Inqilab Logo

বৃহস্পতিবার, ১১ আগস্ট ২০২২, ২৭ শ্রাবণ ১৪২৯, ১২ মুহাররম ১৪৪৪
শিরোনাম

অনিয়মের অভিযোগে গণপদত্যাগের হুমকি

বগুড়া জেলা যুবসংহতি

বগুড়া ব্যুরো : | প্রকাশের সময় : ১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২২, ১২:০১ এএম

জাতীয় যুব সংহতি বগুড়া জেলা শাখার সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির গঠন প্রক্রিয়ায় অনিয়মের অভিযোগ তুলেছেন কয়েকজন নেতা। তারা বলেছেন এ কারণে ত্যাগী নেতারা দলীয় কার্যালয়ে যাতায়াত বন্ধ করে দিয়েছেন। একইসাথে তারা বলেছেন, এই কমিটি বাতিল না করলে তারা গণপদত্যাগ করবেন।

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান বরাবর গত ২৫ জানুয়ারি পাঠানো এক চিঠিতে জেলা সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির সদস্য সচিব আব্দুল্লাহ আল মামুন অভিযোগ করেন , গত ১৫ জানুয়ারি পত্রিকার খবরে জানতে পারি , গত ১৪ জানুয়ারি জেলা যুবসংহতির নেতৃবৃন্দের সাথে রাজশাহী বিভাগীয় সাংগাঠনিক টিমের এক মতবিনিময় সভায় শাহীন মোস্তফা কামাল ফারুককে আহবায়ক , জেলা জাতীয় পার্টির আহবায়ক ও বগুড়া-২ আসনের সংসদ সদস্য শরিফুল ইসলাম জিন্নাহর ছেলে শরীফ সঞ্চয়কে সদস্য সচিব করে ৩৩ সদস্য বিশিষ্ট সম্মেলন প্রস্তৃতি কমিটি গঠন করা হয়েছে। চিঠিতে তিনি অভিযোগ করেন, তাকে সভা সম্পর্কে কিছুই জানানো হয়নি। ওই কমিটির ১৬ জনের মধ্যে মাত্র ২ জন সদস্য সভায় উপস্থিত ছিলেন। পূর্বের কমিটির ১৬ জনের মধ্যে ১২জনকে বাদ দিয়ে ৪ জনকে কমিটিতে রাখা হয়েছে। এ নিয়ে দলের মধ্যে তীব্র অসন্তোষ সৃষ্টি হয়েছে। এদিকে কাহালু উপজেলায় পকেট কমিটি গঠনের প্রতিবাদে ও জেলা আহবায়ক শাহীন মোস্তফা কামাল ফারুককে জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদকের পদ থেকে বহিস্কারের দাবিতে কাহালু উপজেলা সদরের বটতলায় গত শনিবার একটি মানববন্ধন কর্মসূচিও পালিত হয়েছে।
পুর্বের জেলা কমিটির সদস্য শরিফুল ইসলাম বাবু ও বর্তমান সদর উপজেলা যুব সংহতির সাধারণ সম্পাদক মনির খান, অভিযোগ করেন, গত ১৫ জানুয়ারি ফেসবুকে প্রকাশিত কমিটির আহবায়ক ফারুকের বয়স ৬৪ বছর। ওই কমিটির সদস্য সচিব এমপি জিন্নাহর ছেলে সঞ্চয়ের দলে কোন অবদান নেই। কয়েকজন স্কুলের ছাত্র, রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত নন এমন শিশু কিশোরকে উপস্থিত করে, সিনিয়র নেতাদের বাদ দিয়ে রাজশাহী বিভাগীয় টিমের সদস্য সাজিদ রওশন ইসানকে পাঁচ তারকা হোটেল মমইনে ৩ দিন রেখে আপ্যায়নের মাধ্যমে কমিটি করা হয়েছে।
এতে অভিমান করে প্রথম সারির নেতারা জেলা কার্যালয়ে যাতায়াত বন্ধ করেদিয়েছেন। প্রয়োজনে তারা গণপদত্যাগ করবেন বলে জানিয়েছেন।
এদিকে গত ১৮ জানুয়ারি জেলা জাতীয় পার্টির কার্যালয়ে জেলা,উপজেলা ও পৌর কমিটির নেতৃবৃন্দের এক সাধারণ সভা জেলা আহবায়ক শাহীন মোস্তফা কামাল ফারুকের অনুপস্থিতিতে সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির সদস্য সচিব আবদুল্লাহ আল মামুনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। সভায় আব্দুল্লাহ আল মামুনকে আহবায়ক করে ৫১ সদস্য বিশিষ্ট সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটি পুনর্গঠন করা হয়। এ কমিটি অনুমোদনের জন্য জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যানসহ যুব সংহতির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে পাঠানো হয়েছে। এ সব অভিযোগ সম্পর্কে রাজশাহী বিভাগীয় সাংগাঠনিক টিমের আহবায়ক ওয়াশিউর রহমান দোলনের সাথে মোবাইলে যোগাযোগ করলে ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।
তবে ওই টিমের সদস্য এবং রাজশাহী মহানগর যুবসংহতির সভাপতি সাজিদ রওশন ইসান অনিয়ম ও র্দুীতির সকল অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, কেন্দ্রীয় কমিটির নির্দেশে বগুড়ার দলীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সভায় উপস্থিত ৯টি উপজেলা কমিটির নেতৃবৃন্দের মতামতের ভিত্তিতে এক মাসের মধ্যে সম্মেলনের শর্তে শাহীন মোস্তফা কামাল ফারুককে আহবায়ক করে ৩৩ সদস্য বিশিষ্ট জেলা যুব সংহতির সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটি গঠনের সুপারিশ করলে কেন্দ্র অনুমোদন করেছে। টিমের আহবায়ক ওয়াশিউর রহমান দোলন সভার ৩ দিন আগেই অভিযোগকারি আব্দুল্লাহ আল মামুনকে ফোনে সভায় উপস্থিত থাকতে বলেছিলেন। কেন্দ্রের নির্দেশেই কমিটি গঠন করা হয়েছে। তবে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে সম্মেলন করতে ব্যর্থ হলে তখন কেন্দ্র সিদ্ধান্ত নেবে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বগুড়া জেলা যুবসংহতি
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ