Inqilab Logo

শুক্রবার, ২০ মে ২০২২, ০৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৮ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

নেছারাবাদে সন্তান বিক্রি করা শিশু কন্যাকে ফিরে পেয়েছে বাবা মা মাথা গোজার জায়গাটুকু হারাল তারা

নেছারাবাদ(পিরোজপুর) সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২১ জানুয়ারি, ২০২২, ৫:৪৭ পিএম

তাদের প্রতিবেশি সবিতা মিস্ত্রী(৬৫) বলেন পরিমল দম্পত্তি বিক্রি হওয়া শিশু ফিরে পেয়ে তারা খুবই আনন্দিত। তবে ঘর মালিক রোববার বাড়ীতে এসে ঘরে তালা জুলাবে। তারা এখন কোথায় থাকবে। তাদের ঘরে কোন চাল ডাল কিছুই নেই। আমাদের খাবার থেকে মাজেমধ্য তাদের দিয়ে চালিয়ে রাখি।

জানাগেছে পরিমল বেপারীর অভাবের সুযোগ নিয়ে বিজন হালদার ও তার সহযোগী রনজিত মন্ডল তার ১৮ দিনের শিশু কন্যাকে বিক্রি করতে প্রলুব্ধ করেন। পরিমল বেপারীর অভিযোগ একলাখ ৬৫ হাজার টাকায় তার সন্তান বিক্রি করা হলেও তাকে মাত্র ১০ হাজার টাকা দিয়ে বাকীটা ওই প্রতারকরা আত্মসাত করেন।

গত বৃহসপতিবার সংবাদ মাধ্যমে শিশু বিক্রির খবর ছড়িয়ে পড়লে পুলিশ তৎপর হয়ে ওঠেন। এ ঘটনায় ভীত সন্ত্রস্ত হয়ে পড়েন শিশু বিক্রির মধ্যস্থতারী ও ক্রেতা দম্পত্তির আত্মীয় আতা গ্রামের সুকুমার রায়ের স্ত্রী আরতী রানি ওরফে সন্ধ্যা রায়। ওই রাতেই শিশুটিকে উদ্ধার করে তার বাবা মায়ের হাতে তুলে দেয়া হয়। তবে সন্তান বিক্রির সাথে জড়িত টাকা আত্মসাতকারি বিজন হালদার এবং রনজিৎ মন্ডল গা ঢাকা দিয়েছেন।

এ বিষয় নেছারাবাদ (স্বরূপকাঠি) থানার ওসি আবির মোহাম্মদ হোসেন বলেন,উদ্ধার করা শিশুকে তার পরিবারের কাছে দেয়া হয়েছে। শিশু বিক্রির বিষয়টি তদন্ত করে জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ