Inqilab Logo

ঢাকা শুক্রবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১০ আশ্বিন ১৪২৭, ০৭ সফর ১৪৪২ হিজরী

চন্দ্রঘোনা ইউপি নির্বাচন প্রার্থী আছে পোস্টার নেই

প্রকাশের সময় : ৫ নভেম্বর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

কবির হোসেন, কাপ্তাই (রাঙ্গামাটি) থেকে

আগামী ১২ নভেস্বর কাপ্তাই উপজেলার ১নং চন্দ্রঘোনা ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনকে কেন্দ্র করে চলছে বিভিন্ন আলোচনা সমালোচনা। পাশাপাশি চলছে ভিন্নধারার হিসাব নিকাশ। কাপ্তাই উপজেলার ৫টি ইউনিয়ন পরিষদের মধ্যে ১নং চন্দ্রঘোনা ইউপি পরিষদ নির্বাচন অতিগুরুত্বপূর্ণ এলাকা হিসাবে সকলের নিকট পরিচিত। উক্ত নির্বাচনে ৪জন চেয়ারম্যান প্রার্থী নির্বাচন করছে। এর মধ্যে বর্তমান ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী মুহাম্মদ আনোয়ারুল ইসলাম (বেবি) নৌকা প্রতীক, বিএনপির মনোনীত প্রাথী জাকির হোসেন (ধানেরশীষ), ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ চেয়ারম্যান প্রার্থী মুহাম্মদ হারুনুর রশিদ (হাত পাখা), স্বত্রন্ত্র ইব্রাহিম হাবিব মিলু (আনারস)। এছাড়া মহিলা সদস্য প্রার্থী ৯জন এবং সংরক্ষীত সদস্য ৩৩জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে। উক্ত ১নং ইউপি পরিষদে মোট ভোটার ৯হাজার ৫৪০জন। এর মধ্যে পুরুষ ৫,২৯৫জন মহিলা ৪,২৪৫জন ভোটার রয়েছে। চন্দ্রঘোনা এলাকা ঘুরে দেখা যায় একজন চেয়ারম্যান প্রার্থী ও সকল সদস্যদের পোষ্টার দেখা গেলেও অন্যকোন চেয়ারম্যানের কোন পোষ্টার চোখে পড়েনি। এ ব্যাপারে জানতে চাইলে অন্য তিনজন চেয়াম্যান প্রার্থীর কোন জবাব পাওয়া যায়নি। নাম না প্রকাশ করার শর্তে একজন প্রার্থী বলেন ভাই পড়ে বলব। আমি হুমকিতে ভয়ে এলাকার বাইরে রয়েছি। প্রশাসনের পক্ষ হতে জানা যায়, নির্বাচন সুষ্ঠু এবং শান্তিপূর্ণভাবে হবে। কোন ধরনের জাল বা সন্ত্রাস করে ভোট নিবে আমরা তা হতে দেব না। এখানে অবাধ ও সুষ্ঠু নির্র্বাচন হবে বলে আমার বিশ্বাস। এদিকে নৌকা প্রতীক আনোয়ারুল ইসলাম বেবী বলেন, এলাকায় অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন আমিও চাই। আশা করি এখানে সুষ্ঠু নির্বাচন হলে আমি জনগণের রায় পাব। তিনি বলেন, আমাকে জনগণ নির্বাচিত করলে প্রথমে এলাকার মাদকমুক্ত, সন্ত্রাসমুক্ত সমাজ গঠন করব। কর্ণফুলী পেপার মিলস (কেপিএম), সাবেক প্রতিমন্ত্রী দীপংকর দাদাকে নিয়ে আরো কিভাবে উন্নয়ন এবং উৎপাদন করে সচল রাখা যায় তার জন্য কাজ করে যাব। এ ছাড়া এলাকার বেকার যুবসমাজের জন্য হস্তশিল্প, কম্পিউটার প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা এবং সরকারের দেয়া সকল প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়ন করবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যাক্ত করে। উল্লেখ্য উপজেলার ৫টি ইউপির মধ্যে ১নং চন্দ্রঘোনা ইউপির সিমানা জটিলতা নিয়ে একটি মামলা করলে উক্ত ইউপি নির্বাচন স্থগিত হয়। পরে আবার রিট করায় এটি খারিজ করে নির্বাচন কমিশনার আগামি ১২নভেম্বর পুনরায় নির্বাচন করার অনুমতি প্রদান করে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: চন্দ্রঘোনা ইউপি নির্বাচন প্রার্থী আছে পোস্টার নেই
আরও পড়ুন