Inqilab Logo

রোববার, ২৯ মে ২০২২, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২৭ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

ইন্দোনেশিয়ার নতুন রাজধানী হবে নুসান্ত্রা

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৯ জানুয়ারি, ২০২২, ৩:১১ পিএম

জাকার্তা থেকে রাজধানী সরিয়ে বোর্নিও দ্বীপের পূর্ব কালিমানতানে নিয়ে যাচ্ছে ইন্দোনেশিয়া। সম্প্রতি ইন্দোনেশিয়া ঘোষণা দিয়েছে, জাকার্তার বদলে তারা যে নতুন রাজধানী তৈরি করতে যাচ্ছে, তার নাম হবে 'নুসান্ত্রা'। খবর বিবিসির।

ভিড়বহুল জাকার্তা দুষিত হয়ে পড়েছে এবং ভূ-গর্ভস্থ পানির মাত্রাতিরিক্ত উত্তোলনের ফলে আশঙ্কাজনক হারে ডেবে যাচ্ছে। দেশটির দ্রুত ডুবন্ত শহর জাকার্তা থেকে রাজধানী সরিয়ে নেয়ার একটি প্রস্তাব পার্লামেন্ট অনুমোদনের পর এই ঘোষণা দিয়েছে সরকার।
বোর্নিও দ্বীপ থেকে ১ হাজার ৩০০ কিলোমিটার দূরের রাজধানী তৈরি করার প্রথম প্রস্তাব করা হয়েছিল ২০১৯ সালে।
তবে সমালোচকরা বলছে, নতুন এই নাম বিভ্রান্তি তৈরি করতে পারে। সেই সঙ্গে রাজধানী সরিয়ে নেয়ার এই পদক্ষেপে পরিবেশগত বিষয়গুলোকেও উপেক্ষা করা হয়েছে। জাভা সাগরের এই বৃহত্তম দ্বীপে এক কোটির বেশি মানুষ বসবাস করে।

শহরের বায়ুদূষণ এবং ট্রাফিক জ্যামের কুখ্যাতি রয়েছে। সময়মতো সভা-সমাবেশে অংশ নেয়ার জন্য সরকারের মন্ত্রীদের পুলিশের গাড়ি বহরের পাহারা নিতে হয়।
বোর্নিও প্রদেশের ইস্ট কালিমানতানে নতুন রাজধানী তৈরি হলে জাকার্তা থেকে চাপ কিছুটা কমবে বলে সরকার আশা করছে।
ইন্দোনেশিয়ার জাতীয় পরিকল্পনা উন্নয়ন সংস্থার প্রধান বামবাং ব্রদজনিগোরো জানিয়েছেন, নতুন রাজধানী স্থানান্তরে খরচ হবে তিন হাজার ৩০০ কোটি মার্কিন ডলার। নতুন সরকারি দপ্তর, ১৫ লাখ সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীর বাসভবন নির্মাণ খরচও এর মধ্যে অর্ন্তভূক্ত। ২০২৪ সাল থেকে নতুন রাজধানীতে স্থানান্তর প্রক্রিয়া শুরু হবে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

প্রসঙ্গত, জনসংখ্যা বৃদ্ধি, অধিক নগরায়ন ও শিল্পায়ন, তাপমাত্রা বেড়ে যাওয়া এবং অপরিকল্পিতভাবে জমি ব্যবহার করার ফলে প্রতি বছরই একটু একটু করে জাকার্তা হুমকির মুখে রয়েছে। বিজ্ঞানীরা আশঙ্কা করছেন, ২০৫০ সালের মধ্যে তলিয়ে যেতে পারে জাকার্তা শহর।
জাকার্তায় প্রায়ই বন্যা দেখা দেয়। ২০১৩ সালে অধিক বন্যার ফলে কয়েকটি স্থানের কিছু অংশ একবারে দুই মিটার নিচে ডুবে যায়। জাকার্তার উত্তর দিকে বিগত ১০ বছরে প্রায় ২ দশমিক ৫ মিটার ভূমি সমুদ্রে তলিয়ে যায়। এছাড়া গড়ে প্রতি বছর ২৫ সেন্টিমিটার ভূমি পানির নিচে তলিয়ে যাচ্ছে। সূত্র : বিবিসি



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ইন্দোনেশিয়া


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ