Inqilab Logo

রোববার, ২২ মে ২০২২, ০৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২০ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

জনপ্রিয় লেখক কাজী আনোয়ার হোসেনের মৃত্যুতে সামাজিক মাধ্যমে শোকের ছায়া

সোশ্যাল মিডিয়া ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৩ জানুয়ারি, ২০২২, ৮:২৭ পিএম

চলে গেলেন জনপ্রিয় লেখক, সেবা প্রকাশনীর কর্ণধার ও রহস্য পত্রিকার সম্পাদক কাজী আনোয়ার হোসেন। ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন। বুধবার বিকালে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি ইন্তেকাল করেন। জনপ্রিয় থ্রিলার সিরিজ মাসুদ রানার লেখকের মৃত্যুতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নেমে এসেছে শোকের ছায়া।

তাকে নিয়ে সাংবাদিক ও গবেষক মেহেদী হাসান পলাশ ফেইসবুকে লিখেছেন, ‘হুমায়ূন আহমেদের পর আধুনিক বাঙালি কিশোর ও তরুণদের পাঠাভ্যাস গড়ে তোলার আরেক কারিগর কাজী আনোয়ার হোসেন ইন্তেকাল করেছেন। মহান আল্লাহ তাঁকে জান্নাত নসিব করুন।’

আরশিয়া জাহিদুন লিখেছেন, ‘সেবা প্রকাশনী সবসময়ই পছন্দের ছিলো। মাসুদ রানা পড়তে অসাধারণ লাগতো। কল্পনায় যেন মাসুদ রানাকে দেখতে পেতাম। উনার লিখার মাধুর্য সত্যি অসাধারণ।’

স্মৃতিচারণ করে ফজল চৌধুরী লিখেছেন, ‘সেই ৭৮/৭৯ এর কথা, ক্লাস ৬-৮, বেশ পড়তাম, কল্পনায় পুলকে কৈশরের তখনটা রোমাঞ্চিত হতাম, কে ই বা তিনি, জানতে ইচ্ছে হতো। কৈশরের সেই সময়ের মননের গঠন ও বোঝার সক্ষমতা অর্জন করতে এ ধরনের লেখা লেখি বেশ ভূমিকা রেখেছে। কথিত যে প্রতি ১০০ বছরে কেউ একজন ব্যাক্তি, সমাজ, গোষ্ঠী ও রাষ্ট্রে কোন এক পর্যায়ে একটা ইতিবাচক ভূমিকা পালন করেন, তিনি নিভৃতে থেকে তেমনটাই করেছেন। নিভৃতচারী ছিলেন তিনি। মূলত: বিগত ২০ বছরের মিডিয়ার প্রসারে ও প্রচারের ফলে মানুষটি সকলের সামনে আসেন। তার আত্মার শান্তি কামনা করি।’

মিঠুন চক্রবর্তী লিখেছেন, ‘উনার বই মাসুদ রানা অনেক পড়েছি। খুবই ভালো লাগত। চরিত্রগুলো যেন চোখের সামনে দৃশ্যমান লাগতো।’

দুঃখ প্রকাশ করে ফাহমিদা খানম নিধি লিখেছেন, ‘তিনি ছিলেন বলেই সেবা আছে, আর সেবা আছে বলেই আমাদের বই পড়া এত মধুর হয়েছে। খবরটা জেনে মন খারাপ লাগছে।’

জুবায়েদ হোসেন লিখেছেন, ‘প্রিয় লেখক। কৈশোরটা কাটিয়েছি উনার বই পড়ে। ওপারে ভালো থাকুন এই কামনা করি।’

আশরাফুল আলম আশরাফের প্রত্যাশা, ‘পরকালে ভালো থাকুন, এই প্রত্যাশা করি।’



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ