Inqilab Logo

বৃহস্পতিবার, ২৬ মে ২০২২, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২৪ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

নগরকান্দায় ৬০ বছরের পুরাতন ঘাটলায় ঘর দিলেন আ.লীগ নেতা ভাংলেন বিক্ষুব্ধ জনতা

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২২ জানুয়ারি, ২০২২, ৬:১০ পিএম | আপডেট : ৭:৪০ পিএম, ২২ জানুয়ারি, ২০২২

ফরিদপুরের নগরকান্দায় কুমার নদের পাড়ে নগরকান্দা বাজারের ড্রেন দখল করে শুক্রবার দিবাগত গভীর রাতে সরকারি জায়গায় ঘর তুলেছেন নগরকান্দা উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আক্কাছ আলী আক্কাছ। নগরকান্দা বাজারের পাশে কুমার নদের পাড়ে অনেক আগে এই জায়গায় একটি ঘাট ছিল। বর্তমানে বাজারের ড্রেনের দুই পাশে এই জায়গায় গণশৌচাগার এবং পাকা ঘাটলা নির্মাণ করা হবে বলে জানা গেছে। গভীর রাতে বাজারের সরকারি জায়গা দখলের খবর পেয়ে, শনিবার সকালে এলাকার বিক্ষুব্ধ জনতা সেই ঘর ভেঙ্গে দিয়ে সরকারি জায়গা দখলমুক্ত করেন। পরে খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন নগরকান্দা উপজেলা নির্বাহী অফিসার জেতী প্রু ও নগরকান্দা থানার ওসি হাবিল হোসেন।

নগরকান্দা বাজার বণিক সমিতির অর্থ সম্পাদক ও নগরকান্দা পৌরসভার ৭নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর জাকির হোসেন জাকারিয়া গনমাধ্যম কে বলেন শুক্রবার দিবাগত গভীর রাতে নগরকান্দা বাজারের ড্রেন ও ঘাটলা দখল করে ঘর তোলা হয়েছে। এ খবর পেয়ে শনিবার সকালে আমি ঘটনাস্থলে যাই। সেখানে গিয়ে দেখি, ড্রেন দখল করে নির্মাণ করা ঘরটি ভেঙ্গে দিয়েছে বিক্ষুব্ধ জনতা। এই জায়গায় অনেক আগে কুমার নদের ঘাট ছিল। বাজার ব্যবসায়ীদের সুবিধার্থে ড্রেনের দুই পাশের ফাকা জায়গায় পৌরসভার পক্ষ থেকে গণশৌচাগার এবং কুমার নদের পাড়ে পাকা ঘাটলা নির্মাণ করার পরিকল্পনা রয়েছে।

নগরকান্দা উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আক্কাছ আলী আক্কাছ গনমাধ্যম কেবলেন, আমি ২০১০ সালে এই জায়গার ডিসিআর নিয়েছিলাম, তবে তখন এই জায়গায় ঘর নির্মান করিনি বলে পরে ডিসিআর এর নবায়ন দেয়নি। তাই ডিসিআর এর নবায়ন পেতেই আমার ডিসিআর নেয়া জায়গায় ঘর নির্মাণ করেছি।

নগরকান্দা উপজেলা নির্বাহী অফিসার জেতী প্রু বলেন, নগরকান্দা বাজারের সরকারি জায়গা দখল করে ঘর নির্মাণের খবর পেয়ে আমি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। আমি যাওয়ার আগেই বিক্ষুব্ধ জনতা ঘর ভেঙ্গে দিয়েছে।

প্রসঙ্গতঃ কুমার নদের সাথে সংযোগী দীর্ঘ ৬০ বছর আগের পুরাতন ঘাটলা। এই ঘাটলাটিতে সকল ব্যবসায়ীরা এবং পাশের কেন্দ্রীয় মন্দিরে ধর্মীয় অনুষ্টানে আগত সকল সেবায়েত ভক্ত বৈষ্ণব ও সাধু সন্ন্যাসীরা হাত মুখ ধোয়া কাজ করতেন। এমনকি বাজারের নামাজি মুসল্লিরাও অজু গোসল করতেনএই ঘাটলাটিতে। হটাৎ করে গত শুক্রবার(২১ জানুয়ারী) দিবাগত গভীর রাতে উল্লেখিত, আওয়ামীলীগে নেতা জনস্বার্থে ব্যবহার করা সম্পুর্ন ঘাটলা ও ড্রেনের জায়গাটি দখল করে টিনসেট ঘর উওোলন করলে। এতে বাজারের শতাধিক ব্যবসায়ী এবং এলাকাবাসী একত্রিত হয়ে ঐ অবৈধ স্হাহাপনাটি শনিবার (২২জানুয়ারী) ভেঙ্গে দেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ