Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৭ আশ্বিন ১৪২৫, ১১ মুহাররাম ১৪৪০ হিজরী‌

স্বদেশে চলছে বিরোধীদের দমন ও লড়াকু পররাষ্ট্রনীতি এরদোগানের

প্রকাশের সময় : ২ নভেম্বর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

ইনকিলাব ডেস্ক : ব্যর্থ অভ্যুত্থানের পর গত সাড়ে তিন মাসে তুরস্ক ১ লাখ ১০ হাজার লোককে চাকরিচ্যুত বা সাময়িক বরখাস্ত করেছে, সিরিয়ায় সামরিক অভিযান চালিয়েছে এবং ইরাকেও চালানোর বারবার হুমকি দিয়েছে।
প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়েব এরদোগান তুর্কি অটোম্যানদের অতীত গৌরবের আহ্বান জানিয়ে সমর্থকদের উল্লাসের মধ্যে তুরস্কে ব্যর্থ অভ্যুত্থানের জন্য তিনি যাকে দায়ী করেন সেই প্রবাসী তুর্কি ধর্মীয় নেতার অনুসারীদের থেকে শুরু করে কুর্দি জঙ্গি ও ইসলামিক স্টেটের (আইএস) জিহাদিদের তথা ঘরে ও বাইরের শত্রুদের নির্মূল করার শপথ ব্যক্ত করেছেন। খবর রয়টারস।
স্বদেশে নজিরবিহীন দমন ও বিশ্বমঞ্চে তার লড়াকু অবস্থান পশ্চিমা দেশগুলো ও তার কিছু আঞ্চলিক মিত্রকে উদ্বিগ্ন করে তুলেছে। তাদের আশঙ্কা যে, ন্যাটো সদস্য ও ইইউর সদস্যপদ প্রার্থী দেশটি ক্রমেই এমন এক অংশীদার হয়ে উঠছে যার সম্পর্কে আগে থেকে কিছুই বলা যায় না এবং তা এমন এক দেশ যার কাছ থেকে সুবিধা পাওয়া ক্রমেই কমছে।
সর্বশেষ শুদ্ধি অভিযানে পুলিশ সোমবার এরদোগানের এখনো সমালোচনাকারী সংবাদপত্র জমহুরিয়াতের সম্পাদক ও সিনিয়র স্টাফদের গত জুলাইয়ের ব্যর্থ অভ্যুত্থানে কথিত সমর্থনের অভিযোগে আটক করেছে। ইইউর একজন সিনিয়র রাজনীতিক একে মত প্রকাশের স্বাধীনতার বিরুদ্ধে রেডলাইন অতিক্রম বলে আখ্যায়িত করেছেন। অন্যদিকে মার্কিন পররাষ্ট্র দফতর তাদের গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছে।
এরদোগান দেশপ্রেমের ঢেউয়ের মাথায় আরোহণ করেছেন। তার প্রতিষ্ঠিত ক্ষমতাসীন এ কে পার্টি তুরস্কে সম্পূর্ণ প্রেসিডেন্ট পদ্ধতি চালু করতে সাংবিধানিক পরিবর্তন চাইছে, যা তাকে ব্যাপক নির্বাহী ক্ষমতা দেবে।
সাবেক তুর্কি কূটনীতিক ও কার্নেগি ইউরোপের এক বিশ্লেষক সিনান উলজেন বলেন, দেশের অভ্যন্তরে ও তুরস্কের পররাষ্ট্রনীতির ক্ষেত্রে যা ঘটছে তা হচ্ছে একেপির ভিত্তি ও জাতীয়তাবাদীদের মধ্যে জোটকে সংহত করার একটি রাজনৈতিক কৌশল।
রয়টারসকে তিনি বলেন, এ জোট কুর্দি বিষয়ে কঠোর নীতি অনুসরণ করতে আগ্রহী ও মৃত্যুদ- পুনর্বহালের পক্ষে। আমরা আসলে বলতে পারি না যে, তারা মতপ্রকাশের স্বাধীনতা রক্ষা ও মিডিয়াকে খুব সম্মান করে।
দেশে ও বিদেশে তুর্কি নীতি পরিবর্তনের কোনো লক্ষণ দেখা যাচ্ছে না। এরদোগান ও তার ক্ষমতাসীন দল একটি গণভোটের মাধ্যমে সংবিধানের পরিবর্তন করতে চায়। সে জন্য জাতীয়তাবাদীদের সমর্থন নিশ্চিত করা প্রয়োজন। আগামী বসন্তে এ গণভোট অনুষ্ঠিত হতে পারে বলে একেপি কর্মকর্তারা জানান।
জাতীয়তাবাদী এমএইচপি হচ্ছে বিরোধী দল। ব্যর্থ অভ্যুত্থানের সময় থেকে তার প্রচ- স্বদেশপ্রেমী সদস্যদের অনেকেই এরদোগানের অবস্থানের সমর্থক। একেপি যদি প্রেসিডেন্ট ব্যবস্থা প্রবর্তনে গণভোটের প্রতি সমর্থন চায় তাহলে তারা পার্লামেন্টে সমর্থন দিতে পারেন বলে আভাস দেন।
আরো ১০ হাজার আমলাকে চাকরি থেকে বরখাস্ত ও ১৫টি মিডিয়া বন্ধ করার একদিন পর জমহুরিয়াতের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়। দেশে যখন শুদ্ধি অভিযান অব্যাহত রয়েছে তখন পররাষ্ট্রনীতি বিষয়ে কড়া কথাবার্তা তাৎক্ষণিকভাবে বাস্তবায়ন করা নাও হতে পারে।
এরদোগান এ মাসে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন, বিদেশে থাকা শত্রুদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে ছুরির ডগা হাড় স্পর্শ করা পর্যন্ত তুরস্ক অপেক্ষা করবে না। তিনি আভাস দেন যে, মসুলে আইএসের বিরুদ্ধে মার্কিন সমর্থিত হামলা যদি গোষ্ঠীগত সহিংসতার সৃষ্টি করে তাহলে তুরস্ক ইরাকে অভিযান চালাতে পারে।
মসুল অভিযানে তুরস্ক অধিকতর সংশ্লিষ্ট না হওয়ায় তিনি হতাশা প্রকাশ করেন এবং বলেন, এক সময় অটোম্যান সা¤্রাজ্যের অংশ এ এলাকার তুর্কমেন ও সুন্নি আরবদের রক্ষা করা সুন্নি মুসলিম দেশ তুরস্কের দায়িত্ব। তুরস্কের আশঙ্কা যে, মসুল অভিযানে শনিবার অংশ নেয়া শিয়া মিলিশিয়ারা গোষ্ঠীগত রক্তক্ষয়ের উসকানি দেবে।
ইরাকে তুরস্কের সম্ভাব্য সেনা অভিযান হবে বিপজ্জনক। এতে সিরিয়ায় আইএস এবং দেশে দক্ষিণ-পূর্বে কুর্দি পিকেকে জঙ্গিদের সাথে লড়াই চলার সাথে এটা হবে তৃতীয় ফ্রন্ট।
ইরাকের স্বায়ত্তশাসিত কুর্দি অঞ্চলের রাজধানী আরবিলে তুরস্কের প্রথম কনসাল সাবেক কূটনীতিক আয়দিন সেলসেন বলেন, তুরস্ক তার অঞ্চলে প্রভাবশালী অভিনেতা, তবে তাকে সঠিকভাবে তার ওজন বুঝতে হবে। তিনি এরদোগানের বক্তৃতায় উল্লেখিত অটোম্যান প্রসঙ্গের উল্লেখ করে রয়টারসকে বলেন, ইতিহাস হচ্ছে বিশাল সুপারমার্কেটের মতো, যেখানে আপনি যা চান তাই পাবেন। আপনি জনগণের সমাবেশের জন্য ঐতিহাসিক প্রেক্ষাপট বেছে নিতে পারেন। তবে এর ওপর ভিত্তি করে আপনি পররাষ্ট্রনীতি বা সামরিক কৌশল নির্ধারণ করতে পারেন না।
কার্নেগি ইউরোপের উলজেনেরও সন্দেহ যে, তুরস্ক দেশের শ্রোতাদের জন্য বাগাড়ম্বর হিসেবে ইরাকে সেনা অভিযানের মতো পদক্ষেপকে ব্যবহার করবে। তবে তিনি উল্লেখ করেন যে, এ ধরনের কথাবার্তা তুরস্কের বিশ^াসযোগ্যতাকে হ্রাস করবে এবং তার পররাষ্ট্রনীতিতে অনাকাক্সিক্ষত ফল বয়ে আনবে।
তিনি বলেন, তুরস্ক এখন নিজেকে বিদেশের কঠোর বিরোধিতার সম্মুখীন দেখতে পাচ্ছে এবং তার মিত্রদের আকৃষ্ট করার সামর্থ্য হারাচ্ছে। তা শুধু ঐতিহ্যবাহী অংশীদারদের সঙ্গেই নয়, আঞ্চলিক খেলোয়াড়দের সঙ্গেও।
দেশের মধ্যে দমন অভিযান সামান্যই সাহায্য করছে।
ইউরোপীয় পার্লামেন্ট প্রেসিডেন্ট মার্টিন শুলজ টুইটারে লিখেছেন যে, জমহুরিয়াতে আটকের ঘটনা মত প্রকাশের স্বাধীনতার বিরুদ্ধে একটি রেডলাইন অতিক্রমের ঘটনা সূচিত করেছে। তিনি বলেন, চলমান শুদ্ধি অভিযানের পেছনে আইনগত ও নিরাপত্তা যুক্তির চেয়ে রাজনৈতিক বিবেচনা কাজ করছে বলে ধারণা।
ইস্তাম্বুল সরকারি কৌঁসুলি অফিস বলেছে, জমহুরিয়াতের কর্মচারীরা কুর্দি জঙ্গি ও মার্কিনভিত্তিক তুর্কি ধর্মীয় নেতা ফতেউল্লাহ গুলেনের পক্ষে অপরাধ সংঘটিত করছে বলে সন্দেহ করা হচ্ছে।
সরকারি মুখপাত্র নুমান কুরতুলমাস জমহুরিয়াতের ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা সম্পর্কে মন্তব্য করতে অস্বীকৃতি জানান।
কর্মকর্তারা বলছেন, এ ধরনের পদক্ষেপ ব্যর্থ অভ্যুত্থানের পর সৃষ্ট হুমকির প্রেক্ষিতে যুক্তিসঙ্গত। ঐ ব্যর্থ অভ্যুত্থানে ২৪০ জন মানুষ প্রাণ হারায়।
তারপর থেকে ১৭০টি সংবাদপত্র, সাময়িকী, টিভি স্টেশন ও সংবাদ সংস্থা বন্ধ করে দেয়া হয়েছে, ২,৫০০ সাংবাদিক চাকরিচ্যুত হয়েছেন বলে তুর্কি সাংবাদিক সমিতি আটকের প্রতিবাদ করে দেয়া এক বিবৃতিতে জানায়।
বিরোধী গ্রুপগুলো বলছে, সকল ভিন্নমত নীরব করার জন্যই শুদ্ধি অভিযানকে ব্যবহার করা হচ্ছে।
কুর্দিপন্থী পিপলস ডেমোক্র্যাটিক পার্টির প্রধান সালাহউদ্দিন ডেমরিটাস সাংবাদিকদের বলেন, আমরা কোনো বিরোধী দল না রাখা নিশ্চিত করতে একেপির ব্যবস্থাপনাকৃত সমন্বিত নির্যাতনের সম্মুখীন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ