Inqilab Logo

রোববার, ২২ মে ২০২২, ০৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২০ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

ভাড়াটিয়া সরিয়ে খোকার বাড়ি বুঝে নিয়েছে সরকার

প্রকাশের সময় : ৩১ অক্টোবর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

স্টাফ রিপোর্টার ; বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ও ঢাকা সিটি কর্পোরেশনের সাবেক মেয়র সাদেক হোসেন খোকার রাজধানীর গুলশানের ছয়তলা বাড়িটি বুঝে নিয়েছে সরকার। এর আগে আদালতের ক্রোকি পরোয়ানা তামিল করে গত ২২ সেপ্টেম্বর গুলশান ২ নম্বর সেক্টরের ৭২ নম্বর সড়কের ৯ নম্বর হোল্ডিংয়ের ৫ কাঠা জমি এবং তার ওপর নির্মিত ছয়তলা ভবন বাজেয়াপ্ত করে নোটিশ ঝুলিয়েছিলেন ঢাকার জেলা প্রশাসক। তবে বাড়িটির ভাড়াটিয়ারা সরে যেতে এক মাসের সময় চান।
ইতোমধ্যে সব ভাড়াটিয়া অন্যত্র চলে যাওয়ায় গতকাল রোববার বেলা সাড়ে ১২টায় ম্যাজিস্ট্রেট হোসনে আরা সরকারের পক্ষে বাড়িটি আনুষ্ঠানিকভাবে বুঝে নেন। বাড়িটির দাম ২ কোটি ৪৭ লাখ ৬০ হাজার টাকা নির্ধারণ করেছিলেন আদালত। সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, বাড়িটিতে ভাড়াটিয়া হিসেবে ছিল একটি বায়িং হাউজ। তাদের বিদেশী অতিথিদের থাকার জন্য ব্যবহার করা হতো বাড়িটি।
সাদেক হোসেন খোকার আইনজীবী জাফরুল হাসান শরীফ বলেন, বাড়িটির ভাড়াটিয়ারা বাংলাদেশের আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। আদালতের আদেশে সরকার সাদেক হোসেন খোকার এ বাড়িটি বাজেয়াপ্ত করার পর ভাড়াটিয়ারা বাড়িটি ছাড়ার জন্য এক মাস সময় নিয়েছিলেন আদালতের কাছ থেকে। রোববার এক মাস পূর্তি হলো। তাই ভাড়াটিয়া বাড়িটি সরকারের কাছে বুঝিয়ে দিয়েছেন।
গত বছরের ২০ অক্টোবর তথ্য গোপন ও অবৈধ সম্পদ অর্জনের দায়ে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) দুর্নীতি মামলায় সাদেক হোসেন খোকাকে ১৩ বছরের কারাদ- দেন আদালত। তিনি অবৈধভাবে ১০ কোটি ৫ লাখ ২১ হাজার ৮৩২ টাকা মূল্যের স্থাবর-অস্থাবর সম্পদের মালিক হয়েছেন ঘোষণা করে ওই সম্পদ রাষ্ট্রের অনুকূলে বাজেয়াপ্ত করা এবং ১১ লাখ টাকা জরিমানা ও অনাদায়ে আরো সাত মাসের কারাদ-ের নির্দেশ দেয়া হয়।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ভাড়াটিয়া সরিয়ে খোকার বাড়ি বুঝে নিয়েছে সরকার
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ