Inqilab Logo

শুক্রবার, ২০ মে ২০২২, ০৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৮ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

অভিনব প্রতারণায় সাত জেলায় সাত বিয়ে করা যুবক র‌্যাবের হাতে গ্রেফতার

কুমিল্লা থেকে স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৬ জানুয়ারি, ২০২২, ৭:৫৪ পিএম

ত্রিশ বছর বয়সী যুবক শাকিল আজাদ। কুমিল্লার বরুড়া উপজেলার বাসিন্দা। নিজেকে প্রবাসী পরিচয় দিয়ে কুমিল্লাসহ সাত জেলায় সাতটি বিয়ে করে শ্বশুরবাড়ি এলাকার লোকজনকে বিদেশ নিয়ে যাওয়ার প্রলোভনে ফেলে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে এ যুবককে অবশেষে গ্রেফতার করেছে কুমিল্লা র‌্যাবের একটি টিম।

অভিনব প্রতারণার মাধ্যমে বিয়ে ও পরে লোকজনের কাছ থেকে বিদেশ পাঠানোর নামে অর্থ হাতিয়ে নেওয়া যুবক শাকিল আজাদকে মঙ্গলবার রাতে গ্রেফতারের পর বুধবার কুমিল্লা নগরীর শাকতলায় র‌্যাব কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাব-১১ এর কোম্পানি কমান্ডার মেজর মোহাম্মদ সাকিব হোসেন জানান, ভুক্তভোগীদের অভিযোগের ভিত্তিতে কুমিল্লা সদর দক্ষিণ উপজেলার পদুয়ার বাজার বিশ্বরোড এলাকা থেকে শাকিল আজাদ নামের ওই যুবককে গ্রেফতার করে র‌্যাব। এ সময় তার কাছ থেকে ৭ টি পাসপোর্ট জব্দ করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে মেজর সাকিব জানান, প্রতারণার মাধ্যম হিসেবে বিয়েকে বেছে নেয় ওই যুবক। যেখানে বিয়ে করেন ওইখানে নিজেকে পরিচয় দেন কাতার প্রবাসী। ওইসব এলাকার বেকার যুবকদের কাতারে নেয়ার কথা বলে হাতিয়ে হাতিয়ে নিত লাখ লাখ টাকা। গ্রেফতার শাকিল আজাদ প্রতারণার মাধ্যমে কুমিল্লা, চট্টগ্রাম, রাজশাহী, খুলনা, রংপুর, নীলফামারী ও ফরিদপুরে বিয়ে করেন। শাকিল আজাদ প্রথমে বিভিন্ন এলাকায় গিয়ে প্রথমে ওই এলাকার গরীব পরিবার খোঁজেন। তারপর সেই পরিবারে যদি বিয়ে উপযুক্ত কোন মেয়ে থাকে তাহলে ওই পরিবারকে অসহায়ত্বের ফাঁদে ফেলে। তাদের মেয়েকে বিয়ে করবেন। পরে ওই এলাকার বিভিন্ন মসজিদ মাদরাসায় দান খয়রাত করেন। নিজেকে পরিচয় দেন কাতার প্রবাসী।

মেজর সাকিব জানান, প্রতারক ওই যুবক তারপর শ্বশুরবাড়ির এলাকার বেকার যুবকদের কাতার পাঠানোর কথা বলে টাকা পয়সা হাতিয়ে উধাও হয়ে যেতেন। পরে প্রতারণার শিকার বেকার যুবকরা তার শ্বশুরবাড়ি গিয়ে টাকার জন্য চাপ দিত। এমন ঘটনায় একদিকে অসহায় পরিবারটি মেয়েকে নিয়ে দুশ্চিন্তায় আরেকদিকে প্রতারিতদের টাকা ফেরতের চাপে দুর্বিষহ জীবনের মুখে পড়তেন।

সংবাদ সম্মেলনে মেজর সাকিব আরও বলেন, প্রতারক শাকিল আজদ ২০১৮ সালে একই কায়দায় চতুর্থ বিয়ে করে খুলনায়। বিয়ের পর বিদেশ পাঠানোর নামে ওই এলাকার বেশ কিছু যুবক থেকে কয়েক লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়ে লাপাত্তা হয় শাকিল। পরে প্রতারিত যুবকদের রোষানলে পড়ে অসহায় ওই পরিবারটি এলাকা ছাড়তে বাধ্য হন। গত ১৫ দিন আগে
শাকিল আজাদের চতুর্থ স্ত্রী কুমিল্লা র‌্যাব অফিসে বিস্তারিত লিখে অভিযোগ দায়ের করেন। এরপরই তাকে গ্রেফতার করা হয়।

মেজর সাকিব আরো জানান, বিভিন্ন অভিযোগের প্রেক্ষিতে ইমিগ্রেশন কর্তৃপক্ষ শাকিল আজাদের পাসপোর্ট বাতিল করেছে। তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা শেষে বুধবার দুপুরে বরুড়া থানায় হস্তান্তর করা হয়।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: কুমিল্লা

১২ ফেব্রুয়ারি, ২০২২
১২ ফেব্রুয়ারি, ২০২২

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ