Inqilab Logo

শুক্রবার, ২০ মে ২০২২, ০৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৮ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

পাট ও পাটজাত পণ্যের রফতানি কমল

অর্থনৈতিক রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৫ জানুয়ারি, ২০২২, ১২:০৬ এএম

আবার কমছে পাটজাত পণ্য রফতানি। করোনাকালে পরিবেশবান্ধব পণ্যের চাহিদার সময়েও অর্থ বছরের প্রথম ছয়মাসে রফতানি আয় কমেছে প্রায় ১২ শতাংশ। রফতানিকারকরা বলছেন, মধ্যস্বত্বভোগীরা মজুদ করে পাটের দাম বাড়িয়েছে, ফলে পণ্যের দাম বাড়ায় তাদের বাজার মন্দা। তবে এ সময়ে কাঁচা পাটের রফতানি ছিলো ভালো।

দেশে রফতানির দ্বিতীয় খাত পাট ও পাটজাত পণ্য। পরিবেশবান্ধব বলে করোনাকালীন সময় পাট ও পাট পণ্যের ব্যবহার বাড়ে, তাই গেলো অর্থ বছরে পাট ও পাট পণ্যের রফতানি বেশি ছিল। তবে, রফতানি উন্নয়ন ব্যুরোর পরিসংখ্যান বলছে গেলো অর্থ বছরের ছয় মাসের তুলনায় চলতি অর্থ বছরের একই সময়ে ৭৮ মিলিয়ন কমে রফতানি হয় ৫শ’ ৯০ মিলিয়ন ডলারের পাট পণ্য। যদিও এ সময়ে কাঁচা পাটের রফতানি বেড়েছে ৪১ শতাংশ। রফতানিকারকদের দাবি, মধ্যস্বত্বভোগীরা মজুদ করে পাটের দাম প্রতি মণে বাড়িয়েছে তিন থেকে চার হাজার টাকা। বাংলাদেশ জুট অ্যাসোসিয়েশনের সাবেক চেয়ারম্যান মোহাম্মদ রেজাউল করিম মনে করেন, এভাবে পাটের দাম বাড়ানো না হলে রফতানি বাড়তো।
এদিকে পাটজাত পণ্য এবং পাটের তৈরি সুতা ও বস্তার রফতানি চলতি অর্থ বছরের ছয় মাসে কমেছে আশঙ্কাজনক। অথচ পরিবেশবান্ধব বলে করোনায় এর চাহিদা বেড়েছে বিশ্বব্যাপী। এখানেও রফতানিকারকরা দোষ চাপাচ্ছেন মধ্যস্বত্বভোগীদের ওপর। তারা জানান, চড়া দামে পাট কিনে সেটা দিয়ে পণ্য তৈরির পর রফতানি করা প্রায় অসম্ভব।
বাংলাদেশ বহুমুখী পাট পণ্য উৎপাদক ও রফতানিকারক সমিতির আহবায়ক রাশেদুল করিম মুন্না বলেন, একদিকে পাটের দাম বাড়তি, অন্যদিকে জাহাজ ও কন্টেইনার সঙ্কট রফতানি কমেছে।

তারা বলছেন, বছরে দেশে পাটের উৎপাদন ৭০-৮০ লাখ বেল। তবে, মধ্যস্বত্বভোগীদের দৌরাত্বে কৃষকরা যেমন পাটের দাম পায়না, তেমনি চাড়া দামের কারণে ক্ষতিতে পড়ে রফতানিও।



 

Show all comments
  • Shohaghossain ২৫ জানুয়ারি, ২০২২, ৭:৪২ পিএম says : 0
    পাটজাতপণ্য ও সুতার দামের চেয়ে কাচাপাটের দাম বেশী বলেই রপ্তানী কম হয়েছে।তবে কাচাপাটৈর রপ্তানী 41 শতাঙশ বেশী হয়েছে।তাহলে কাচাপাট রপ্তানী আরো সহজ করা হোক।কারন একি দামে কাচাপাটে যদি অন্যদের লাভ হয় আমাদের মিলারদের কেন হবেনা।অন্যরাওতো পন্যতৈরী করেই বিক্রি করে আন্তজাতিক বাজারে।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: পাট ও পাটজাত পণ্যের রফতানি কমল
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ