Inqilab Logo

বুধবার, ২৫ মে ২০২২, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২৩ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

প্রতারণার অভিযোগে কুমিল্লার ফরিদ সাতক্ষীরায় গ্রেপ্তার

সাতক্ষীরা জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২৬ জানুয়ারি, ২০২২, ৩:৫৩ পিএম

দিব্যি সুস্থ। তারপরও কিডনি নষ্টের কথা বলে বিভিন্ন মসজিদে নামাজ আদায়ের পর সাহায্য চেয়ে মাসে মোটা টাকা রোজগার করেন কুমিল্লার ফরিদ। পুলিশের তল্লাসিতে তার ব্যাগে পাওয়া গেলো লক্ষাধিক টাকা। ফরিদ উদ্দীন (৫২) এর বাড়ি কুমিল্লা জেলার কোতোয়ালি থানার বলেশ্বরী গ্রামে।

জানা গেছে, লোকটি গত কয়েকদিন ধরে সাতক্ষীরা শহরের বিভিন্ন মসজিদে গিয়ে তার একটি কিডনি নষ্ট হয়ে গিয়েছে বলে সাহায্যের আবেদন করেন।
সাতক্ষীরা শহরের একটি বেসরকারি হাসপাতালের পরিচালক জাহিদুল ইসলাম জাহিদ সাংবাদিকদের জানান, গত মঙ্গলবার (২৫ জানুয়ারি) সাতক্ষীরা শহরের পলাশপোল মসজিদে আসরের নামাজ শেষে ঈমাম সাহেবের আহবানকে শ্রদ্ধা রেখে তাকে কিছু টাকা দান করি। মসজিদের অন্যান্য মুসল্লিরাও দান করেন। এশার নামাজে ওই একই ব্যক্তি শহরের আহ্ছানিয়া জামে মসজিদের ঈমাম সাহেবের অনুমতি ছাড়াই নামাজ শেষ হতে না হতেই নিজে দাঁড়িয়ে সাহায্যের আবেদন করেন।

তাতে মুসল্লীগণ বিরক্ত হলেও তাকে কিছু বলেননি। আমিও বাকি নামাজ শেষে বাইরে এসে ওনাকে প্রশ্ন করি আপনার কি সমস্যা? তিনি জানালেন, তার একটা কিডনি নষ্ট। আমি ওনাকে বললাম, কালেকশন শেষে আমার হাসপাতালে আসেন আপনাকে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হবে। ওনার পাশে আমার হাসপাতালের একজন ওয়ার্ড বয়কে দাঁড় করিয়ে দিই। কিছুক্ষণ পরে ওনাকে হাসপাতালে আনলে আমি আমার প্যাথলজি ল্যাবে পাঠাই।

এসময় সুস্থ আছেন বলে ফরিদ টেস্ট করতে অসম্মতি জানান এবং আমাকে গালমন্দ করতে থাকেন। তাকে পুলিশে দিতে চাইলে তিনি চরম উত্তেজিত হয়ে যান। আমার সন্দেহ আরো ঘণীভূত হয়। অবশেষে জাতীয় সেবার ৯৯৯ নাম্বারে ফোন দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করা হয় রাতেই।

তিনি আরো জানান, সাতক্ষীরা সদর থানা পুলিশ তার ব্যাগ তল্লাশি করে লক্ষাধিক টাকা উদ্ধার করেন।
সদর থানার ওসি গোলাম কবীর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: গ্রেফতার


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ