Inqilab Logo

রোববার, ২২ মে ২০২২, ০৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২০ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

ঐক্যবদ্ধ জাতিই সাম্রাজ্যের পতন ঘটায়

বাইডেনকে পাল্টা জবাব তালেবানের

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৩ জানুয়ারি, ২০২২, ১২:০৪ এএম

আফগানদের মধ্যে বিভাজন সম্পর্কে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের বক্তব্যকে প্রত্যাখ্যান করে অন্তর্র্বতী তালেবান সরকার শুক্রবার বলেছে, শুধুমাত্র ‘ঐক্যবদ্ধ জাতিই’ আক্রমণকারীদের বিতাড়িত করতে পারে এবং শক্তিশালী সাম্রাজ্যের পতন ঘটাতে পারে।

‘বিরোধ একটি বহিরাগত ঘটনা যা নিজেদেররকে টিকিয়ে রাখার জন্য বিদেশী হানাদারদের দ্বারা উস্কে দেয়া হয়েছিল, তবে, আফগানরা তাদের ইসলামিক বিশ্বাস, স্বদেশ এবং ইতিহাস দিয়ে হানাদারদের পরাজিত করেছে এবং এখন একটি ঐক্যবদ্ধ জাতি হওয়ার দিকে এগিয়ে যাচ্ছে,’ অন্তর্র্বতী আফগান পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র আব্দুল কাহার বলখী টুইটারে লিখেছেন। হোয়াইট হাউসে বাইডেনের সংবাদ সম্মেলনের কয়েক ঘন্টা পরে বিবৃতিটি এসেছে, যেখানে তিনি বলেছিলেন যে, ‘একক সরকারের অধীনে আফগানিস্তানকে একীভূত করা’ সম্ভব না হওয়ায় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র আফগানিস্তান থেকে বেরিয়ে গেছে। ‘এটি একটি জটিল কারণের জন্য সাম্রাজ্যের কবরস্থানে পরিণত হয়েছে, এটি ঐক্যের জন্য সংবেদনশীল নয়,’ বাইডেন বলেছিলেন।

এ বিষয়ে বালখি দাবি করেন যে, আফগানিস্তানকে ‘সাম্রাজ্যের কবরস্থান’ সম্পর্কে মার্কিন প্রেসিডেন্টের মন্তব্য ‘নিজেই আফগান ঐক্যের স্বীকারোক্তি’। তিনি বলেছিলেন যে, আফগানরা বিদেশী দখলদারিত্বের সময় পুরোপুরি একত্রিত হতে পারেনি, তবে সংখ্যাগরিষ্ঠ ‘হানাদারদের বিরুদ্ধে তাদের আইনী সংগ্রামে দৃঢ়ভাবে ঐক্যবদ্ধ ছিল’। ‘বিভক্ত নয়, শুধুমাত্র একত্রিত জাতিগুলি আক্রমণকারীদের এবং শক্তিশালী সাম্রাজ্যের পতন ঘটায়,’ বলখি বলেছিলেন। বিদেশী বাহিনী প্রত্যাহারের পর, তালেবানরা ‘সীমিত সম্পদের সাথে এবং অল্প সময়ের মধ্যে, সার্বিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করেছে, একটি কেন্দ্রীয় সরকার প্রতিষ্ঠা করেছে এবং আফগান জাতিকে ঐক্যবদ্ধ করেছে,’ তিনি যোগ করেছেন। সূত্র : ট্রিবিউন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আফগানিস্তান


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ