Inqilab Logo

রোববার, ০৩ জুলাই ২০২২, ১৯ আষাঢ় ১৪২৯, ০৩ যিলহজ ১৪৪৩ হিজরী

তালেবানের সাহায্য পাওয়া গর্ভবতী সাংবাদিককে জবাব দিল নিউজিল্যান্ড

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৩১ জানুয়ারি, ২০২২, ৭:১৩ পিএম

সম্প্রতি নিউজিল্যান্ডের একজন গর্ভবতী সাংবাদিক তার নিজের দেশে ফিরে যাওয়ার অনুমতি চেয়ে প্রত্যাখ্যাত হয়েছেন। এর পরে বাধ্য হয়ে তিনি তালেবানের কাছে সাহায্য প্রার্থনা করেন। এ ঘটনায় সমালোচনা শুরু হওয়ার পরে আত্মপক্ষ সমর্থন করে বিবৃতি দিয়েছে নিউজিল্যান্ড।

নিউজিল্যান্ডে এমআইকিউ নামে পরিচিত কঠোর পৃথকীকরণ ব্যবস্থার কারণেই শার্লট বেলিস নামের ওই নারী সাংবাদিককে দেশে ফেরার অনুমতি দেয়নি। এ বিষয়ে নিউজিল্যান্ডের কোভিড-১৯ বিষয়ক মন্ত্রী ক্রিস হিপকিন্স বলেছেন যে, শার্লট বেলিসের মতো ‘বিশেষ পরিস্থিতিযুক্ত ব্যক্তিদের’ জন্য একটি জায়গা রয়েছে।

বেলিসের দেশে ফেরার আবেদন বাতিল হয়েছে- কারণ, সরকারের নিয়মমাফিক বিদেশে থাকাকালীন আবেদন করার ১৪ দিনের মেয়াদ উত্তীর্ণ হয়ে গেছে। নিউ জিল্যান্ডের ‘ম্যানেজড আইসোলেশন এন্ড কোয়ারেন্টিন সিস্টেম’ এর যুগ্ম প্রধান ক্রিস বানি হেরাল্ড সেকথাই বেলিসকে জানিয়েছেন। বেলিসকে ১৪ দিনের মধ্যে আবার আবেদন করতে বলা হয়েছে বলেও জানিয়েছেন বানি। এদিকে বেলিস বলছেন, কাবুল থেকে ফ্লাইটের অপ্রতুলতার কারণেই তার দেশে ফেরার জন্য আবেদনের মেয়াদ পেরিয়ে গেছে।

বেলিসের আটকা পড়ার এই ঘটনায় নিউ জিল্যান্ডের কঠোর কোভিডবিধি এবং সীমান্ত কড়াকড়ি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে উত্তপ্ত বিতর্ক শুরু হয়েছে। কেউ কেউ বেলিসের ঘটনাটিকে আমলাতান্ত্রিক নিষ্ঠুরতার উদাহরণ বলে বর্ণনা করেছেন। আবার কেউ কেউ এই ব্যবস্থার পক্ষেও কথা বলেছেন। সূত্র: দ্য গার্ডিয়ান।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: নিউজিল্যান্ড

৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২২

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ