ্পোয় তাদের সেনাবাহিনী এবং জোট একটি বিশাল হামলায় সব ধ্বংস করেছে। সেনাবাহিনী চারটি বোমার গাড়ি ধ্বংস করেছে যা একটি রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন প্রতিবেদন করেছিল। সংবাদ সংস্থাগুলো আরো জানায়, রুশ যুদ্ধবিমান কাছাকাছি আসলেও তাতে মার্কিন বিমানের ক্রুদের কোনো ঝুঁকি ছিল না বলে জানান তিনি। কেন এ ঘটনাটি সঙ্গে সঙ্গে প্রকাশ করা হয়নি প্রশ্নের জবাবে মুখপাত্র বলেন, ‘কারণ আমরা যথাযথ কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে বিষয়টি নিয়ে রাশিয়ার সঙ্গে আলোচনা করি। এ আলোচনা ছিল একান্ত। উভয় দেশই চলমান উত্তেজনাকে আরো বৃদ্ধি করতে আগ্রহী নয়। ফলে তা ওই সময় প্রকাশ করা হয়নি।’ রাশিয়ার ঘনিষ্ঠ মিত্র সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদের অনুরোধে সাড়া দিয়ে রাশিয়া ২০১৫ সালের সেপ্টেম্বর থেকে সিরিয়ার আসাদবিরোধী বিদ্রোহীদের ওপর বিমান হামলা চালাচ্ছে। এতে সাধারণ মানুষ এমনকি হসপাতালও লক্ষ্যবস্তুতে পরিণত হওয়ার সমালোচনা করেছে মানবাধিকার সংগঠনগুলো। বিপরীতে বিদ্রোহীদের সমর্থন ও সহযোগিতা করছে যুক্তরাষ্ট্র। সূত্র : বিবিসি, রয়টার্স ও সিবিএস নিউজ।



 

Show all comments
  • Saif ৩১ অক্টোবর, ২০১৬, ১১:৪৮ এএম says : 4
    agulo kobe ses hobe ?
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ