Inqilab Logo

রোববার, ২২ মে ২০২২, ০৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২০ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

ইউক্রেন নিয়ে চার দেশের বৈঠক, যুদ্ধ চান না এরদোগান

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২১ জানুয়ারি, ২০২২, ৮:০৬ পিএম

বৃহস্পতিবার জার্মানির রাজধানী বার্লিনে পূর্ব ইউক্রেনের পরিস্থিতিসহ নানা বিষয়ে এক বৈঠকে বসেছিল জার্মানি, যুক্তরাষ্ট্র, ফ্রান্স ও বৃটেনের কূটনীতিকগণ।

জার্মান পররাষ্ট্রমন্ত্রী বৈঠক শেষে এক সাংবাদিক সম্মেলনে বলেন, জার্মানি ও যুক্তরাষ্ট্র একমত হয়েছে যে, ইউক্রেন সংকট সমাধানের একমাত্র উপায় হচ্ছে রাজনৈতিক সংলাপ। রাশিয়াকে ব্যবস্থা নিয়ে চলমান উত্তেজনা হ্রাসের আহ্বান জানান তিনি।

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এদিন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে লিখেছেন, এবারের বৈঠক ফলপ্রসূ হয়েছে। চারটি দেশ মতৈক্যে পৌঁছেছে যে, যদি রাশিয়া সমস্যা সমাধানে কূটনৈতিক পথে না হেঁটে সংঘর্ষের দিকে আগায়, তাহলে তাকে গুরুতর পরিণতি ভোগ করতে হবে।

এদিকে, তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেপ এরদোগান বলেছেন, ইউক্রেন ও রাশিয়ার মধ্যে যুদ্ধ চান না তিনি। বৃহস্পতিবার তুরস্কে সফররত এল সালভেদরের প্রেসিডেন্ট নায়েব বুকিলের সাথে রাজধানী আঙ্কারায় এক যৌথ সংবাদ সম্মেলনে এই কথা বলেন তিনি।

তুর্কি প্রেসিডেন্ট বলেন, তুরস্ক চায় এই অঞ্চলে শান্তি ও স্থিতিশীলতা বজায় থাকুক এবং কোনো প্রকার নেতিবাচক প্রভাব না ছড়াক। রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ও ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভ্লদিমির জেলেনেস্কিকে একই টেবিলে আলোচনায় বসানোর বিষয়ে আশা প্রকাশ করেন তিনি।

এরদোগান বলেন, ‘আমরা আশা করছি জনাব পুতিন ও জেলেনেস্কিকে যত শিগগির সম্ভব একত্রে করতে পারবো এবং তাদের মুখোমুখি বৈঠকে বসাতে পারবো।’ তিনি জানান, দুই দেশের মধ্যে সম্পর্কের জট কাটানোর উদ্দেশ্যে ফেব্রুয়ারির শুরুতে ইউক্রেনে সফরে যাচ্ছেন তিনি।

সাম্প্রতিক সময়ে ইউক্রেন ও রাশিয়ার মধ্যে সম্পর্কের উত্তেজনা বিরাজ করছে। এরইমধ্যে ইউক্রেন সীমান্তে রাশিয়ার সৈন্য সমাবেশের খবর পাওয়া গেছে। ইউক্রেনের অভিযোগ, দেশটির পূর্বাঞ্চলে কিয়েভের বিরুদ্ধে লড়াইরত রুশপন্থী বিদ্রোহী যোদ্ধাদের সহায়তার নামে ইউক্রেনে আগ্রাসনের প্রস্তুতি নিচ্ছে মস্কো। সূত্র: সিআরআই, ডেইলি সাবাহ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: জার্মানি


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ