Inqilab Logo

বৃহস্পিতবার, ১৮ আগস্ট ২০২২, ০৩ ভাদ্র ১৪২৯, ১৯ মুহাররম ১৪৪৪
শিরোনাম

শাবি ভিসির বক্তব্য লজ্জাজনক

জাতীয় প্রেসক্লাবে মান্না

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৪ জানুয়ারি, ২০২২, ১২:০২ এএম

নাগরিক ঐক্যের সভাপতি মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা অনশন ধর্মঘট করছে। তারা যে লড়াই করছে কিসের জন্য? তারা তাদের অধিকার আদায়ে লড়াই করছে, অনশন করছে। তারা এখনি বড় কিছু চায়নি। তারা শেখ হাসিনার পদত্যাগ চায়নি, সরকারের পদত্যাগ চায়নি, ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসির পদত্যাগ চায়। অথচ ভিসি বলছেন, আমি পদত্যাগ করবো যদি সরকার থেকে অনুমতি পাই। কি লজ্জার কথা? এটাই তার ভিসি হওয়ার যোগ্যতা।
জাতীয় প্রেসক্লাবের কনফারেন্স লাউঞ্জে গতকাল এক স্মরণসভায় তিনি এ কথা বলেন। শহীদ আসাদ স্মরণে এক আলোচনা সভার আয়োজন করে শহীদ আসাদ পরিষদ।

মান্না বলেন, কোনো বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসির ক্ষমতা নাই সরকারের অনুমতি ব্যাতিরেখে পদত্যাগ করতে। ওইখানে যদি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্ররা তার অসাদাচরণের কারণে, তার দুর্নীতির কারণে তাকে পথের মধ্যে, রোদের মধ্যে দাঁড় করিয়ে রাখেন ২৪ ঘণ্টা, তারপরেও তিনি বলতে পারেন না আমি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি থাকতে পারবো না। এতোই দাসের দাস।

মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, শিক্ষাকে কোথায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে? আমাদের এখানে তিনটা থার্ড ডিভিশন, তিনটা থার্ড ক্লাস পাবার পরেও বিশ্ববিদ্যালয়ের চাকরি পাচ্ছেন, ইউনিভার্সিটির শিক্ষক হচ্ছেন। এই সচিবালয়ে ঢুকে দেখেন সচিবালয়ে সচিব আছেন যিনি তিনটা থার্ড ক্লাস পেয়েছেন। মেধার কী কোনো বিকল্প আছে? যার যেখানে যোগ্যতা তিনি সেখানে যাবেন তবেই তো দেশ বলেন, সমাজ বলেন রাষ্ট্র বলেন সেটা গড়ে উঠবে। না হলে তো হবে না।

নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক বলেন, আমি যদি ক্ষমতায় যাই তাহলে প্রতি মাসে দেশের ৬ কোটি মানুষকে ১ হাজার করে টাকা দেব। দরিদ্র মানুষকে বিনা পয়সায় চিকিৎসার ব্যবস্থা করবো। শিক্ষার্থীদের জন্য ভাতা ঘোষণা করবো। শিক্ষা, চিকিৎসা ও স্বাস্থ্য ব্যবস্থাকে প্রত্যন্ত অঞ্চলের মানুষের কাছে পৌঁছে দেওয়ার উদ্যোগ নেব। পরিবর্তন চাই, পরিবর্তনের জন্যই রাজনীতি, নাহলে রাজনীতি করছি কেন?।
সরকারের সমালোচনা করে ডাকসুর সাবেক ভিপি বলেন, কতিপয় সুবিধাবাদী ছাড়া একজন লোকও নেই যারা সরকারের পক্ষে কথা বলে। যার বড় প্রমাণ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র নিষেধাজ্ঞা দেয় আর এদেশের মানুষ খুশি হয়। মানুষের ভাষ্য এতো কিছু হচ্ছে তবুও এরা (সরকার) যাচ্ছে না কেন?

বিএনপির সমালোচনা তিনি বলেন, ক্ষমতায় যেতে চান ভালো কথা, কিন্তু ক্ষমতায় গেলে দেশ ও মানুষের জন্য কী করবেন, করতে চান সেই বিষয়টা স্পষ্ট করে তুলে ধরুন। বিএনপিকে বন্ধু ভাবতে চাই, অন্য কোনো রাজনৈতিক দলের সঙ্গেও আমার শত্রুতা নেই। শুধু সভা সেমিনারে বলবেন অথচ একবারও ফোন দিয়ে তো বলেন না আসেন কিংবা আসছি কথা বলি? আসুন লুটেরা সরকারকে সরাতে চাই, বাতাস তৈরি হয়েছে।
আসাদ পরিষদের আহ্বায়ক অধ্যাপক মাহবুবউল্লাহর সভাপতিত্বে ও ডাকসুর সাবেক জিএস খায়রুল কবির খোকনের পরিচালনায় আলোচনা সভায় বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শওকত মাহমুদ, নির্বাহী কমিটির সদস্য জহির উদ্দিন স্বপন, সাবেক ছাত্র নেতা মনিরুজ্জামান প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ