Inqilab Logo

রোববার, ২২ মে ২০২২, ০৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২০ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

ইতালির ৯৬ শতাংশ করোনা রোগীই ওমিক্রনে আক্রান্ত

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৮ জানুয়ারি, ২০২২, ৯:২৯ পিএম

ইতালির বর্তমান করোনা রোগীদের ৯৬ শতাংশই এই ভাইরাসটির সবচেয়ে সংক্রামক রূপান্তরিত ধরন ওমিক্রনে আক্রান্ত। গত ১৭ জানুয়ারি দেশটির জাতীয় স্বাস্থ্যসেবা দফতর ন্যাশনাল হেলথ ইনস্টিটিউটের (আইএসএস) সর্বশেষ জরিপে এসেছে এ তথ্য।
শুক্রবার এক বিবৃতিতে আইএসএসের পক্ষ থেকে বলা হয়, ‘গত ১৭ জানুয়ারি, আমাদের সর্বশেষ জরিপে দেখা গেছে- এই মুহূর্তে ইতালির করোনা রোগীদের ৯৫ দশমিক ৮ শতাংশই ওমিক্রনে আক্রান্ত, বাকি ৪ দশমিক ২ শতাংশ আক্রান্ত ডেল্টায়।’
এর আগের আইএসএস জরিপটি হয়েছিল গত ৩ জানুয়ারি। সেখানে দেখা গিয়েছিল মোট করোনা রোগীর ৮১ শতাংশ ওমিক্রনে আক্রান্ত।
ইতালির ২০টি প্রদেশের সবগুলোর করোনা সংক্রমণের তথ্য বিশ্লেষণ করে এই তথ্য জানা গেছে বলে বিবৃতিতে জানিয়েছে আইএসএস।
গত বছর ২৪ নভেম্বর দক্ষিণ আফ্রিকায় প্রথম শনাক্ত হয় ওমিক্রন, যা ইতোমধ্যে করোনাভাইরাসের সবচেয়ে সংক্রামক রূপান্তরিত ধরনের স্বীকৃতি পেয়েছে। বৈজ্ঞানিক গবেষণায় দেখা গেছে, মূল করোনাভাইরাসের চেয়ে ৭০ গুণ দ্রুত গতিতে ছড়িয়ে পড়া ও বংশবিস্তারে সক্ষম ওমিক্রন।
চলতি সপ্তাহে এক প্রতিবেদনে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) জানিয়েছে, বর্তমানে বিশ্বের মোট করোনা রোগীর ৮৯ দশমিক ১ শতাংশ ওমিক্রনে আক্রান্ত, অন্যদিকে এই ভাইরাসটির অপর ধরন ডেল্টায় আক্রান্ত রোগীর শতকরা পরিমাণ ১০ দশমিক ৭ শতাংশ।
ইউরোপের ২৮ টি দেশের মধ্যে ইতালিতেই সর্বপ্রথম শনাক্ত হয়েছিল করোনায় আক্রান্ত রোগী। সরকারি তথ্য অনুযায়ী, ২০২০ সালে মহামারি শুরুর পর থেকে এ পর্যন্ত ইতালিতে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন মোট ১ কোটি ৫ লাখ ৩৯ হাজার ৬০১ জন এবং এ রোগে মৃত্যু হয়েছে ১ লাখ ৪৫ হাজার ১৫৯ জনের।
ওমিক্রনের প্রভাবে ইউরোপের অন্যান্য দেশের মতো ইতালিতেও সম্প্রতি উল্লম্ফন ঘটেছে দৈনিক সংক্রমণে। বৃহস্পতিবার দেশটিতে করোনা পজিটিভ হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন ১ লাখ ৫৫ হাজার ৬৯৭ জন এবং এ রোগে এই দিন সেখানে মারা গেছেন ৩৮৯ জন। সূত্র: রয়টার্স



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: করোনাভাইরাস


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ