Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১০ আশ্বিন ১৪২৫, ১৪ মুহাররাম ১৪৪০ হিজরী‌

অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে রাজধানীতে দুই ব্যবসায়ী মরনাপন্ন

প্রকাশের সময় : ৩ নভেম্বর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

স্টাফ রিপোর্টার : রাজধানীতে পৃথক ঘটনায় অজ্ঞান পার্টির প্রতারক চক্রের খপ্পরে পড়ে দুই ব্যবসায়ী মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন। এরা হলেন, বাড্ডার স্বর্ণ ব্যবসায়ী আবুল হোসেন (৩৬) এবং বঙ্গবাজারের পোশাক ব্যবসায়ী মাইনুল ইসলাম (৩২)। তাদেরকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
ভূক্তভোগী আবুল হোসেনের ছোট ভাই সোহেল জানান, মধ্য বাড্ডায় তার ভাই আবুল হোসেনের স্বর্ণের দোকান রয়েছে। মঙ্গলবার রাত ৯টার পরেও তিনি নিজ দোকানে ছিলেন। ওই সময় তিন-চার জন দুর্বৃত্ত স্বর্ণালঙ্কার ক্রেতা পরিচয়ে দোকানে যায়। কথা বলার কোন এক সময় ওই চক্রের সদস্যরা তার ভাইকে কৌশলে অজ্ঞান করে। পরে স্বর্ণলঙ্কার ও টাকা পয়সা নিয়ে পালিয়ে যায়। রাতে আবুল হোসেন বাসায় না ফেরায় সকালে খোলা দোকানের ভেতরে তাকে অচেতন অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখেন। তাকে উদ্ধার করে নিয়ে যাওয়া হয় উত্তরার বাংলাদেশ মেডিকেলে। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে চিকিৎসকদের পরামর্শে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। গতকাল বুধবার সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত আবুল হোসেনের জ্ঞান ফেরেনি। তাকে কিছু খাইয়ে নাকি নাকে চেতনানাশক ওষুধ দিয়ে অজ্ঞান করা হয়েছে, তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, আবুল হোসেনের অবস্থা গুরুতর। পুলিশ জানায়, আবুল হোসেনের প্রতিষ্টান থেকে কি পরিমাণ স্বর্ণালঙ্কার ও টাকা পয়সা খোয়া গেছে তা জানা যায়নি।
অপরদিকে মিরপুর ১০ নম্বরে বাসের ভেতরে অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে পড়ে ৮০ হাজার টাকা খুঁইয়েছেন বঙ্গবাজারের কাপড় ব্যবসায়ী মাইনুল ইসলাম।
ভূক্তভোগীর ভাগ্নে রোকন জানান, গতকাল দুপুরে পল্লবীর একটি ব্যাংক থেকে ৮০ হাজার টাকা তোলেন তার মামা মাইনুল। টাকা নিয়ে বাসযোগে বঙ্গবাজারে নিজের দোকানে ফিরছিলেন। পথে বাসের ভেতরেই প্রতারকচক্রের সদস্যরা তাকে অজ্ঞান করে টাকা পয়সা নিয়ে যায়। বেলা ৩টার দিকে বাসের স্টাফরা তাকে অচেতন অবস্থায় মিরপুর ১০ নম্বর গোল চত্বর এলাকায় ফেলে যায়। সেখান থেকে স্থানীয় লোকজন মাইনুলকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন। তার সাথে থাকা নোটবুক থেকে নম্বর নিয়ে পুলিশ রোকনকে খবর দেয়। গতকাল সন্ধ্যায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত মাইনুলের জ্ঞান ফেরেনি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ