Inqilab Logo

বৃহস্পতিবার, ২৬ মে ২০২২, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২৪ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

‘অপহৃত’ দাবি করা সেই কিশোরের সন্ধান দিল চীনের সেনাই

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৩ জানুয়ারি, ২০২২, ৩:২১ পিএম

অবশেষে ৭২ ঘণ্টা পর হদিশ মিলল অরুণাচলের নিখোঁজ কিশোরের। চীনের সেনা তার হদিশ পেয়েছে। তাদের তরফে ভারতীয় সেনার সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছে। রোববার ভারতীয় সেনা এমনটাই জানিয়েছে।

এর আগে চীনা সেনারা ওই কিশোরকে ‘অপহরণ’ করেছে বলে দাবি করে ভারতীয় কর্মকর্তারা। অথচ সেই সেনারাই কিশোরটির সন্ধান দেয়। এরপরে রোববার ভারতীয় সেনার তেজপুরের জনসংযোগ কর্মকর্তা লেফটেন্যান্ট কর্নেল হর্ষবর্ধন পান্ডে জানান, “চীনের সেনার তরফে আমাদের জানানো হয়েছে তারা অরুণাচলের এক কিশোরের খোঁজ পেয়েছে। তাদের তরফে প্রয়োজনীয় নিয়ম পালন করা হচ্ছে।”

মিরম তারন নামের ওই ১৭ বছরের কিশোর মঙ্গলবার তার এক বন্ধুর সঙ্গে ভারত-চীন সীমান্তের লুংটা জর এলাকায় শিকারে গিয়েছিল। তখনই চীনা সেনা তাকে অপহরণ করে বলে দাবি ভারতের। মিরমের বন্ধু জনি ইয়াইং অল্পের জন্য রক্ষা পায়। জনিই বিষয়টি স্থানীয় প্রশাসনের নজরে আনে। বুধবার রাতে স্থানীয় সাংসদ তাপির গাঁও একের পর এক টুইট করে এই ঘটনার কথা প্রকাশ্যে আনেন। তার অনুরোধ, দ্রুত ভারতীয় এজেন্সিগুলি সক্রিয় হয়ে মিরম তারনকে দেশে ফিরিয়ে আনার ব্যবস্থা করুক।

কেন্দ্রের নির্দেশে তৎপর হয়ে ওঠে ভারতীয় সেনা। চীনের কাছে ঘটনার বিস্তারিত বর্ণনা দিয়ে আবেদন জানানো হয়, ওই কিশোরকে খুঁজে বের করে প্রোটোকল অনুযায়ী তাকে ভারতে ফেরানো হোক। রাতে তারই জবাব দিতে গিয়ে চীনা পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র বলেন, “বিষয়টা নিয়ে জানি না কিছু। চীনের পিপলস লিবারেশন আর্মি সবরকম আইনকানুন মেনে সীমান্ত পাহারা দেয়। কোনও অনুপ্রবেশ দেখলে তা রুখে দেয়।”

এরপর তিনি জানান, ভারতের তরফে বিষয়টি জানানোর পর তারা চীনা সেনার সঙ্গে যোগাযোগ করে তথ্য চান। তাতে যতটুকু খবর মিলেছে, তা খানিকটা এরকম – এক কিশোর ঘাসপাতা কুড়োতে সীমান্তের ওদিকে ঘোরাঘুরি করছিল, কিন্তু পথ ভুলে সে অন্যদিকে চলে গিয়েছে। পরে সেই চীনা সেনাই তাকে উদ্ধার করে। তবে এ বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য জানানো হয়নি। সূত্র: টিওআই।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: চীন-ভারত


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ