Inqilab Logo

সোমবার, ০৪ জুলাই ২০২২, ২০ আষাঢ় ১৪২৯, ০৪ যিলহজ ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

বিমানের টিকিট ও শ্রমবাজারের সিন্ডিকেট রুখতে হবে

মতবিনিময় সভায় সম্মিলিত সমন্বয় ফ্রন্ট বায়রা

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২২, ১২:০৪ এএম

বিমানের টিকিট ও মালয়েশিয়া শ্রমবাজারের সিন্ডিকেটকে রুখতে হবে। মাধ্যপ্রাচ্যগামী বিমানের টিকিটের মূল্য তিন গুন বৃদ্ধি পাওয়ায় প্রবাসী কর্মীদের টাকা যোগাতে নাভিশ্বাস উঠছে। প্রবাসী কর্মী ও জাতীয় স্বার্থেই টিকিট সিন্ডিকেট ও কথিত ২৫ সিন্ডিকেটকে রুখতে হবে। গতকাল শনিবার বিজয়নগরস্থ একটি হোটেলে মালয়েশিয়ার শ্রমবাজার সকল জনশক্তি রফতানিকারকদের জন্য উন্মুক্তকরণে দাবি এবং গ্রীসের শ্রমবাজার উন্মুক্ত হওয়ায় সম্মিলিত সমন্বয় ফ্রন্ট বায়রা আয়োজিত মতবিনিময় সভায় নেতৃবৃন্দ এসব কথা বলেন।
সম্মিলিত সমন্বয় ফ্রন্ট বায়রা এর সভাপতি ড. মোহাম্মদ ফারুকের সভাপতিত্বে এবং মহাসচিব মোস্তফা মাহমুদের পরিচালনায় এতে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, সংগঠনের সিনিয়র সহ সভাপতি ও বায়রার সাবেক সিনিয়র সহ সভাপতি রিয়াজ-উল-ইসলাম, লক্ষ্মীপুর জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি হাবের সাবেক নেতা গোলাম ফারুক, বীর মুক্তিযোদ্ধা সিরাজ মিয়া, রিক্রুটিং এজেন্সিজ ঐক্য পরিষদের সভাপতি এম টিপু সুলতান মহাসচিব আরিফুর রহমান, রেদওয়ান, মকবুল আহমেদ, মফিজ উদ্দিন, মারফত উল্লাহ সুমন, কাজী আব্দুর রহিম, শেখ ইকবাল ও আহমেদুল্লাহ বাচ্চু। এতে নোভা এসোসিয়েটের স্বত্বাধিকারী মো.শফিক উল্লাহ নান্টু ও শিমন ওভারসীজের স্বত্বাধিকারী মোহাম্মদ ইসহাকসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
সভায় নেতৃবৃন্দ বলেন, বিমানের যথাযথ উদ্যোগের অভাবে বিদেশি এয়ারলাইন্সগুলো টিকিটের মূল্য তিন গুন বাড়িয়ে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে। বিমানের অসাধু কর্মকর্তারা আগামী তিন মাসের টিকিট ব্লক করে রেখে ট্রাভেল এজেন্টের সাথে আতাঁত করে রাতারাতি কালো টাকার মালিক হচ্ছে। গরিব নিরীহ প্রবাসী কর্মীরা উচ্চ মূল্যের টিকিটের টাকা যোগাতে ভিটেমাটি বিক্রি করতে বাধ্য হচ্ছে। বিমানের টিকিট সিন্ডিকেট বন্ধ করে টিকিটের দাম সহনীয় পর্যায়ে কমিয়ে আনতে হবে। নেতৃবৃন্দ বলেন, মালয়েশিয়ার শ্রমবাজারে বিগত দশ সিন্ডিকেট চক্র ২ লাখ ৭৫ হাজার কর্মী পাঠিয়ে জনপ্রতি চার লাখ টাকা করে হাতিয়ে নিয়েছে। মেডিকেল সেন্টারগুলো লাখ লাখ কর্মীর স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে কোটি কোটি টাকা লুটপাট করেছে। সভাপতির বক্তব্যে ড. মোহাম্মদ ফারুক বলেন, রিক্রুটি এজেন্সিগুলোর রুটি রুজি ও অভিবাসী কর্মীদের স্বার্থ রক্ষায় মালয়েশিয়ার শ্রমবাজারে সকল বৈধ এজেন্সিকে কর্মী প্রেরণের সুযোগ দিতে হবে। টিকিট ও শ্রবাজারের সকল সিন্ডিকেটকে রুখতে হবে। গ্রীসের শ্রমবাজার উন্মুক্ত হওয়ায় তিনি প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রীকে অভিনন্দন জানান। সভায় শিগগিরই জাতীয়ভিত্তিক একটি সেমিনারের আয়োজনের ঘোষণা দেয়া হয়।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: শ্রমবাজারের সিন্ডিকেট
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ