Inqilab Logo

মঙ্গলবার, ১৭ মে ২০২২, ০৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৫ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

শিমুলিয়া নৌ-রুটে লঞ্চ-ট্রলারে ধাক্কার ঘটনায় লঞ্চের চালক ও সহকারীদের মারধর

লৌহজং (মুন্সীগঞ্জ) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২৪ জানুয়ারি, ২০২২, ১১:১৬ পিএম

মুন্সীগঞ্জের লৌহজংয়ে শিমুলিয়া নৌ-রুটে লঞ্চ-ট্রলারে ধাক্কার লাগার ঘটনায় লঞ্চের চালক ও সহকারীদের মারধরের অভিযোগ উঠেছে। আজ সোমবার (২৪ জানুয়ারি) সন্ধ্যা ৬টার দিকে শিমুলিয়া লঞ্চ ঘাট থেকে এমভি সুতারপাড় নামের একটি লঞ্চ যাত্রী নিয়ে মাদারীপুরের শিবচরের বাংলাবাজার ঘাটের উদ্দেশ্যে যাওয়ার সময় লঞ্চটি পিছনের দিকে ঘুরার সময় একটি ট্রলারে ধাক্কা লাগে। এতে ট্রলারটির বডির কিছুটা ক্ষতি সাধন হলে ট্রলার চালক রুবেল হেসেন (৩৪) ক্ষুব্ধ হয়ে অন্য ১৫-২০ জন ট্রলার চালকদের নিয়ে মাঝনদীতে গিয়ে লঞ্চটি জব্দ করে শিমুলিয়া ঘাটে নিয়ে আসে এবং লঞ্চের মাস্টার মো. আলী ও তার সহকারী ছলিমুদ্দিন শেখকে মারধর করে। এ ঘটনা নিশ্চিত করেছেন বিআইডব্লিউটিএ শিমুলিয়া কার্যালয়ের ট্রাফিক ইন্সপেক্টর (লঞ্চ) সোলায়মান হোসেন।

তিনি আরও জানান লঞ্চের চালক ও সহকারীকে মারধরের ঘটনায় লঞ্চের যাত্রীরা এতে আতঙ্কিত হয়ে ৯৯৯-এ কল করলে পরে মাওয়া নৌ পুলিশ দ্রুত উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে এবং ট্রলার চালকদের আটক করে। নৌপুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে অজ্ঞাত ব্যক্তিরা পালিয়ে যায়। মাওয়া নৌপুলিশ স্টেশনের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আবু তাহের জানান, অজ্ঞাত পলাতক ব্যক্তিরা ট্রলার ঘাটের ইজারাদার হানিফ মাদবরের লোক বলে জানা গেছে। দুই পক্ষের মধ্যে মিমাংসা ব্যর্থ হলে নৌপুলিশ মামলা করবে বলে জানানো হয়।

বিআইডব্লিউটিএর শিমুলিয়া বন্দর কর্মকর্তা সহকারী পরিচালক মো. শাহাদাত হোসেন জানান, আগামীকাল (মঙ্গলবার) দুই পক্ষের সাথে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করা হবে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ