Inqilab Logo

শনিবার, ২১ মে ২০২২, ০৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৯ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

বগুড়ায় পশু খাদ্যের দাম বাড়ায় বিপাকে খামারি

পাচার হচ্ছে ভারতে

বগুড়া ব্যুরো : | প্রকাশের সময় : ২০ জানুয়ারি, ২০২২, ১২:০২ এএম

বগুড়ায় হঠাৎ করে বেড়েছে পশুখাদ্যের দাম। সীমান্ত পথে ভারতে পাচার এবং মিল মালিকদের সিন্ডিকেটের কারনেই এই মুল্যবৃদ্ধি হয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট সুত্রে জানা গেছে। এদিকে পশুখাদ্য বিশেষ করে গবাদিপশু খাদ্যের দাম বৃদ্ধির প্রভাবে গরু-ছাগলের গোশত এবং গরুর দুধের দাম কমছেনা বলে জানিয়েছে ডেইরি খামারের মালিকরা।

জানতে চাইলে গভীর ক্ষোভ ও হতাশার সুরে বগুড়ার প্রেসিডেন্ট ও প্রধানমন্ত্রী পদকপ্রাপ্ত খামারী আবেদীন ডেইরি খামারের সত্ত্বাধিকারি সামসুল আবেদীন সবুর জানালেন, অতি সম্প্রতি পশুখাদ্য হিসেবে ব্যবহৃত ভাঙ্গা ভুট্টার ৫০ কেজির বস্তা ১০০০ টাকা থেকে লাফিয়ে ১৬৫০ টাকা,মশুর ডালের ভুষি ৬০০ টাকা থেকে ১১০০ টাকা, প্রতিকেজি সরিষা ৩০ টাকা থেকে একলাফে পঞ্চাশ টাকায় উঠেছে ।
আরেক ক্ষুদ্র ডেইরি খামারী বোরহান উদ্দিন জানালেন, ২ টাকা আঁটির খড় বেড়ে ৫ টাকা হয়েছে ৩ - ৪ টাকা কেজির নেপিয়ার ঘাসের দাম বেড়ে হয়েছে ১২ টাকা। গবাদি পশুখাদ্যের এই বর্ধিত দামের যোগান দিতে হিমশিম খেতে হচ্ছে ডেইরি খামার মালিকদের। ফলে বাড়াতে হচ্ছে দুধের দাম । আর বেশিদামের কারনে দুধ বিক্রি করে খামারের দৈনন্দিন খরচ চালানো সম্ভব হচ্ছেনা।
এদিকে একটি সুত্রে জানা গেছে , গত কিছুদিন ধরে সীমান্ত পথে ভারতে পাচার হয়ে যাচ্ছে বগুড়ার ফ্লাওয়ার, রাইস এবং ওয়েল মিলগুলোতে উৎপন্ন গমের ভুষি, চালের কুঁড়া এবং খৈল। এতে প্রকৃৃতপক্ষে লাভবান হচ্ছে ভারত পশ্চিমবঙ্গ ও আসাম রাজ্যের খামারীরা। ভুক্তভোগি খামারীদের মতে দেশে উৎপাদিত পশুখাদ্য যাতে চোরাচালান হয়ে পশ্চিমবঙ্গ এবং আসামে যেতে না পারে সেজন্য স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিশেষ মনিটরিং ব্যবস্থা জোরদার করা উচিত।
উল্লেখিত পশু খাদ্যসমুহের মুল্যবৃদ্ধি রোধে লাইভস্টক বিভাগের কোন পদক্ষেপ বা মনিটরিং এর কোন সুযোগ আছে কি না জানতে চাইলে বগুড়া সদর উপজেলার লাইভস্টক কর্মকর্তা ডা. আব্দুস সামাদ বলেন , যেসব ব্যবসায়ী তাদের লাইসেন্স নিয়ে পেটেন্ট কোম্পানীর খাবার ও ওষুধ বিক্রি করে থাকে কেবল সেসব বিষয়েই তারা নীতিমালা অনুযায়ি ব্যবস্থা নিতে পারেন। তবে বেসরকারি ফ্লাওয়ার মিল, রাইস মিল বা ওয়েল মিলসমুহে উৎপন্ন্ পশুখাদ্যের কেনা বেচা মুলত চাহিদা ও যোগানের ভিত্তিতে নির্ধারিত হয় ।
এছাড়া গবাদিপশু খাদ্য ভারতে পাচার হওয়ার কারনে স্থানীয়ভাবে পশু খাদ্যের যোগানের সংকট হচ্ছে কিনা এবিষয়টি তার জানা নেই।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বগুড়ায় পশু খাদ্যের দাম বাড়ায় বিপাকে খামারি
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ