Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ১৫ আগস্ট ২০২০, ৩১ শ্রাবণ ১৪২৭, ২৪ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

দুর্নীতির সঙ্গে জড়িত সবাইকে আইনের আওতায় আনা হবে-দুদক চেয়ারম্যান

প্রকাশের সময় : ৩ নভেম্বর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

স্টাফ রিপোর্টার : দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ বলেছেন, শুধু প্রভাবশালী নয়, দুর্নীতির সঙ্গে জড়িত সবাইকে আইনের আওতায় আনা হবে। এ জন্য শুধু দুদক নয়, সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টা থাকতে হবে। তিনি আরো বলেন, আমাদের সক্ষমতার অভাব আছে। আমাদের কাজে গাফিলতি আছে। আমরা চেষ্টা করছি। তবে হ্যাঁ সার্বিকভাবে দেশে দুর্নীতি কমেছে। গতকাল বুধবার রাজধানীর সেগুনবাগিচায় অবস্থিত দুদক কার্যলয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন। ২০১৫ সালের বার্ষিক প্রতিবেদন প্রকাশ উপলক্ষে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।
সরকার দলীয় এমপি আবদুর রহমান বদির সাজার বিষয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে ইকবাল মাহমুদ বলেন, আদালতের বিষয়ে আমাদের কোনো প্রতিক্রিয়া নেই। প্রত্যেকটি মামলায় আমরা সাজা চাই। কার সাজা হয়েছে সে বিষয়ে আমাদের কোনো মন্তব্য নেই। তিনি আরো বলেন, আমরা দ্ব্যর্থহীনভাবে দৃঢ়কণ্ঠে, দ্বিধাহীনভাবে বলতে চাই, শুধু প্রভাবশালী নয়, যারাই দুর্নীতির সঙ্গে স¤পৃক্ত থাকেন তাদের সবাইকে আইনের আওতায় আসতে হবে। এ জন্য শুধু দুদক নয়, সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টা থাকতে হবে। সর্বস্তরের সহযোগিতা ছাড়া দুর্নীতি দমন সম্ভব না’ বলেন দুদক চেয়ারম্যান। তিনি বলেন, আমরা সময় মানি না অনেক সময়। আমাদের মধ্যে দুর্নীতি আছে। আমরা চেষ্টা করছি। তবে হ্যাঁ সার্বিকভাবে দেশে দুর্নীতি কমেছে। তার প্রধান একটি ইন্ডিকেটর গ্রোথ রেট। দুর্নীতি যত কমবে গ্রোথ রেট তত বাড়বে। দুদক চেয়ারম্যান বলেন, পুলিশের বিরুদ্ধে অনেক অভিযোগ পাওয়া যায়। আমরা বলেছি পুলিশের কার্যক্রম মনিটরিংয়ের জন্য একটি স্বাধীন জুডিশিয়াল কমিশন গঠন করার জন্য। আমরা মনে করিছি যে তাদের কার্যক্রমটা মনিটরিং হলে তাদের কার্যক্রম আরও জনবান্ধব হবে এবং জনগণ ভালো সেবা পাবে।
বার্ষিক প্রতিবেদনের তথ্য তুলে ধরে ইকবাল মাহমুদ বলেন, গত বছর আভিযোগ পাওয়া যায় ১০ হাজার ৪১৫টি। এর মধ্যে ১ হাজার ২৪০টি অভিযোগ অনুসন্ধানের জন্য গ্রহণ করা হয়। আর প্রশাসনিক ব্যবস্থা নেয়ার জন্য পাঠানো হয় ১৬৫টি। বছরটিতে মামলা দায়ের হয় ৫২৭টি এবং চার্জশিট দাখিল হয় ৬১৪টি। এছাড়া নিষ্পত্তি করা হয় ১৮৮টি মমলার মধ্যে ৬৯টিতে সাজা হয়েছে, খালাস পেয়েছে ১১৯টি। সংবাদ সম্মেলনে দুদকের কমিশনার (তদন্ত) এএফএম আমিনুল ইসলাম, কমিশনার (অনুসন্ধান) ড. মো. নাসির উদ্দিন ও সচিব আবু মো. মোস্তফা কামাল।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: দুর্নীতির সঙ্গে জড়িত সবাইকে আইনের আওতায় আনা হবে-দুদক চেয়ারম্যান
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ