Inqilab Logo

মঙ্গলবার, ২৮ জুন ২০২২, ১৪ আষাঢ় ১৪২৯, ২৭ যিলক্বদ ১৪৪৩ হিজরী

রংপুর চিড়িয়াখানার একমাত্র বাঘিনীর মৃত্যু

স্টাফ রিপোর্টার, রংপুর থেকে : | প্রকাশের সময় : ৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২২, ১২:০৪ এএম

রংপুর বিনোদন উদ্যান ও চিড়িয়াখানার একমাত্র বাঘিনী ‘শাওন’ মৃত্যু হয়েছে। গত শুক্রবার রাতে খাঁচাবন্দি থাকা অবস্থায় তার মৃত্যু হয়েছে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে। এই বাঘিনীর মৃত্যুর পর রংপুর চিড়িয়াখানা এখন বাঘ শূন্য হয়ে গেল।
বাঘিনীর মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে চিড়িয়াখানার ডেপুটি কিউরেটর আম্বর আলী তালুকদার জানিয়েছেন- খাঁচায় একটি মাত্র বাঘিনী ছিল। এই বাঘিনীকে শাওন নামে ডাকা হতো। ২০১০ সালে রংপুর চিড়িয়াখানায় শাওনকে আনা হয়। এর জন্ম ২০০৩ সালের ৩০ জুন। বয়স হয়েছিল ১৮ বছর সাত মাস। মৃত্যুর আগে কোনো রোগে আক্রান্ত ছিল না। তবে বাঘিনীটির বয়স বেশি হয়েছিল। বাঘ সাধারণত ১৫ থেকে ১৬ বছর পর্যন্ত বাঁচে। সে অনুযায়ী বার্ধক্যের কারণে বাঘিনীটির মৃত্যু হয়েছে। তবে নির্ভরযোগ্য একটি সূত্রে জানা গেছে, বাঘিনীটি প্রায় ১৫ থেকে ১৬ দিন থেকে খাওয়া ছেড়ে দিয়েছিল। মৃত্যুর পর গত শুক্রবার রাতে ময়নাতদন্ত শেষে চিড়িয়াখানাতেই পরিবেশ সম্মতভাবে তাকে মাটিতে পুঁতে রাখা হয়েছে।
উল্লেখ্য, দেশে দুটি সরকারি চিড়িয়াখানার মধ্যে রংপুর চিড়িয়াখানা একটি। প্রয়াত প্রেসিডেন্ট হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের শাসনামলে ১৯৮৯ সালে রংপুর নগরীর হনুমানতলা এলাকায় রংপুর চিড়িয়াখানাটি গড়ে তোলা হয় এবং এটি ১৯৯২ সালে দর্শনার্থীদের জন্য খুলে দেয়া হয়।
প্রায় ২২ একর জমির ওপর প্রতিষ্ঠিত এই চিড়িয়াখানাটিতে ৩৩ প্রজাতির ২৬০টি প্রাণী রয়েছে। এরমধ্যে সিংহ, বাঘ, জলহস্তী, হরিণ, অজগর সাপ, ইমু পাখি, উটপাখি, বানর, কেশওয়ারি, গাধা, ঘোড়া, ভাল্লুক উল্লেখযোগ্য।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: রংপুর চিড়িয়াখানার একমাত্র বাঘিনীর মৃত্যু
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ