Inqilab Logo

শুক্রবার, ২০ মে ২০২২, ০৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৮ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

কানাডায় ফের গণকবরের সন্ধান

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৭ জানুয়ারি, ২০২২, ২:০৩ পিএম

কানাডায় আবারও একটি গণকবরের সন্ধান পাওয়া গেছে। উত্তর আমেরিকার এই দেশটির পশ্চিমাঞ্চলীয় প্রদেশ ব্রিটিশ কলাম্বিয়ার সাবেক একটি আবাসিক স্কুলে খোঁজ পাওয়া গেছে প্রায় ১০০টি আদিবাসী শিশুর কবর। এর আগেও কানাডায় এ ধরনের শত শত কবরের সন্ধান পাওয়া গিয়েছিল।
উইলিয়ামস লেক ফার্স্ট নেশন নামে একটি সংগঠনের বরাত দিয়ে গত মঙ্গলবার (২৫ জানুয়ারি) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আলজাজিরা।
উইলিয়ামস লেক ফার্স্ট নেশন মূলত কানাডার ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীদের সংগঠন। গত সোমবার তারা জানায়, কানাডার পশ্চিমাঞ্চলীয় প্রদেশ ব্রিটিশ কলাম্বিয়ার সেন্ট জোসেফ মিশন রেসিডেনশিয়াল স্কুল নামে সাবেক একটি আবাসিক স্কুলের প্রাঙ্গণে ৯৩টি কবরের সন্ধান পাওয়া গেছে। এসব কবর থেকে উদ্ধার হওয়া দেহাবশেষ দেশটির আদিবাসী রেড ইন্ডিয়ান শিশুদের বলে ধারণা করা হচ্ছে।
মূল আদিবাসীদের দমন করে কানাডায় বসতি স্থাপনকারীরা আদিবাসী এসব শিশুকে নির্মমভাবে হত্যার পর সেখানে তাদেরকে গণকবর দিয়েছিল বলে জানা গেছে। কানাডার আবাসিক স্কুলগুলোতে বোর্ডিং আবশ্যিক ছিল। ঊনবিংশ ও বিংশ শতকে সরকার ও ধর্মীয় কর্তৃপক্ষ এসব স্কুল পরিচালনা করত। সেসময় এসব স্কুলে জোর করে আদিবাসী কিশোর-তরুণদের রাখা হতো।
১৯৬৯ সালে কানাডার কেন্দ্রীয় সরকার স্কুলটির নিয়ন্ত্রণ নেয়। ১৯৭৮ সালে বন্ধ হওয়ার আগপর্যন্ত স্থানীয় শিক্ষার্থীদের জন্য আবাসিক স্কুল হিসেবে এটি পরিচালিত হয়েছে।
এদিকে আবাসিক স্কুল থেকে সম্ভাব্য নতুন গণকবরের খোঁজ পাওয়াকে খুবই কষ্টদায়ক অনুভূতি হিসেবে উল্লেখ করেছেন কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো। তিনি বলেন, সংশ্লিষ্ট সম্প্রদায় ও প্রিয়জন হারানো মানুষের দুঃখে আমার হৃদয় ব্যথিত।
কানাডায় প্রথম আদিবাসী গণকবরের সন্ধান মেলে গত বছরের ২৯ মে। দেশটির ব্রিটিশ কলাম্বিয়া প্রদেশের কামলুপস এলাকার একটি পরিত্যাক্ত আবাসিক স্কুল থেকে ২১৫ জন আদিবাসী শিশুর দেহাবশেষ উদ্ধার হয় ওই দিন। দেহাবশেষগুলোর মধ্যে ৩ বছর বয়সী শিশুর দেহাবশেষও ছিল।
এ ঘটনায় তোলপাড় শুরু হয় দেশটিতে। এরপর জুন মাসে একে একে কানাডার সাসকাচুয়ান, অ্যালবার্টা, মানিতোবা ও ব্রিটিশ কলাম্বিয়া প্রদেশে আরও কয়েক শ’ গণকবরের সন্ধান পাওয়া যায়।
দেশটির আদিবাসী নেতারা গত জুলাই মাসের মাঝামাঝি সময় পর্যন্ত কানাডায় ৮ শতাধিক আদিবাসী গণকবরের সন্ধান পাওয়ার কথা জানিয়েছিলেন। প্রাথমিক অনুসন্ধানে সেসময় হয়েছিল, এসব অঞ্চলের আদিবাসী জাতিগোষ্ঠীর মানুষ-জনকে হত্যার পর এই গণকবরগুলোতে তাদের মাটিচাপা দেওয়া হয়েছিল।
সেসময় কানাডার আদিবাসী অধিকার সংস্থা ফেডারেশন অব সোভেরিন ইন্ডিজেনাস নেশনস দেশটির সরকারের কাছে আরও বিস্তৃত অনুসন্ধানের দাবি জানিয়েছিল। সংস্থাটি দাবি করেছিল, সঠিকভাবে অনুসন্ধান করা হলে কানাডাজুড়ে এমন আরও বহু গণকবরের সন্ধান পাওয়া যাবে। সূত্র : আল-জাজিরা



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: কানাডা


আরও
আরও পড়ুন